scorecardresearch
 

Kabir Suman : 'একাধিক মহিলার সঙ্গে থেকেছি বলে আমাকে ঘৃণা করেন', ফের বিস্ফোরক কবীর সুমন

ফের বিতর্কিত মন্তব্য গায়ক কবীর সুমনের। তিনি একাধিক মহিলার সঙ্গে থেকেছেন বলে তাঁকে অনেকে হিংসা করেন। এমনই মন্তব্য করবলেন তিনি।

Advertisement
কবীর সুমন কবীর সুমন
হাইলাইটস
  • ফের বিতর্কিত মন্তব্য গায়ক কবীর সুমনের
  • তিনি একাধিক মহিলার সঙ্গে থেকেছেন বলে তাঁকে অনেকে হিংসা করেন
  • এমনই মন্তব্য করবলেন

ফের বিতর্কিত মন্তব্য গায়ক কবীর সুমনের। তিনি একাধিক মহিলার সঙ্গে থেকেছেন বলে তাঁকে অনেকে হিংসা করেন। এমনই মন্তব্য করবলেন তিনি। সুমনের আরও দাবি, যাঁরা তাঁর সমালোচনা করেন তাঁরাও চান একাধিক মহিলার সঙ্গ। কিন্তু পান না। তাই তাঁরা ঈর্ষা করেন। 

সম্প্রতি হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন কবীর সুমন। হাসপাতাল থেকে ফিরেই সমালোচকদের একহাত নেন সুমন। তিনি জানান, তাঁর মৃত্যুকামনা করেছেন একাধিকজন। সেই প্রসঙ্গ তুলেই সুমন লিখেছেন, 'দীর্ঘকাল বেঁচে থেকে বুঝলাম বড্ড বেশিরভাগ বঙ্গভাষী বিশ্বাস করেন চরিত্র থাকে জননেন্দ্রিয়ে। কোনও পুরুষ একাধিক মহিলার সঙ্গে শয়ন করলেই তার চরিত্র খারাপ। মহিলাদের বেলাতেও একই মাপকাঠি। বড্ড বেশি বঙ্গভাষী আমায় ঘৃণা করেন, আমি একাধিক মহিলার সঙ্গে থেকেছি বলে। বুঝেছি মূল জায়গাটা ঈর্ষা। তারাও চায়। পায় না। পেরে ওঠে না। তাই। সেদিন দেখলাম তিনজন সনাতনধর্মীয় বঙ্গজ পুরুষনামধারী ফেসবুকে লিখেছেন - হাসপাতাল থেকে না ফিরলেই ভাল হত। আবার কতজনকে ধরেবেঁধে বিয়ে করবে কে জানে। হাসপাতাল থেকে ফিরে এসেছি - বড়ই পরিতাপের বিষয়। যাঁরা তা মনে করেন প্লিজ আশায় থাকুন। বুড়ো আবার ব্যামোয় পড়বে। কে বলতে পারে এবারে হয়তো পগার পার।
"আগর ফিরদৌস ব-রুয়ে জমিনস্ত
হমিনস্তো হমিনস্তো হমিনস্ত্।' 

এখানেই না থেমে কবীর সুমন সোমবার আরও একটি পোস্ট করেন। সেখানে সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন, ‘এই কন্ঠশিল্পীকে চেনেন কি? যে তাঁকে পরিচালনা করছে তাকে চেনেন বিলক্ষণ - "দুশ্চরিত্র, মহিলাবাজ", ইত্যাদি ইত্যাদি। ঐ কন্ঠশিল্পী বাংলার, উপমহাদেশের, বিশ্বের গর্ব। তাঁকে ভারতরত্ন না দিয়ে পদ্মশ্রী দিয়ে অপমান করা হয়েছিল। কলকেতার এক পদ্মপণ্ডিত "শিল্পী" তখন বলেছিল "একটা পদ্মভূষণ দেওয়া যেত।" সেই প্রাণীটাও ঐ খেতাব পেয়েছে যে!

আরও পড়ুন

Advertisement

প্রসঙ্গত, এই সংগীত শিল্পী আগে জানিয়েছিলেন, তাঁর অফুরান এনার্জির উৎস মুক্তকাম। তা নিয়ে শোরগোল কম হয়নি। অনেকেই তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণও করেন। তা নিয়ে ফের বিস্ফোরক বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন সুমন। 

বলেছিলেন, 'যদি বলতাম, সকালে উঠে আমি জপ করি, তারপর ভগবান-আল্লার নাম করি, তাহলে কি ভালো হত? আমি মুক্তকামে বিশ্বাস করি এটা নিয়ে এত শোরগোলের কী আছে ?' কেন সেদিন মুক্তকামের কথা বলেছিলেন তার উত্তরও দেন গায়ক। বলেন, 'সেদিন প্রায় টানা সাড়ে তিন ঘণ্টা রেকর্ডিং করেছিলাম। তারপরই এক বন্ধু স্থানীয় ভদ্রলোক আমাকে জিজ্ঞেস করেন, এই ৭৫ বছর বয়সেও এত ফিট থাকি কীভাবে? তার উত্তরেই বলেছিলাম আমি মুক্তকামে বিশ্বাস করি। তা বলে অন্যায়টা করেছি কী?

Advertisement