scorecardresearch
 
বিশ্ব

টাকার জন্য শেষে এই কাজ করলেন জনপ্রিয় মডেলরা! যেতে হল জেলে

পেয়েছেন
  • 1/10

ইনস্টাগ্রামে জনপ্রিয় দুই মডেল সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। দুই মডেলই অনলাইন গেমিংয়ের নামে লোকেদের সাথে প্রতারণা করার অভিযোগে অভিযুক্ত।  সব ছবি-ইনস্টাগ্রাম/sbarankoglu1

সোশ্যাল
  • 2/10

এরপর তাঁদের দুজনকে জেলে পাঠানো হয়। বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার এই দুই তারকাই দুই মাসের কারাদণ্ড ভোগ করে এখন জামিনে রয়েছেন।
 

ফলোয়ার
  • 3/10

ডেইলি স্টারের মতে, ইনস্টাগ্রামে প্রভাবশালী  Simge Barankoglu ৯ লাখেরও বেশি ফলোয়ার রয়েছে।  Yesim Aydin-এর ১ লাখ ৫৮ হাজারের বেশি ইন্সটা ফলোয়ার রয়েছে। 

করার
  • 4/10

তাদের দুজনের বিরুদ্ধে একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় গেম প্রচারের নাম প্রতারণা করার অভিযোগ রয়েছে, যেখানে তারা ব্যবহারকারীদের টাকা দিতে বলেছিল।
 

মডেলসহ
  • 5/10

তারা দুজনেই বলেছিল যে এই গেম খেললে নগদ পুরস্কার পাবে। এ ঘটনায় তুরস্কে এই দুই মডেলসহ ২০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 
 

প্রতারণার
  • 6/10

তাদের সবার বিরুদ্ধেই গেমিংয়ের নামে প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। ৯ নভেম্বর তুরস্কের ইজমির, ইস্তাম্বুল, আঙ্কারা, কাস্তামোনু, কারাবুক, মালতায়া এবং মেরসিন প্রদেশ থেকে এই ২০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
 

পেয়েছেন
  • 7/10

তবে দুই মাস কারাগারে থাকার পর এখন জামিনে মুক্তি পেয়েছেন সিমগে বারঙ্কোগ্লু ও ইয়েসিম আইদিন। অভিযোগ , মডেলসহ ২০ জন ব্যক্তি ৬ মাসের মধ্যে ২৫০ জনকে ২২ লাখের বেশি প্রতারণা করেছে।

প্রতারণা
  • 8/10

সিমগে বারানোগ্লু এবং ইয়েসিম আইদিন তাদের আত্মপক্ষ সমর্থনে বলেছেন যে তারা এই প্রতারণা সম্পর্কে অবগত ছিলেন না। এই সিন্ডিকেটের পেছনে যে গুন্ডা আছে তাও তারা জানতেন না। 

উপার্জন
  • 9/10

সিমগে বারানোগলু তার বিবৃতিতে বলেছেন, 'আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করি। ভেবেছিলাম এডের মতো হবে। এর সাথে জড়িতদের সম্পর্কে আমি তেমন কিছু জানতাম না।

যোগাযোগ
  • 10/10

ইয়েসিম আয়দিন বলেন, 'যখনই কেউ আমার সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় যোগাযোগ করে এবং বলে যে আমি বিজ্ঞাপনের বিনিময়ে টাকা পাব, তখনই আমি তা মেনে নিই। কারণ এটা আমার কাজ। আমি যদি জানতাম যে এর পিছনে গুন্ডারা আছে, তাহলে আমি কিছুতেই মেনে নিতাম না।