scorecardresearch
 

Sukanta-Suvendu: সুকান্ত-শুভেন্দুর দূরত্ব? বিজেপির রাজ্য সভাপতির বক্তব্যে জোর জল্পনা

সুকান্ত ও শুভেন্দুর মধ্যে কি সংঘাতের আবহ তৈরি হচ্ছে? দিন কয়েকের ঘটনাক্রম সেদিকেই ইঙ্গিত করছে। কী বললেন সুকান্ত মজুমদার?

শুভেন্দু অধিকারী ও সুকান্ত মজুমদার- ফাইল ছবি। শুভেন্দু অধিকারী ও সুকান্ত মজুমদার- ফাইল ছবি।
হাইলাইটস
  • সুকান্ত ও শুভেন্দু মধ্যে তৈরি হয়েছে দূরত্ব?
  • জোর জল্পনা রাজ্য রাজনীতিতে।

সুকান্ত মজুমদার ও শুভেন্দু অধিকারী। বঙ্গ বিজেপির ত্রয়ীর অন্যতম দু'জন। প্রথম জন রাজ্য সভাপতি। অন্যজন বিরোধী দলনেতা। ইদানীং দু'জনের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। প্রশ্ন উঠছে, দুই নেতার মধ্যে কি সব ঠিকঠাক আছে? সেই জল্পনা আরও উস্কে দিল রবিবার সুকান্তর একটি মন্তব্য। কী বললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি?              

সুকান্ত ও শুভেন্দুর মধ্যে কি সংঘাতের আবহ তৈরি হচ্ছে? দিন কয়েকের ঘটনাক্রম সেদিকেই ইঙ্গিত করছে। রবিবারই যেমন  সুকান্তকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলেন, শুভেন্দু-অভিষেকের টক্করে শাসক-বিরোধী লড়াই নিয়ে কি জমে উঠবে ডিসেম্বর? জবাবে সুকান্ত বললেন,'এটা ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের লড়াই। বিজেপিতে ব্যক্তির চেয়ে আদর্শ বড়। আদর্শ সামনে রেখে কাজ করে দল।'

সুকান্তর মন্তব্যেই স্পষ্ট, তৃণমূল বনাম শুভেন্দু এই ন্যারেটিভ তাঁর না-পসন্দ। বরং ব্যক্তির চেয়ে ঊর্ধ্বে দল সেটাই মনে করিয়ে দিলেন। এমনকি শুভেন্দুর নাম পর্যন্ত নিলেন না। তাঁর কথায়,'তৃণমূল কংগ্রেসকে উৎখাত না করা পর্যন্ত বিজেপির প্রতিটি কর্মী ও সমর্থক যাঁরা আছেন তাঁরা দলের পতাকা নিয়ে লড়াই করবে।'

রাজ্য রাজনীতিতে ইদানীং সুকান্ত মজুমদার ও শুভেন্দু অধিকারীর সম্পর্ক নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। দুজনেই পরস্পরকে এড়িয়ে যাচ্ছেন কিনা উঠছে সেই প্রশ্নও। গত মাসে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুকে নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী অখিল গিরির মন্তব্যের প্রতিবাদে মিছিল করে বিজেপির মহিলা মোর্চা। ওই মিছিলে ছিলেন সুকান্ত। ওয়াই চ্যানেলের মঞ্চে শুভেন্দুরও থাকার কথা ছিল। তবে মিছিলের মাঝপথেই বেরিয়ে যান সুকান্ত। ওয়াই চ্যানেলে আর যাননি। ওই দিনেই আবার হেস্টিংসে দলীয় বৈঠকে সুকান্ত ছিলেন। শুভেন্দু গরহাজির। এটাই শেষ নয়!

বিধানসভায় বিধায়কদের নিয়ে কর্মসূচি ছিল সুকান্তর। তার আগে বিধায়কদের সঙ্গে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু সুকান্ত ঢোকার আগে বিধানসভা ছেড়ে তলে যান। এরপর মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে রাজ্য চষে বেরিয়েছেন সুকান্ত। ওই মঞ্চে একবারও দেখা যায়নি শুভেন্দুকে। গতকাল, শনিবার ডায়মন্ড হারবারে সভা করেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। সেখানেও নেই রাজ্য সভাপতি। 

আরও পড়ুন- 'ছোট্ট করে দরজাটা খোলা যাক', পাল্টা 'ডিসেম্বর' হুঁশিয়ারি অভিষেকের