scorecardresearch
 

ভোটে জিতে খোশমেজাজে, ইউভানকে নিয়ে লং ড্রাইভে রাজ

ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী চন্দ্রমণি শুক্লাকে ৯ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়ে প্রথমবার বিধানসভায় পা রাখতে চলেছেন টলিউডের প্রথম সারির এই পরিচালক। নিজের কেন্দ্রে তিনি কী কী করতে চান তার প্রাথমিক খসড়া ভোটে জেতার পরই সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন রাজ। তবে ভোটে জিতে আপাতত খানিকটা রিল্যাক্স মুডে ছিলেন রাজ। ছেলে ইউভানকে নিয়ে লং ড্রাইভে গেলেন।

রাজ - শুভশ্রী - ইউভান রাজ - শুভশ্রী - ইউভান

দেড় মাসের ভোট-যুদ্ধ শেষে স্বস্তিতে ব্যারাকপুরের বিজয়ী তৃণমূল প্রার্থী পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী চন্দ্রমণি শুক্লাকে ৯ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়ে প্রথমবার বিধানসভায় পা রাখতে চলেছেন টলিউডের প্রথম সারির এই পরিচালক। নিজের কেন্দ্রে তিনি কী কী করতে চান তার প্রাথমিক খসড়া ভোটে জেতার পরই সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন রাজ। তবে ভোটে জিতে আপাতত খানিকটা রিল্যাক্স মুডে ছিলেন রাজ। ছেলে ইউভানকে নিয়ে লং ড্রাইভে গেলেন। ভিডিও পোস্ট করলেন সোশাল মিডিয়ায়।

প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর থেকে ব্যারাকপুরেই মাটি কামড়ে পড়ে ছিলেন রাজ। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া প্রভাবশালী এবং ক্ষমতাশালী নেতা অর্জুন সিংয়ের গড় বলে পরিচিত ব্যারাকপুর। ২০১৯-এ লোকসভা নির্বাচনে এখান থেকেই বিজেপির টিকিটে জেতেন অর্জুন। সেখানেই পদ্মের জায়গায় জোড়াফুল ফোটালেন রাজ। জেতার পর রাজ বলেন, 'আমরা কৃতজ্ঞ। কথা দিয়েছিলাম, আপনারা যদি আমায় ১০৮ ব্যারাকপুর বিধানসভা থেকে বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত করেন, আপনাদের সেবায় আমি নিজেকে নিয়োজিত করব। নিজেদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আপনারা কথা রেখেছেন। এবার পালা আমার। কথা দিলাম, আগামী ৫ বছর আপনাদের পাশে থাকব। যে কোনও পরিষেবা পৌচ্ছে দিতে আমি প্রস্তুত। পালিয়ে যাব না। এই মূহুর্তে করোনা মহামারী আমাদের জন্যে সব থেকে ভয়াবহ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহামারীর বিরুদ্ধে আমরা লড়ব একসঙ্গে। ব্যারাকপুর ও টিটাগড়ে আমরা ওয়ার্ড ভিত্তিক একটি পরিকাঠামো গঠন করব। মানুষের যে কোনও সমস্যায় আমাদের পরিষেবা পৌছে যাবে আপনাদের দোরগোড়ায়৷'

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Raj Chakrabarty 🇮🇳 (@rajchoco)

তবে রাজ একা নন, প্রথম আবির্ভাবেই ভোট ময়দানে বাজিমাত করেছেন বহু তারকা প্রার্থী। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন, জুন মালিয়া, কাঞ্চন মল্লিক, সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, অদিতি মুন্সি, সাঁওতালি ছবির অভিনেত্রী বীরবাহা হাঁসদা প্রমুখরা। এখন নজর আপাতত ৬ মে-র দিকে। এঁদের মধ্যে কেউ কোনও মন্ত্রক পাবেন কিনা তা জানতে আর কিছু দিনের অপেক্ষা।