scorecardresearch
 
দেশ

Indian Airforce Vs Pakistan Airforce: ভারতীয় বায়ুসেনা VS পাকিস্তান বায়ুসেনা, কে কত শক্তিশালী? রইল

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 1/12

ভারতের বায়ুসেনা না কী পাকিস্তানের বায়ুসেনা কারা বেশি শক্তিশালী? অনেকেই হয়তো বলবেন ভারতের বায়ুসেনা বেশি শক্তিশালী। কিন্তু চিনের সহায়তায় পাকিস্তানের বায়ুসেনা লাগাতার শক্তি বাড়াচ্ছে। তাহলে কী তারা বেশি শক্তিশালী হয়ে গিয়েছে? আসুন দেখে নিই...

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 2/12

ভারতীয় বায়ুসেনা Indian Airforce ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। যেখানে পাকিস্তানের বায়ুসেনা আরও আগে প্রতিষ্ঠা হয়েছে। তাদের বায়ুসেনা ১৯৪৭ সালের ১৪ অগাস্ট প্রতিষ্ঠিত হয়। পৃথিবীর মধ্যে ৮ম শক্তিধর Ranked পাকিস্তানের বায়ুসেনা। আর ভারতীয় বায়ুসেনা কত নম্বর জানেন? চতুর্থ বৃহত্তর এবং শক্তিধর। 

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 3/12

ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে ১৭০,৫৭৬ সক্রিয় বায়ুসেনা রয়েছে। ১.৪০ লাখ রিজার্ভ ফোর্স রয়েছে। ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে ১৯২৬ টির বেশি এয়ারক্রাফট রয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তানে ৭০ হাজার সক্রিয় সৈনিক রয়েছে। ৮ হাজার রিজার্ভ ফোর্স রয়েছে। বায়ুসেনার কাছে ৯৭০টির বেশি এয়ারক্র্যাফট রয়েছে।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 4/12

এদিকে যুদ্ধবিমান অর্থাৎ ফাইটার জেটের কথা বলতে গেলে পাকিস্তান ভারতের ধারেকাছে আসতে পারেনি এখনও। ভারতের কাছে রাশিয়া থেকে পাওযা ২৮৩ টি সুখোই-৩০ এমকেআই আছে। এটি অত্যাধুনিক ফাইটার জেট। এটি যে কোনও ধরণের আবহাওয়ার সমান লড়াই করতে পারে।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 5/12

মাল্টি রোল ফাইটার্স এর কথা বলতে গেলে ভারতের কাছে ৩৬ টি অ্যাসল্ট রাফায়েল মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফট, ৬৯ টি মিগ ২৯, ৫৯টি মিরাজ ১২৩ অর্ডার দেওয়া হয়েছে। আপাতত বায়ুসেনার কাছে পাঁচটি তেজস রয়েছে। ১৩৯ টি জাগুয়ার এবং ১২৫টি মিগ-২১ বিমান রয়েছে।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 6/12

পাকিস্তানের কাছে আমেরিকার তৈরি ৭৫ টি এফ-সিক্সটিন রয়েছে, চিনের দেওয়া ১৩৪টি  জেএফ ১৭ রয়েছ। ৫০ টি নতুন অত্যাধুনিক jএফ১৭ অর্ডার দেওয়া হয়েছে। এছাড়া চেংদু ১০ এর অর্ডার চিনের কাছে দেওয়া হয়েছে। এর ডেলিভারি এ বছর পেয়ে যাওয়ার কথা। ৮০টি মিরাজ ফাইটার জেট এবং ৯০ টি মিরাজ ফাইটার জেট এবং ১৪০ টি এফ৭ চেংদু ফাইটার সার্ভিস রয়েছে। কিন্তু এফ-সিক্সটিন এবং জেএফ ১৭ ছাড়া আর কোনও বিমান মাল্টিরোল নয়।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 7/12

যখন কথা হবে বোম্বিং স্ট্রাইক এয়ারক্রাফট অর্থাৎ বোমারু বিমানের, তখন সেই বিষয়ে ভারত এবং পাকিস্তান দুজনের কাছেই একাধিক বোমাবর্ষণ অর্থাৎ বোম্বার এয়ারক্রাফট রয়েছে। দুজনেই লম্বা দূর পর্যন্ত মিসাইলের উপযোগ করতে পারে। এরকম বিমান রেখেছে ফাইটার জেট থেকে মাটিতে অথবা জল থেকে মিসাইল তাক করে দুশমনকে সমস্যায় ফেলতে পারে এই বিমানগুলি।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 8/12

ফিক্স উইং এয়ারক্রাফটসের বিষয়ে পাকিস্তান থেকে ভারত বহু আগে রয়েছে। ভারতের কাছে মোট ৮৯৭ টি কম্ব্যাট এয়ারক্রাফট রয়েছে। যেখানে পাকিস্তানের কাছে ৭৫৫ টি লড়াকু এয়ারক্রাফট রয়েছে। যদি কথা বলি যে এয়ারক্রাফট এর উপর মজুত থাকার চতুর্থ জেনারেশন ফাইটার জেটস ভারতের কাছে ৪৫ ফাইটার জেটস রয়েছে। যেখানে পাকিস্তানের কাছে একটি ওই ধরনের ফাইটার জেটস নেই যাকে ফোর্থ জেনারেশন বেস্ড মাল্টিরোল বলা হয়।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 9/12

নজরদারি এবং আর্লি ওয়ার্নিং এয়ারক্রাফটের কথা বলতে গেলে পাকিস্তানের কাছে ৮ টি এমন বিমান রয়েছে, যেখানে ভারতের কাছে রয়েছে ৬ টি কিন্তু ডিআরডিও স্বদেশী সিস্টেমে বানাচ্ছে আরও  ৬টি। যেমন নজরদারি বিমান বানানো হচ্ছে, ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্স এর কাছে ৬ টি এমন রিফিউলিং প্লেন রয়েছে, যেখানে পাকিস্তানের কাছে চারটি রয়েছে।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 10/12

ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে বাইশটি আপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার, ৬৮ টি এইচএল লাইভ কম্প্যাক্ট হেলিকপ্টার, ১৫ টি চিনুক হেলিকপ্টার, ১৫০ টি এম আই ৭ হেলিকপ্টার রয়েছে। পাকিস্তানের কাছে আপাতত কোনও অ্যাটাক অথবা কমবাট হেলিকপ্টার নেই। তাদের কাছে খোঁজাখুঁজি এবং আত্মরক্ষার জন্য হেলিকপ্টার রয়েছে। এছাড়া একটি স্বাভাবিক হেলিকপ্টার রয়েছে, যেটি যুদ্ধতে কাজে আসে।

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 11/12

ড্রোন টেকনোলজির কথা বলতে গেলে পাকিস্তানি বায়ুসেনার কাছে ফাইটার্স রয়েছে। যদিও এই সংখ্যা কত বিষয়টি পরিষ্কার নয়। কিন্তু ভারতীয় বায়ুসেনাতে জনসংখ্যা কম নয়। ভারতের কাছে চার প্রকার আলাদা আলাদা ব্রাঞ্চ রয়েছে। যেটি যে কোনও সময় হামলা তদন্ত এবং নজরদারির কাজে লাগানো যায়।

 

ভারত বনাম পাকিস্তান
  • 12/12

শেষ বিষয় হলো যে, পাকিস্তানি বাহিনী, সেনা, সৈনিকের সংখ্যা ফাইটার জেটের সংখ্যায় হেলিকপ্টার সংখ্যায় সমস্ত বিষয়ে ভারতীয় বায়ুসেনা সামনে তারা নগণ্য। হাজার চেষ্টা করলেও এবং তাদের সাহস নেই ভারতীয় বায়ুসেনার দিকে চোখ উঠিয়ে তাকাবে। পাকিস্তানের এয়ারস্ট্রাইক এবং অভিনন্দন বর্তমান ঘটনা সবার মাথায় রয়েছে।