scorecardresearch
 

Cyber Security : উচ্চশিক্ষায় আরও পোক্ত সাইবার নিরাপত্তায় জোর UGC-এর

ইউজিসি (UGC) জানিয়েছে, সাইবার অপরাধ ঠেকাতে উচ্চশিক্ষার সাইবার নিরাপত্তা (Cyber Security) আরও মজবুত করতে হবে। উচ্চশিক্ষায় এমন এক ব্যবস্থা তৈরি করতে হবে, যা জোরদার সাইবার নিরাপত্তা দিতে পারে।

উচ্চশিক্ষায় সাইবার নিরাপত্তায় আরও জোর ইউজিসি-র (প্রতীকী ছবি) উচ্চশিক্ষায় সাইবার নিরাপত্তায় আরও জোর ইউজিসি-র (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • উচ্চশিক্ষায় ফের সাইবার নিরাপত্তায় জোর দিল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি আয়োগ (ইউজিসি)
  • তারা বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের কাছে এ ব্য়াপারে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে
  • সেখানে বলা হয়েছে, সাইবার নিরাপত্তা আরও জোরদার করতে হবে, যাতে সাইবার অপরাধ মোকাবিলা করতে হবে।

উচ্চশিক্ষায় ফের সাইবার নিরাপত্তা (Cyber Security)-য় জোর দিল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি আয়োগ (ইউজিসি বা UGC)। তারা বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের কাছে এ ব্য়াপারে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, সাইবার নিরাপত্তা আরও জোরদার করতে হবে, যাতে সাইবার অপরাধ মোকাবিলা করতে হবে।

অনলাইনে লেখাপড়া
করোনা-আবহে লেখাপড়ার বড়সড় অংশ চলছে অনলাইন ব্য়বস্থায়। তার ভাল বা খারাপ দিক যা-ই থাকুক না কেন, সেই ব্যবস্থার হাতে ধরেই এগোচ্ছে শিক্ষা ব্যবস্থা।

কী বলেছে ইউজিসি
এক নির্দেশিকায় ইউজিসি (UGC) জানিয়েছে, সাইবার অপরাধ ঠেকাতে উচ্চশিক্ষার সাইবার নিরাপত্তা (Cyber Security) আরও মজবুত করতে হবে। উচ্চশিক্ষায় এমন এক ব্যবস্থা তৈরি করতে হবে, যা জোরদার সাইবার নিরাপত্তা দিতে পারে।

প্রচারে জোর
পড়ুয়া থেকে শুরু করে শিক্ষক- উচ্চশিক্ষার সঙ্গে যুক্ত সব ক্ষেত্রের মানুষকে এ ব্য়াপারে সচেতন করতে বলেছে ইউজিসি (UGC)। কী করা উচিত, তা জানার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের ইন্ডিয়ান সাইবার ক্রাইম কোঅর্ডিনেশন সেন্টার (আই৪সি) বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছে।

বছরভর অনুষ্ঠান
কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ইউজিসি (UGC) আবেদন করেছে, যাতে বছরভর বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সাইবার সচেতন করা যায়। এর মধ্যে থাকতে পারে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, হ্য়াকাথন, কর্মশালা, সভা। এই সব করার সময় যাতে শারীরিক দূরত্ববিধি মানা হয়, সে দিতে নজর দিতে বলেছে ইউজিসি।

অনলাইনে লেখাপড়া নিয়ে সমালোচনা
গত দেড় বছরে বদলে গিয়েছে লেখাপড়ার ধরন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জন্য বন্ধ স্কুল-কলেজ থেকে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যা ক্লাস হচ্ছে সব অনলাইনে। অনেক পরীক্ষা বাতিল হয়েছে। কমিয়ে দেওয়া হয়েছে সিলেবাস।

নেই স্মার্টফোন-ট্যাব
এর মাঝে অভিযোগ উঠেছে, অনলাইনে লেখাপড়া সবার জন্য সম্ভব নয়। কারণ সমাজের প্রান্তিক পরিবারের মানুষের বাড়ে ট্যাব, কম্পিউটার বা স্মার্টফোন নেই। আর শুধু সেগুলো থাকলেই হবে না। থাকতে হবে ইন্টারনেট। অনেকে তা তাঁর সন্তানের জন্য জোগাড় করতে পারেননি। এখনও যে পারছেন, তা নয়। আর তাই এসএফআই-সব বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের অভিযোগ, ডিজিটাল উপায়ে বিভাজনের চেষ্টা করা হচ্ছে।