scorecardresearch
 
দেশ

শত্রুর সঙ্গে যুঝতে সেনার হাতে VL-SRSAM, সমুদ্র থেকে মহাকাশ, আরও পরাক্রমশালী ভারত

VL-SRSAM
  • 1/7

ভারত আকাশসীমা প্রতিরক্ষায় বড় সাফল্য পেল৷   ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন  (ডিআরডিও)  সফলভাবে উৎক্ষেপণ  করল  ভার্টিকাল লঞ্চ-শর্ট রেঞ্জ সারফেস টু এয়ার মিসাইল  VL-SRSAM-কে।
 

VL-SRSAM
  • 2/7

সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি নয়া মিসাইলের  সফল ও 'নিখুঁত' উৎক্ষেপণ করা হল ওডিশার চাঁদিপুরের উপকূল থেকে। এর ফলে আকাশপথে আরও শক্তি বাড়ল ভারতের। 
 

VL-SRSAM
  • 3/7

এটিকে  মূলত ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্যতৈরি করা হয়েছে। এই মিসাইল তৈরির জন্য একযোগে কাজ করেছেন ডিআরডিওর বিভিন্ন ল্যাব। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য  ডিআরডিএল, আরসিআই হায়দরাবাদ, পুনের আরঅ্যান্ডডি ইঞ্জিনিয়রস।
 

VL-SRSAM
  • 4/7

কম দূরত্বের লক্ষ্য বস্তুতে নিখুঁত আঘাত করতে পারে VL-SRSAM। ট্রায়ালের সময় এর VL-SRSAM ওয়েপন কন্ট্রোল সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। মিসাইলের পরীক্ষা চলাকালীন তার রেঞ্জ ও নিশানা পরীক্ষার জন্য রাখা হয়েছিল ফ্লাইট পাথ, ভেহিকল পারফরম্যান্স প্যারামিটার যন্ত্র। 
 

VL-SRSAM
  • 5/7


ফ্লাইট ডেটা, ক্যামেরায় ধরা পড়া নানা তথ্য পরীক্ষা করে এই মিসাইলের উৎক্ষেপণ সফল বলে ঘোষণা করা হয়। মিসাইলটির সফল পরীক্ষার পরে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং ডিআরডিও-র গোটা টিমকে অভিনন্দন জানান। ডিআরডিও-র চেয়ারম্যান ডঃ জি সতীশ রেড্ডি জানান এটা টিম ওয়ার্ক। গোটা দলের সাফল্যের জন্য এই মিশন সফল হয়েছে।
 

VL-SRSAM
  • 6/7

মনে  করা হচ্ছে ২০২২  সালে কম দূরত্বের সারফেস থেকে এয়ার মিসাইল (ভিএল-এসআরএসএএম) ভারতীয় নৌবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হবে। এর অপারেশনাল পরিসীমা ৪০ থেকে ৫০  কিলোমিটার।  ডিআরডিও তার গতি প্রকাশ করেনি তবে এটি বিশ্বাস করা হয় যে এটি ৪.৫ ম্যাক অর্থাৎ৫৫৫৬.৬  কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টার গতিবেগে শত্রুকে আক্রমণ করবে।

VL-SRSAM
  • 7/7

স্বল্প পরিসরের ভূমি  থেকে বায়ু ক্ষেপণাস্ত্র (ভিএল-এসআরএসএএম) এ রয়েছে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা (ডাব্লুসিএস), যা এতে লাগানো অস্ত্রটিকে নিয়ন্ত্রণ করে। এটি  একক লক্ষ্যকে  শেষ করতে পারে, যদি একই সাথে একাধিক লক্ষ্যমাত্রা থাকে তবে এটি একটি খণ্ডিত ওয়ারহেড দিয়ে লক্ষ্যবস্তুকে নিশানা  পারে।