scorecardresearch
 

SET Exam Date: রাজ্যে অধ্যাপক নিয়োগ শুরু কবে? 'সেট' পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণা করল কমিশন

SET Exam Date: আগামী ১৭ ডিসেম্বর, রবিবার 'সেট' পরীক্ষার দিন ঘোষণা করল কলেজ সার্ভিস কমিশন। অধ্যাপক নিয়োগের জন্য এই পরীক্ষা নেয় রাজ্য। চলতি সপ্তাহ থেকেই সেট (স্টেট এলিজিবিলিটি টেস্ট) পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড দেওয়া শুরু হবে। কলেজ সার্ভিস কমিশনের ওয়েবসাইটে লগ-ইন করে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করা যাবে।

Advertisement
UGC NET Result 2023 to be out next month (Image source: PTI) UGC NET Result 2023 to be out next month (Image source: PTI)
হাইলাইটস
  • আগামী ১৭ ডিসেম্বর, রবিবার 'সেট' পরীক্ষার দিন ঘোষণা করল কলেজ সার্ভিস কমিশন।
  • চলতি সপ্তাহ থেকেই সেট (স্টেট এলিজিবিলিটি টেস্ট) পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড দেওয়া শুরু হবে।
  • কলেজ সার্ভিস কমিশনের ওয়েবসাইটে লগ-ইন করে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করা যাবে। রাজ্যের ২৩ জেলার ১১০টি পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

SET Exam Date: আগামী ১৭ ডিসেম্বর, রবিবার 'সেট' পরীক্ষার দিন ঘোষণা করল কলেজ সার্ভিস কমিশন। অধ্যাপক নিয়োগের জন্য এই পরীক্ষা নেয় রাজ্য। চলতি সপ্তাহ থেকেই সেট (স্টেট এলিজিবিলিটি টেস্ট) পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড দেওয়া শুরু হবে। কলেজ সার্ভিস কমিশনের ওয়েবসাইটে লগ-ইন করে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করা যাবে। রাজ্যের ২৩ জেলার ১১০টি পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষার্থীরা নিজ নিজ জেলাতেই পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবেন। এবারের সেটে প্রায় ৮০ হাজার পরীক্ষার্থী বসবেন।

SET পরীক্ষায় দুইটি পত্র 
প্রথম পত্র: 
১৭ ডিসেম্বর, ২০২৩- সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা 

দ্বিতীয় পত্র: ১৭ ডিসেম্বর, ২০২৩- বেলা ১২টা থেকে দুপুর ২টো 

আরও পড়ুন

নজরদারিতে কড়াকড়ি
রাজ্যে একাধিক পরীক্ষা, নিয়োগ প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়ে বারবার বিতর্ক হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কোনওরকম ফাঁক রাখতে চাইছে না কলেজ সার্ভিস কমিশন। বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষ এবং অধ্যাপকদের অবজার্ভার হিসাবে নিয়োগ করবে কমিশন। প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রে ২ জন করে অবজার্ভার থাকবেন।

শুধু তাই নয়, মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে পরীক্ষার প্রশ্ন এবং ওএমআর শিট ট্রাক করা হবে বলে জানা গিয়েছে। জিপিএস প্রযুক্তির মাধ্যমে নজর রাখা হবে। কীভাবে নজর রাখা হবে? পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সঠিক স্থানে সরাসরি পৌঁছোচ্ছে কিনা, তা জিপিএস-এর মাধ্যমে ট্র্যাক করা হবে। ঠিক একইভাবে পরীক্ষা শেষে উত্তরপত্রও সরাসরি সঠিক স্থানে পৌঁছাচ্ছে কিনা, সেদিকে জিপিএস-এর দ্বারা নজর রাখবেন কমিশনের কর্তারা।

Advertisement