scorecardresearch
 
 

ভারতে করোনায় মৃত ৪৯ লাখ, দেশভাগের পর সবথেকে বড় ধাক্কা : রিপোর্ট

জুন ২০২১ পর্যন্ত করোনার জেরে ভারতে প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লাখ জন। এই তথ্য দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তবে এই তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে Centre for Global Development-এর একটি রিপোর্টে। আমেরিকার ওই গবেষণা সংস্থার অনুমান, করোনার জেরে ভারতে ৪৯ লাখ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন।

করোনায় মৃত্যু করোনায় মৃত্যু
হাইলাইটস
  • জুন ২০২১ পর্যন্ত করোনার জেরে ভারতে প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লাখ জন
  • এই তথ্য দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক
  • তবে এই তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে Centre for Global Development-এর একটি রিপোর্টে

জুন ২০২১ পর্যন্ত করোনার জেরে ভারতে প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লাখ জন। এই তথ্য দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তবে এই তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে Centre for Global Development-এর একটি রিপোর্টে। আমেরিকার ওই গবেষণা সংস্থার অনুমান, করোনার জেরে ভারতে ৪৯ লাখ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন। আর এই রিপোর্ট সামনে আসার পর শোরগোল পড়ে গিয়েছে দেশজুড়ে। 

ওই গবেষণা সংস্থার প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, করোনার দ্বিতীয় ওয়েবের পর ভারত সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। দেশভাগের পর সবথেকে বড় ধাক্কা এটিই। সরকারি তথ্য ও গ্রাউন্ড রিপোর্ট দেখে ৪৯ লাখ জনের মৃত্যুর সিদ্ধান্তে এসেছেন তারা। এই কথা জানিয়ে সরকারের মৃতের সংখ্যা চেপে যাওয়ার দিকে ইঙ্গিত করেছে Centre for Global Development। 

গবেষণায় জানা গিয়েছে ভারতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৪ লাখ থেকে ৪৯ লাখ মানুষের। জানানো হয়েছে, প্রথম ঢেউ ক্ষতিকারক ছিল। সেই বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে মৃত্যু বেশি হয়ছে দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে। প্রায় ২০ লাখ মানুষ প্রাণ খুইয়েছেন। অর্থাৎ হাজারে নয়, মৃতের সংখ্যা যে লাখে হয়েছে, তা ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে। 

ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে সামনে এল চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট
ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে সামনে এল চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট

গবেষণায় ৩ অনুমান 

প্রথম অনুমান: Consumer Pyramid Household Survey (CPHS)-মোতাবেক ৪৯ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। 

দ্বিতীয় অনুমান: মৃতের সংখ্যার রেজিস্ট্রেশনের হিসেবে মারা গিয়েছেন প্রায় ৩৪ লাখ জন। 

তৃতীয় অনুমান: SERO-PREVALENCE SURVEY অনুযায়ী, প্রায় ৪০ল লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম ঢেউয়ে ১৫ লাখ ও দ্বিতীয় ঢেউয়ে ২৪ লাখ জন মারা গিয়েছেন। 

কারা তৈরি করল এই রিপোর্ট? 

এই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এনেছে Centre for Global Development। এই রিপোর্ট দেখার পর WHO-র মুখ্য বিজ্ঞানী স্বামীনাথনের প্রতিক্রিয়া, 'প্রতিটি দেশের প্রয়োজন সঠিক তথ্য সামনে আনা। তবেই করোনার সঙ্গে মোকাবিলা সম্ভব।'