scorecardresearch
 

বড় ঘোষণা Pfizer-এর, বাড়ির ফ্রিজেই রাখা যাবে এই কোভিড ভ্যাকসিন

প্রথম থেকেই ফাইজার ভ্যাকসিনের সমস্যা ছিল স্টোরেজের। আর ঠিক এই কারণেই ভারতে এই ভ্যাকসিন প্রস্তুত করা যায়নি, আমদানি করাও যায়নি। এমনকী ড্রাগস কন্ট্রোলারের থেকে অনুমোদন চেয়েও পিছিয়ে এসেছিল আমেরিকান এই সংস্থা। 

তবে কি এর আগে যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছিল তা সর্বৈব মিথ্যা? তবে কি এর আগে যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছিল তা সর্বৈব মিথ্যা?
হাইলাইটস
  • দেশের বেশ কিছু জেলায় আবার দাপট দেখাচ্ছে এই ভাইরাস
  • এই সময়ই করোনা ভ্যাকসিন এবার আর হিমশীতল ঘরে মজুত করে রাখার প্রয়োজন পড়বে না
  • বর্তমানে -২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে -১৫ তাপমাত্রাতেই সংরক্ষণ করা যাবে এই ভ্যাকসিন

বিশ্বে অতিমারী সৃষ্টিকারী করোনা ভাইরাসের প্রাবল্য কমলেও নির্মূল হয়নি। দেশের বেশ কিছু জেলায় আবার দাপট দেখাচ্ছে এই ভাইরাস। আংশিক লকডাউনও শুরু হয়েছে। সেই প্রেক্ষাপটে ফাইজার-বায়োএনটেক সংস্থা জানিয়েছে, তাঁদের তৈরি করা করোনা ভ্যাকসিন এবার আর হিমশীতল ঘরে মজুত করে রাখার প্রয়োজন পড়বে না।

প্রথম থেকেই ফাইজার ভ্যাকসিনের সমস্যা ছিল স্টোরেজের। আর ঠিক এই কারণেই ভারতে এই ভ্যাকসিন প্রস্তুত করা যায়নি, আমদানি করাও যায়নি। এমনকী ড্রাগস কন্ট্রোলারের থেকে অনুমোদন চেয়েও পিছিয়ে এসেছিল আমেরিকান এই সংস্থা। 

ফাইজার- বায়োএনটেক ভ্যাকসিনের মজুতের জন্য আগে -৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর তাপমাত্রার প্রয়োজন ছিল। একটি অতি-ঠাণ্ডা ফ্রিজারে ভ্যাকসিন সংরক্ষণ করার বিধিও জারি ছিল। এছাড়াও বিশেষভাবে ডিজাইন করা কন্টেনারে করেই রফতানি করার কথা বলা হয়েছিল। 

যে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে সম্প্রতি, সেখানে বলা হয়েছে যে এই সংস্থারা মার্কিন স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রকের কাছে নতুন তথ্য জমা দিয়েছে যেখানে তাদের ফার্মাসিউটিক্যাল ফ্রিজার এবং রেফ্রিজারেটরে পাওয়া তাপমাত্রায় কোভিড -১৯ ভ্যাকসিনের জন্য যথেষ্ট। বর্তমানে -২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে -১৫ তাপমাত্রাতেই সংরক্ষণ করা যাবে এই ভ্যাকসিন। 

টিকাকরণ কেন্দ্রগুলিতে কীভাবে তাদের তৈরি টিকা সরবরাহ করা হবে ও সংরক্ষণ করা হবে সেই সংক্রান্ত নতুন নিয়ম ঘোষণা করা হবে বলেও জানান হয়েছে ফাইজারের পক্ষ থেকে। ফাইজার মডার্নার ভ্যাকসিনগুলি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত হয়েছে।