scorecardresearch
 

'POK-র দখল নিতে তৈরি সেনা, শুধু নির্দেশের অপেক্ষা', কড়া বিবৃতি সেনা আধিকারিকের

লেফটেন্যান্ট জেনারেল উপেন্দ্র দ্বিবেদী বলেন, তাঁরা যে কোনও পদক্ষেপের জন্যই তৈরি। সরকারে যেমন নির্দেশ আসবে, সেই মতো কাজ করা হবে। একইসঙ্গে পাকিস্তানের উদ্দেশ্যে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, যদি সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করা হয় তবে তার কড়া জবাব দেওয়া হবে। সীমান্তে শান্তি রক্ষা করা দুই দেশেরই দায়িত্ব। তবে যদি পাকিস্তান যদি কোনও পদক্ষেপ করে, তবে তার ফল ভোগ করা জন্য তৈরি থাকতে হবে। 

উপেন্দ্র দ্বিবেদী উপেন্দ্র দ্বিবেদী
হাইলাইটস
  • পিওকে নিয়ে বড় বিবৃতি
  • কিছুদিন আগে বলেছিলেন রাজনাথ সিং
  • এবার উপেন্দ্র দ্বিবেদী

পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ফের দখল নেওয়া হবে বলে দিন কয়েক আগেই বিবৃতি দিয়েছিলেন রাজনাথ সিং। এবার সেই মন্তব্যের ওরে বিবৃতি দিলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল উপেন্দ্র দ্বিবেদী। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, সরকার যা নির্দেশ দেবে তা পালন করা হবে। 

লেফটেন্যান্ট জেনারেল উপেন্দ্র দ্বিবেদী বলেন, তাঁরা যে কোনও পদক্ষেপের জন্যই তৈরি। সরকারে যেমন নির্দেশ আসবে, সেই মতো কাজ করা হবে। একইসঙ্গে পাকিস্তানের উদ্দেশ্যে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, যদি সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করা হয় তবে তার কড়া জবাব দেওয়া হবে। সীমান্তে শান্তি রক্ষা করা দুই দেশেরই দায়িত্ব। তবে যদি পাকিস্তান যদি কোনও পদক্ষেপ করে, তবে তার ফল ভোগ করা জন্য তৈরি থাকতে হবে। 

কী বলেছিলেন রাজনাথ সিং?

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই জম্মুকাশ্মীর সফরে গিয়েছিলেন রাজনাথ সিং। তিনি বলেন, পাকিস্তান পিওকে-তে যা করেছে তার মূল্য চোকাতে হবে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে বসবাসকারীদের ওপরে 'অত্যাচার' করছে, যার পরিনাম ভুগতে হবে। তিনি আরও বলেন, কাশ্মীরের উন্নয়ন শুরু হয়েছে। ততক্ষণ পর্যন্ত থামা হবে না, যতক্ষণ না গিলগিট-বাল্টিস্থানে পৌঁছানো হচ্ছে। 

টার্গেট কিলিং নিয়ে যা বললেন...

এই প্রথম নয়, এর আগেও সেনার তরফে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগে চিনার কপসের তরফেও এই ধরনের একটি বয়ান দেওয়া হয়। সেখানেও বলা হয়, সরকারের নির্দেশের অপেক্ষা, দ্রুত পদক্ষেপ করা হবে। এছাড়া টার্গেট কিলিং নিয়েও বিবৃতি দিয়েছেন উপেন্দ্র দ্বিদেবী। তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদীরা এখন নিরস্ত্র মানুষের ওপরে গুলি চালাচ্ছে। কিন্তু তাদের এই পরিকল্পনা কখনওই বাস্তবায়িত হবে না। লেফটেন্যান্ট জেনারেল আরও বলেন যে, উপত্যকার যুবকদের মৌলবাদী হতে দেওয়া যাবে না। তাদের শিক্ষিত করা প্রয়োজন। তাদের সন্ত্রাসের পথে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে হবে। 

আরও পড়ুন - SHOCKING! মিলনে লিপ্ত যুগলকে ফেভিক্যুইক, গোপনাঙ্গে কুপিয়ে খুন তান্ত্রিকের