scorecardresearch
 

'আরও জেলা বাড়বে,' আমলাদের জন্য একগুচ্ছ ঘোষণা মমতার

প্রশাসনিক কাজে সুবিধার জন্য রাজ্যে 'আরও জেলা বাড়বে,' ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া আমলাদের জন্য একগুচ্ছ ঘোষণা মুখ্য়মন্ত্রীর।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
হাইলাইটস
  • রাজ্যে বাড়বে জেলার সংখ্যা
  • কলকাতায় ঘোষণা করলেন মুখ্য়মন্ত্রী
  • ঘোষণায় ডাব্লুবিসিএস অফিসারদের কাজে লাগানোর ইঙ্গিত

পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) আগামীতে বাড়বে জেলার (District) সংখ্যা, কলকাতার টাউন হল (Town Hall) বৃহস্পতিবার ঘোষণা করলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় (Chief Minister Mamata Banerjee)। তিনি জানান, রাজ্যে জেলার সংখ্যা বাড়াতে হবে। তাহলে কাজের সুবিধা হবে। আমাদের রাজ্যে অনেক বড় বড় জেলা রয়েছে। সেগুলিকে ছোট জেলায়(Small District) করলে অনেক সুবিধা হবে।

বিহারের (Bihar)উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, "বিহারে প্রচুর জেলা। আমাদেরও এভাবে জেলা ভাগ করে কাজ করতে হবে। এখন ২৭ টি জেলা রয়েছে। ভবিষ্যতে ৪৬ টি জেলাও হতে পারে।" তিনি ডাব্লুবিসিএস (WBCS Officer) অফিসারদের ক্যারিয়ার যাতে নষ্ট না হয়, সে বিষয়ে বিশেষ নজর রাখার কথা বলেন। তিনি বলেন জেলা বাড়লে, পরিকাঠামো বাড়বে। তাতে জনতার যেমন সুবিধা হবে। প্রশাসনিক কাজে গতি আসবে, তেমনই অফিসারদের ক্যারিয়ারও (Carrier) গতি পাবে।

অনেকেই সুযোগ ও পদোন্নতির (Promotion) দোরগোড়ায় দাঁড়িয়েও পরিকাঠামোর ঘাটতি থাকায় এবং সুযোগ না থাকায় পদোন্নতির সুযোগ পান না। জেলা বাড়লে অনেক বেশি করে তাঁদের জেলার সর্বোচ্চ পদগুলিতে ব্যবহার করা যাবে। 

পাশাপাশি এদিন আমলাদের জন্য় একগুচ্ছ সুবিধা বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান করোনা আবহে অনেকেই ভাল কাজ করেছেন। পাশাপাশি অনেক ডাব্লুবিসিএস অফিসার মারা গিয়েছেন। তাঁদের পরিবারকে সব রকম সাহায্য করার কথা বলেছেন তিনি। তবে যে সমস্ত অফিসার যে এলাকায় কাজ করবেন সেই এলাকার ভাষা যেন তাঁরা পরিষ্কার জানেন, সেটা মাথায় রাখতে হবে বলে তিনি এদিন সতর্ক করে দেন। বিশেষ করে বাংলা, নেপালি এবং হিন্দি তিনটে ভাষার উল্লেখ করেন তিনি। বেশ কিছু বিষয়ে অবসরকালীন সুবিধার ক্ষেত্রে তিনি আইএএস দের সঙ্গে ডাব্লুবিসিএস অফিসারদের ফারাক অনেকটাই ঘুচিয়ে দেওয়ার কথা বলেন।

এ দিন প্রথমে নতুন রূপে সাজানো টাউন হলের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। এর পর যোগ দেন ডব্লিউবিসিএস অফিসার অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায়। সেখানে বক্তব্য রাখেন মুখ্যমন্ত্রী। ডব্লিউবিসিএস অফিসারদের সমস্যা, অভাব-অভিযোগ শোনার পাশাপাশি, কোন ক্ষেত্রে কীভাবে কাজ করতে হবে, তার দিকনির্দেশও দেন তিনি।

উব্লিউবিসিএস অফিসারদের প্রসঙ্গে এদিন তিনি  বলেন, ‘আমলারাই সরকারের আসল মুখ। ৩ জন জেলাশাসক খুব ভাল কাজ করছেন। পূর্ব মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, বীরভূমের ডিএম ভাল কাজ করছেন। আগামীদিনে জেলা বাড়লে বাড়তি অফিসার লাগবে। সবাই করোনার বিরুদ্ধে যে ভাবে লড়াই করেছেন, তাতে আমরা কৃতজ্ঞ। করোনাকালে ৪ জন ডব্লুবিসিএস আধিকারিককে আমরা হারিয়েছি।

তবে এদিন ফের একবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ফের সুর চড়িয়ে মুখ্য়মন্ত্রীর মন্তব্য, 'দুয়ারে সরকার, পাড়ায় সমাধান থেকে কন্যাশ্রী, ১০০ দিনের কাজ। কেন্দ্রীয় সরকার টাকা দিচ্ছে না, তুলে নিয়ে যাচ্ছে। ১০০ দিনের কাজে কেন্দ্র টাকা দিচ্ছে না। রাজ্যের যে কোনও সমস্যা আমরা সমাধান করতে পারি।'

এদিনে্র বৈঠকে কী কী ঘোষণা করেছেন তিনি তা এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক

১.   রাজ্যে জেলার সংখ্যা বাড়বে। বেশি জেলায় কাজের সুবিধা হবে।

২.   আমলাদের দ্রুত পদোন্নতি হবে।

৩.   আইএএস-ডাব্লুবিসিএস দের অবসরকালীন সুবিধায় ফারাক থাকছে না।

৪.   স্পেশাল অ্যালাউন্স পাবেন আমলারা।

৫.   সিনিয়র এবং দক্ষ ডাব্লুবিসিএস অফিসারদেরও সেক্রেটারি পদে নিয়োগ করা হবে।

৬.   আমলাদের স্থানীয় ভাষা ভাল করে বুঝতে হবে।

৭.   স্থানীয়দের বেশি করে চাকরিতে সুযোগ।

৮.   ডাব্লুবিসিএস অফিসারদের বছরে একবার হেলথ চেক আপ বাধ্যতামূলক করা হল।

৯.   ১০০ দিনের কাজের টাকা মেটায়নি কেন্দ্র।

১০.  ডাব্লুবিসিএস এ পদ বাড়ানো হচ্ছে।