scorecardresearch
 

Sreelekha-Sasanka Controversy : কুকুরছানার মৃত্যুতে শশাঙ্ককে মারধরের অভিযোগ, আইনি পথে আক্রান্ত

কিছুদিন আগে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র জানিয়েছিলেন কেউ কোনও পথকুকুর বা বিড়াল ছানাকে দত্তক নিলে তাঁর সঙ্গে ডেটে যাবেন তিনি। শ্রীলেখার সেই ঘোষণার প্রেক্ষিতে সাড়া দেন শশাঙ্ক ভাভসর (Sasanka Bhavsar)। একটি কুকুর ছানা দত্তক নেন তিনি। আর তারপরেই কথা রাখেন শ্রীলেখা। শশাঙ্কের সঙ্গে ডেটে যান তিনি। 

সেই কফি ডেটের ছবি সেই কফি ডেটের ছবি
হাইলাইটস
  • শশাঙ্ক ভাবসরকে মারধরের অভিযোগ
  • আইনি পথে যাওয়ার হুঁশিয়ারি রেড ভল্যান্টিয়ারের
  • থানায় অভিযোগ দায়ের পশুপ্রেমী সংস্থারও

কুকুর ছানা মৃত্যুর ঘটনায় এবার আইনি পথে হাঁটতে চলেছেন রেড ভল্যান্টিয়ার শশাঙ্ক ভাভসর। একটি সংবাদমাধ্যমকে এই কথা জানিয়েছেন তিনি। এবার এই প্রসঙ্গে যা কথা তাঁর আইনজীবীই বলবেন বলেও জানান শশাঙ্ক। একইসঙ্গে, অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রর (Sreelekha Mitra) সঙ্গে ডেটে যাওয়ার জন্য যে তিনি কুকুর ছানা দত্তক নেননি, সেই কথাও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন শশাঙ্ক ভাভসর। তাঁর আরও দাবি, কুকুর ছানাটিকে তিনি মারেননি। সবার অলক্ষ্যে সেটি বাড়ির বাইরে চলে যায়। সেই সময় রাস্তার অন্য কুকুররা সেটিকে মেরে ফেলে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র জানিয়েছিলেন কেউ কোনও পথকুকুর বা বিড়াল ছানাকে দত্তক নিলে তাঁর সঙ্গে ডেটে যাবেন তিনি। শ্রীলেখার সেই ঘোষণার প্রেক্ষিতে সাড়া দেন শশাঙ্ক ভাভসর (Sasanka Bhavsar)। একটি কুকুর ছানা দত্তক নেন তিনি। আর তারপরেই কথা রাখেন শ্রীলেখা। শশাঙ্কের সঙ্গে ডেটে যান তিনি। 

কিন্তু কয়েকদিন আগে অভিযোগ ওঠে ওই কুকুর ছানাটিকে নাকি মেরে ফেলেছেন শশাঙ্ক ভাভসর। সেই কথা জানতে পেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দেন শ্রীলেখা মিত্র। এমনকী এর শেষ দেখে ছাড়লেব বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। অভিযোগ এরপরেই, বুধবার শশাঙ্কর পাড়ায় গিয়ে তাঁকে মারধর করে ২ মহিলা। এই প্রসঙ্গে শশাঙ্ক অভিযোগ, "আয়ুশি দে এবং দময়ন্তী সেন নামে People For Animals-এর দুই সদস্য আমার বাড়িতে আসে এবং আমাকে সঙ্গে করে যে স্থানে কুকুরের ছানাটি মারা যায় সেই স্থান পরিদর্শন করে। এরপর আমাকে মারধর করা হয়।" মারধরের জেরে হাসপাতালে চিকিৎসাও করাতে হয় শশাঙ্ককে। ঘটনায় বেলঘড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। একইসঙ্গে আইনি পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শশাঙ্ক। 

এদিকে আয়ুশি দে জানান, "শশাঙ্ক নামে ওই ভদ্রলোক মেনকা গান্ধীর সংস্থা পিপলস পর অ্যানিমাল থেকে একটি কুকুর ছানা দত্তক নেন। আমরা জানি না যে কী করে ওই কুকুরের ছানাটি মারা গিয়েছে। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই একটা উত্তেজনার সৃষ্টি হয়, ধাক্কাধাক্কি হয়। যাই হোক আমরা অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।"