scorecardresearch
 

নীতীশের মন্ত্রীর সঙ্গে কানহাইয়ার বৈঠক, দল বদলের জল্পনা, কী বলল CPI ?

সিপিআই (CPI) জানিয়েছে, কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) জনতা দল ইউনাইটেডের নেতা এবং বিহারের মন্ত্রী অশোক চৌধুরির সঙ্গে দেখা করেছিলেন। কানহাইয়া কুমার তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন ঠিকই।

সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার। ছবি সৌজন্য: ফেসবুক সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার। ছবি সৌজন্য: ফেসবুক
হাইলাইটস
  • কানহাইয়া কুমারের পাশে দাঁড়াল তাঁর দল সিপিআই
  • এক বিবৃতিতে দল জানিয়েছে,বিহারের মন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি তৈরি হয়েছে
  • তিনি দলেরই এক বিধায়কের সঙ্গে গিয়েছিলেন ওই এলাকার উন্নয়ন নিয়ে কথা বলতে

কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar)র পাশে দাঁড়াল তার দল সিপিআই (CPI)। এক বিবৃতিতে দল জানিয়েছে,বিহারের মন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি তৈরি হয়েছে। তিনি দলেরই এক বিধায়কের সঙ্গে গিয়েছিলেন ওই এলাকার উন্নয়ন নিয়ে কথা বলতে।

সিপিআই (CPI) জানিয়েছে, কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) জনতা দল ইউনাইটেডের নেতা এবং বিহারের মন্ত্রী অশোক চৌধুরির সঙ্গে দেখা করেছিলেন। কানহাইয়া কুমার তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন ঠিকই।

তবে তার সঙ্গে ছিলেন সিপিআই (CPI) বিধায়ক সূর্যকান্ত পাসওয়ান-ও। তাঁরা মানুষের কিছু সমস্যা এবং ওই বিধানসভায় এলাকার উন্নয়নের বিষয়ে কথা বলতে গিয়েছিলেন। তাঁকে নিয়ে বিভ্রান্তিকর খবর প্রচার করা হচ্ছে।


এদিকে, কমিউনিস্ট পার্টি অফ ইন্ডিয়া (সিপিআই বা CPI)-র নেতা কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) দিন কয়েক আগে বিহারের মন্ত্রী এবং সংযুক্ত জনতা দল (জেডিইউ)-এর নেতা অশোক চৌধুরির পাটনার বাড়িতে দেখা করতে গিয়েছিলেন। তারপর থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছে এই সাক্ষাৎপর্বকে ঘিরে। তাহলে কি নতুন কোনও রাজনৈতিক সমীকরণের ইঙ্গিত, প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছিল। তবে তাঁর দল তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে সব জল্পনাকল্পনায় জল ঢালল।

২০২০ সালের ১ ডিসেম্বর হায়দরাবাদ সিপিআই (CPI) অফিস সচিব ইন্দু ভূষণ পাটনা সফরে এলে কানহাইয়া তাঁর সঙ্গে ‘দুর্ব্যবহার’ করেন বলে অভিযোগ। তার জেরে হায়দরাবাদ সিপিআই কানহাইয়ার বিরুদ্ধে ‘কড়া পদক্ষেপ’ করার জন্য প্রস্তাবও পাশ হয়। দলের সঙ্গে তিক্ততা শুরু হয় তখনই।

এরপরই নীতীশ কুমারের দলের মন্ত্রী অশোক চৌধুরির সঙ্গে এই বৈঠক কানহাইয়ার পরবর্তী রাজনৈতিক পদক্ষেপ নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে তুলছিল। 

দলের নেতারদের বক্তব্য অনুযায়ী, বেগুসরাইয়ে দলের ইউনিটের একটি নির্ধারিত সভা বাতিল হয়ে যাওয়ার পরে কানহাইয়া ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। পরে তিনি দলের দফতর সম্পাদক ইন্দু ভূষণের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন এবং তাঁকে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ। কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) বিহারের বেগুসরাই জেলার বাসিন্দা।

সিপিআই (CPI)-এর এক সভা হায়দরাবাদে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। যেখানে পাটনায় একটি দলীয় নেতার ওপর হামলা চালানোর অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব পাস করা হয়েছিল। এই বৈঠকে উপস্থিত ১১০ জন ব্যক্তির মধ্যে ৩ জন বাদে বাকিরা তাঁর বিরুদ্ধে আনা এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছিলেন।