scorecardresearch
 
অর্থনীতি

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 1/7

এফএমসিজি সংস্থা আদানি উইলমারের IPO এই মাসের ২৭ তারিখে আসতে পারে৷ এটি ফরচুন ব্র্যান্ডের ভোজ্য তেল তৈরি করে। বিষয়টি সম্পর্কে জ্ঞান থাকা একাধিক সূত্র মানিকন্ট্রোলকে জানিয়েছে যে, সংস্থার আইপিও ২৭ জানুয়ারি খোলার সম্ভাবনা রয়েছে।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 2/7

আদানি উইলমার হল গৌতম আদানির আদানি গ্রুপ এবং সিঙ্গাপুর ভিত্তিক উইলমার গ্রুপের একটি যৌথ উদ্যোগ। রুচি সোয়া, এইচইউএল, ব্রিটানিয়া, টাটা কনজিউমার প্রোডাক্টস, ডাবর ইন্ডিয়া এবং নেসলে ইন্ডিয়া এই সেক্টরের কিছু তালিকাভুক্ত সংস্থা যারা আদানি উইলমারের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 3/7

সংস্থাটি এমন সময়ে আইপিও নিয়ে আসছে যখন ভোক্তাদের মধ্যে ব্র্যান্ডেড ও প্যাকেটজাত খাবারের প্রবণতা দ্রুত বাড়ছে। করোনা সংক্রমণের কারণে এ ধরনের পণ্যের চাহিদাও বেড়েছে।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 4/7

আদানি উইলমারের ইস্যুটির সঙ্গে পরিচিত একটি সূত্র জানিয়েছে, "কোম্পানীর ইস্যুটি ২৭ জানুয়ারি খুলবে এবং ৩১ জানুয়ারি বন্ধ হবে।" ২৯ জানুয়ারি শনিবার এবং ৩০ জানুয়ারি রবিবার। এবারের বাজেট পেশ হতে যাচ্ছে ১ ফেব্রুয়ারি।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 5/7

বিষয়টি সম্পর্কে জ্ঞান থাকা অন্য দুটি সূত্র আরও জানিয়েছে যে অ্যাঙ্কর বিনিয়োগকারীদের জন্য সংস্থার ইস্যু ২৫ জানুয়ারি খুলবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এসব তথ্য জানিয়েছে। যদিও, এই বিষয়ে আদানি উইলমারের কাছ থেকে কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি মেলেনি।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 6/7

আদানি উইলমার প্রাথমিকভাবে ইস্যুটির মাধ্যমে ৪৫০০ কোটি টাকা সংগ্রহের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পরে সংস্থা তা কমিয়ে ৩৬০০ কোটি টাকা করে। এই আইপিও সম্পূর্ণ নতুন ইস্যু।

Adani Wilmar IPO: ২৭ জানুয়ারি খুলছে Adani Wilmar IPO, বিনিয়োগ করবেন?
  • 7/7

এটিতে অফার ফর সেল (OFS) নেই। সংস্থা শুধুমাত্র সাধারণ কর্পোরেট উদ্দেশ্যে শেয়ার বিক্রি করবে। সংস্থাটি ২০২৭ সালের মধ্যে সবচেয়ে বড় খাদ্য সংস্থা হওয়ার লক্ষ্য রাখে। এটি আদানি গোষ্ঠীর তালিকাভুক্ত সপ্তম সংস্থা।