scorecardresearch
 

KIFF 2021: সিনেমায় নাটকের প্রভাব পড়ছে? সিনে আড্ডায় বাংলার নাট্যশিল্পীরা

২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের (Kolkata International Film Festival / KIFF) পঞ্চম দিনেও আয়োজন করা হয়েছিল এক সিনে আড্ডার (Cine Adda)। বর্তমান সময়ের প্রাসঙ্গিক বিষয়, 'সিনেমায় নাটকের প্রভাব' (Influence of Theatre in Cinema) ছিল এদিনের আলোচনার বিষয়বস্তু। একতারা মুক্তমঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সমসাময়িক নাট্যশিল্পীরা।

সিনে আড্ডায় নাট্য শিল্পীরা সিনে আড্ডায় নাট্য শিল্পীরা
হাইলাইটস
  • চলছে ২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব।
  • নন্দনে সিনে আড্ডায় বাংলার নাট্যশিল্পীরা।
  • আলোচলার বিষয় 'সিনেমায় নাটকের প্রভাব'।

২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের (Kolkata International Film Festival / KIFF) পঞ্চম দিনেও আয়োজন করা হয়েছিল এক সিনে আড্ডার (Cine Adda)। বর্তমান সময়ের প্রাসঙ্গিক বিষয়, 'সিনেমায় নাটকের প্রভাব' (Influence of Theatre in Cinema) ছিল এদিনের আলোচনার বিষয়বস্তু। একতারা মুক্তমঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সমসাময়িক নাট্যশিল্পীরা।

করোনা অতিমারীতে নাট্য জগতেও বিস্তর প্রভাব পড়েছে। তবে সিনেমায় কি নাটকের প্রভাব পড়ছে বর্তমান সময়ে? আড্ডা- আলোচনায় সমৃদ্ধ হয়েছেন উপস্থিত সকলে। বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শুভাশিস মুখোপাধ্যায় (Subhasish Mukhopadhyay,দেব শংকর হালদার (Deb Shankar Halder), রজতাভ দত্ত (Rajatabha Dutta), সব্যসাচী চক্রবর্তী (Sabyasachi Chakraborty), শান্তিলাল মুখোপাধ্যায় (Shantilal Mukhopadhyay), দেবেশ চট্টোপাধ্যায় (Debesh Chatterjee) ও সঞ্চালনা করেছেন অভিনেত্রী চৈতি ঘোষাল (Chaiti Ghosal)।  

আরও পড়ুন: KIFF 2021: গান শুনতে না দেখতে ভালো? জমজমাট আড্ডায় সঙ্গীতশিল্পীরা

সব্যসাচী চক্রবর্তীর মনে করেন, "নাটক অনেক বছরের পুরনো সেই তুলনায় সিনেমা নেহাতই শিশু নাটকের প্রভাব যে সিনেমায় থাকবে এটা তো বলাই বাহুল্য। আমার মনে হয় বর্তমানে সিনেমার প্রভাব নাটকে বেশি পরছে যেটা খুবই ক্ষতিকারক।" দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ের কথায়, " যতটা বহুমুখী প্রতিক্রিয়াতে আমাদের বাংলা বা ভারতীয় থিয়েটার ও ফিল্ম হাত ধরতে পারতো এবং একে অন্যের কাছে উপকৃত হতে পারতো। তার থেকে বরং ছবি অনেক দূরে সরে গেছে। থিয়েটার ছবির অনেক উপকরণ নিজেদের কাজে ব্যবহার করে তার জায়গা থেকে অনেকটা এগিয়ে গেছে।" 

আরও পড়ুন: KIFF 2021: ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম সিনেমার ভাষা বদলে দিচ্ছে! সিনে আড্ডায় টলি পাড়ার শিল্পীরা

 দেবশংকর হালদার জানালেন, "মঞ্চ ও বড় পর্দা দুটোই হাত ধরাধরি করে চলবে এবং আগামী দিনেও এগিয়ে যাবে এটাই আমার ধারণা। আমাদের মাথায় রাখতে হবে দুটোই কিন্তু মাটি থেকে তৈরি হওয়া একটি ফসল। যেটি সুস্বাদু এবং যার মুগ্ধতার জন্যে আমরা রাতের পর রাত আলোচনা করতে পারি এই নিয়ে।" 

মঞ্চ হোক কিংবা বড় পর্দা, অভিনয়ের যে কোন মাধ্যমেই দর্শকদের সঙ্গে সংযোগটাই আসল কথা। দুটোই নিজ স্থানে বিরাজমান। একে অপরের হাত ধরাধরি করে এগিয়ে চলুক বাংলার শিল্পকলা।