scorecardresearch
 

গড়ফায় ফ্ল্যাটে মহিলার দেহ, কাছেই রেললাইনের ধারে সঙ্গীর দেহ

গড়ফা থানা এলাকার শরৎ বসু কলোনি এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ওই মহিলার সঙ্গীর দেহ উদ্ধার হয়েছে ফ্ল্যাট অদূরে রেল লাইন থেকে।

গড়ফা থানা এলাকার শরৎ বসু কলোনি এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। গড়ফা থানা এলাকার শরৎ বসু কলোনি এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।
হাইলাইটস
  • গড়ফা থানা এলাকার শরৎ বসু কলোনি এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।
  • ওই মহিলার সঙ্গীর দেহ উদ্ধার হয়েছে ফ্ল্যাট অদূরে রেল লাইন থেকে।

গড়ফা থানা এলাকার শরৎ বসু কলোনি এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ওই মহিলার সঙ্গীর দেহ উদ্ধার হয়েছে ফ্ল্যাট অদূরে রেল লাইন থেকে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, প্রেমের সম্পর্কের টানাপড়েনেই মহিলাকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছেন তাঁর সঙ্গী।

জানা গিয়েছে, গড়ফা থানা এলাকার ওই ফ্ল্যাট থেকে মঙ্গলবার উদ্ধার হওয়া মৃত মহিলার নাম শান্তি সিং, বয়স ৪৫ বছর। ওই ফ্ল্যাটের মালিক (যিনি মৃতার সঙ্গী) বছর ৬৫-র গোবর্ধন শেঠ। তিনিই শান্তি সিংয়ের বোনকে ফোন করে জানান, তাঁকে তিনি খুন করেছেন। গোবর্ধন শেঠের ফ্ল্যাটে নিত্য আসা যাওয়া ছিল বেলেঘাটার বাসিন্দা শান্তি সিংয়ের।

খবর পেয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রাথমিক অনুসন্ধানের পরেই বালিগঞ্জ-ঢাকুরিয়ার মাঝে রেললাইনের ধারে পড়ে থাকতে দেখা যায় গোবর্ধনের দেহও। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ শান্তি সিংয়ের বোন মুন্নী সিং-এর মোবাইলে ফোন করে তাঁর দিদির দেহ গড়ফার ফ্ল্যাটে রয়েছে বলে জানান পেশায় বাসচালক গোবর্ধন শেঠ। স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই দুজনের মধ্যে মেলামেশা ছিল। গড়ফায় গত প্রায় ৫ থেকে ৭ বছর ধরে গোবর্ধন শেঠের ফ্ল্যাটে নিত্য আসা যাওয়া ছিল বেলেঘাটার বাসিন্দা শান্তি সিংয়ের। 

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান শ্বাসরোধ করেই খুন করা হয়েছে শান্তি সিংকে। মাথায় আঘাত করাও হয়েছে তাঁর। যদিও কী দিয়ে আঘাত বা কীভাবে মৃত্যু তা ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টের পরই নিশ্চিত ভাবে জানা সম্ভব। গোটা বিষয়টিই তদন্ত করে দেখছে গড়ফা থাকান পুলিশ।