scorecardresearch
 
 

'চা-কাকু' মৃদুল দেব খুলেছেন YouTube চ্যানেল! বাবা-ছেলে মিলে বানাচ্ছেন ভিডিও

'চা-কাকু' (Cha Kaku) মৃদুল দেব (Mridul Dev) আনলেন ইউটিউব (YouTube) চ্যানেল। দিন কয়েক আগে তিনি নিজের চ্যানেল এনেছেন। ছেলের সঙ্গে ভিডিও বানাচ্ছেন আর আপলোড করে দিচ্ছেন। কয়েকটি ভিডিও তো তুমুল জনপ্রিয় হয়েছে।

মৃদুল দেব মৃদুল দেব
হাইলাইটস
  • 'চা-কাকু' মৃদুল দেব আনলেন ইউটিউব চ্যানেল
  • দিন কয়েক আগে তিনি নিজের চ্যানেল এনেছেন
  • ছেলের সঙ্গে ভিডিও বানাচ্ছেন আর আপলোড করে দিচ্ছেন

তখনও করোনা দেশে থাবা বসায়নি। আস্তে আস্তে ছড়াচ্ছে। বা বলা যেতে পারে ছড়াতে শুরু করে দিয়েছে। সংক্রমণ আটকাতে দেশে জনতা কার্ফুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। ২২ মার্চ, ২০২০। সকাল থেকে সারা দেশ প্রায় বন্ধ। এর মাঝে এক ব্যক্তি চা খেতে বেরিয়ে সমালোচিত হয়েছিলেন।

তিনি 'চা-কাকু' (Cha Kaku) মৃদুল দেব (Mridul Dev)। 'চা খাব না আমরা' এই একটি বাক্য ছড়িয়ে পড়েছিল চারিদিকে। সেইসঙ্গে তাঁর ছবি। কম রসিকতা হয়নি তাঁকে নিয়ে। তিনি অতশত না বুঝেই সরল প্রশ্ন করে ফেলেছিলেন।

'চা-কাকু' (Cha Kaku) মৃদুল দেব (Mridul Dev) আনলেন ইউটিউব (YouTube) চ্যানেল। দিন কয়েক আগে তিনি নিজের চ্যানেল এনেছেন। ছেলের সঙ্গে ভিডিও বানাচ্ছেন আর আপলোড করে দিচ্ছেন। কয়েকটি ভিডিও তো তুমুল জনপ্রিয় হয়েছে।

কী কী ভিডিও রয়েছে সেখানে
বিভিন্ন বিষয়ে ভিডিও বানাচ্ছেন 'চা-কাকু' (Cha Kaku) মৃদুল দেব (Mridul Dev)। বলা যেতে পারে এর মধ্যে খাবারদাবারে ভিডিও বেশি। যেমন এর মধ্যে রয়েছে আলু, পেঁয়াজ আর সুজি দিয়ে জিভে জল আনা খাবারের রেসিপি। ইলিশ মাছের মাথা দিয়ে কী করে কচুশাক রান্না করতে হয়, তা নিয়ে ভিডিও রয়েছে।

চায়ের দোকান
সেই 'চা-কাকু' (Cha Kaku) মৃদুল দেব (Mridul Dev) সম্প্রতি খুলেছেন চায়ের দোকান। বিজয়গড়ের শ্রীকলোনি বাজারে। সেখানে তাঁদের একটি দোকান ছিল। তা মেরামত করে লেগে পড়েছেন চা বিক্রি করতে। কেমন বিক্রিবাটা হচ্ছে, ইউটিউবে তা নিয়েও ভিডিও আছে।

২২, মার্চ ২০২০। জনতা কার্ফু। দেশে একটু একটু করে বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। এ দেশের ওই ভাইরাস সংক্রমণের কয়েকটি ঘটনার কথা জানতে পারা গিয়েছে।

২০২০ সালে এই সময়ের মধ্যে বাংলাতেও করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গিয়েছে। কী করে রোগ মোকাবিলা করা হবে, সে ব্যাপারে উদ্বিগ্ন দেশ-দুনিয়ার চিকিৎসক, বিজ্ঞানীরা।

গত বছর ২২ মার্চ জনতা কার্ফুর পালনের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত কোনও দরকারি কাজ ছাড়া বাইরে যেতে মানা করা হয়েছিল। তবে সেই নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে অনেকে রাস্তার বেরিয়েছিলেন। এ নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল।

২০২০ সালের ১৭ মার্চ, মঙ্গলবার। ওইদিন রাতের দিকে জানা গেল করোনা আক্রান্ত এক রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে রাজ্যে। তিনি রাজ্য সরকারের এক আমলার ছেলে। তিনি ছিলেন বিদেশে। কলকাতায় এলে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হয়। এবং ফলাফল পজেটিভ আসে।