scorecardresearch
 
 

Newtown Skeleton : নিউটাউনের গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় কঙ্কাল! পরে যা হল...

বিকালে হিমশিম কাণ্ড! মাছ ধরতে গিয়ে একেবারে চক্ষু চড়কগাছ যুবকদের। গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে আস্ত একটা নরকঙ্কাল। যা দেখে ঘটনাস্থলেই ভিমড়ি খাওয়ার অবস্থা যুবকদের। ঘটনা নিউটাউনে। কয়েকজন যুবক মাছ ধরতে এসেছিলেন।

উদ্ধার কঙ্কালসার দেহ। প্রতীকী ছবি উদ্ধার কঙ্কালসার দেহ। প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • নিউটাউনের গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় কঙ্কাল
  • উদ্ধার করল পুলিশ
  • এখনও পরিচয় জানা যায়নি

বিকালে হিমশিম কাণ্ড! মাছ ধরতে গিয়ে একেবারে চক্ষু চড়কগাছ যুবকদের। গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে আস্ত একটা নরকঙ্কাল। যা দেখে ঘটনাস্থলেই ভিমড়ি খাওয়ার অবস্থা যুবকদের। ঘটনা নিউটাউনে। কয়েকজন যুবক মাছ ধরতে এসেছিলেন। সেখানেই তাঁরা পাশের একটি গাছে কঙ্কালসার একটি দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তা দেখেই আঁতকে ওঠেন অনেকে। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, যেই জায়গায় এই কঙ্কালটি উদ্ধার হয়েছে সেটি পরিত্যক্ত একটি জায়গায়। লোকজনের যাওয়া আসা কম। বিধাননগর সাব ডিবিশন হাসপাতালে দেহটি পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে তবেই মৃত্যু কারণ সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাবে পুলিশ। তবে মৃতের নাম কিংবা পরিচয় এখনও জানা যায়নি। তার খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনা সম্পর্কে প্রত্যক্ষদর্শী এক যুবক জানান, আমরা মাছ ধরতে এসেছিলাম। এখানে আরও ২জন আগে থেকে মাছ ধরছিলেন। তখন ওঁনারাই আমাদের বলেন যে পাশের একটি গাছে ঝুলন্ত দেহ রয়েছে। ওখানে যেতেই বিষয়টি আমাদের নজরে আসে। তারপরে আমরা ভিডিও করি ও ইকো পার্ক পুলিশ স্টেশনে ফোন করে খবর দিই। বিকাল ৪টার সময়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। ওই দেহটিতে পচন ধরে গিয়েছিল। প্রায় কঙ্কালসার অবস্থায় পরিণত হয়েছিল। 

জানা গিয়েছে, দেহটি নিউটাউনের তিনকন্যা মোড়ের কাছে একটি পরিত্যক্ত এলাকা থেকে উদ্ধার হয়েছে। মৃতের পরিচয় কিংবা নাম এখনও জানা যায়নি। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। কীভাবে মৃত্যু হল তাও এখন অস্পষ্ট। সাধারণত ওই এলাকায় লোকজনের যাতায়াত কম। তবে অনুমান করা হচ্ছে, বেশ কয়েকদিন আগেই মৃত্যু হয়েছিল। ওই এলাকায় যাতায়াত কম থাকার ফলে স্বাভাবিক ভাবেই কারোর নজরে আসেনি বিষয়টা। এদিন কয়েকজন যুবক ওই এলাকায় যায়। তখনই তারা পুলিশে খবর দেয়। তারপরেই বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে।