scorecardresearch
 
 

Kanchan Mullick: 'নিজের পরকীয়া ঢাকতে বদনাম করছে পিঙ্কি', বিস্ফোরক কাঞ্চন

গত কয়েক দিনের ঘটনা প্রবাহ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করলেন কাঞ্চন। জানালেন, তাঁকে মিথ্যে দোষারোপ করতে গিয়ে নিজের স্বরূপ প্রকাশ করে ফেলেছেন স্ত্রী পিঙ্কি (Pinki Banerjee)। নিজের পরকীয়া ঢাকতে শ্রীময়ী চট্টরাজ-কে (Sreemoyee Chattoraj) নিয়ে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কথা প্রচার করেছেন তিনি।

কাঞ্চন মল্লিক কাঞ্চন মল্লিক
হাইলাইটস
  • কাঞ্চনের আক্ষেপ, এ সব ক্ষেত্রে সমাজ সবার আগে নারীর পাশেই দাঁড়ায়।
  • খলনায়কের তকমা পায় পুরুষই। এ ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হচ্ছে না।
  • সোশাল মাধ্যম থেকে পাড়া প্রতিবেশী সকলের সামনেই মুখ হেঁট হচ্ছে তাঁর।

সম্পর্কের মধ্যে আইনি জটিলতা, দোষারোপ এবং পরকীয়ার অভিযোগে আপাতত অভিনেতা বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিক (Kanchan Mullick) বার বার সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছেন। গত কয়েক দিনের ঘটনা প্রবাহ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করলেন কাঞ্চন। জানালেন, তাঁকে মিথ্যে দোষারোপ করতে গিয়ে নিজের স্বরূপ প্রকাশ করে ফেলেছেন স্ত্রী পিঙ্কি (Pinki Banerjee)। নিজের পরকীয়া ঢাকতে শ্রীময়ী চট্টরাজ-কে (Sreemoyee Chattoraj) নিয়ে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কথা প্রচার করেছেন তিনি।

কাঞ্চন বলেন, 'পরকীয়া দূরঅস্ত কাজের বাইরে কোনও সম্বন্ধই নেই! এই প্রশ্ন কেউ করেছেন ওঁকে? জানতে চেয়েছেন, পিঙ্কির প্রশাসনিক মহলে কত জন ‘বন্ধু’ রয়েছেন? কেউ জিজ্ঞেস করবেন না। কারণ, কোনও নারী এই ধরনের অভিযোগ তুললে সমাজ তাঁর পক্ষে। পুরুষদেরও কান্না পায়, কে বুঝবে? তার উপর সে যদি হয় ‘লোক হাসানো’ কাঞ্চন মল্লিক! লোক হাসাতে হাসাতে আজ একা ঘরে হাউহাউ করে কাঁদছি। কেউ দেখার নেই!'

কাঞ্চনের আক্ষেপ, এ সব ক্ষেত্রে সমাজ সবার আগে নারীর পাশেই দাঁড়ায়। খলনায়কের তকমা পায় পুরুষই। এ ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হচ্ছে না। সোশাল মাধ্যম থেকে পাড়া প্রতিবেশী সকলের সামনেই মুখ হেঁট হচ্ছে তাঁর। তিনি বলেন, 'কী উত্তর দেব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে? ওঁরা আমায় ভরসা করে একটি কেন্দ্রের বিধায়ক পদে প্রার্থী করেছেন। দলের কাছে, নেত্রীর কাছে এ ভাবে ছোট করার মানে কী?' তিনি আরও জানান, বিধায়ক হওয়ার পর থেকে পিঙ্কি তাঁকে নানা দাবিদাওয়া জিনিয়েছেন, যার তাঁর মতো সাধারণ ছাপোষা অভিনেতার পক্ষে দেওয়া সম্ভব নয়। লক ডাউন চলাকালীনও তিনি কী কী করেছেন পরিবারের জন্য সে কথাও জানিয়েছেন।

বিধায়ক হওয়ার পর তাঁর কাঁধে এখন অনেক বড় দায়িত্ব। এমনটাই জানিয়েছেন কাঞ্চন। আর এই দোষারোপ এবং অপবাদ থেকে মুক্তি চান তিনি। সন্তানের সমস্ত দায়িত্ব তিনিই নেবেন, তবে এ ধরনের অশান্তি ভোগ করতে করতে তিনি ক্লান্ত।