scorecardresearch
 

Quick Sleep Trick:২ মিনিটে আসবে গভীর ঘুম, রইল সহজ উপায়

Quick Sleep Trick: ঘুমের অভাবের সমস্যায় পড়তে হয় অনেককেই। ভালো ঘুমের অভাব স্বাস্থ্যের ওপরও খারাপ প্রভাব ফেলে। এমন পরিস্থিতিতে, আমরা আপনাকে এমন একটি কৌশল সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি, যা আপনাকে মাত্র ২ মিনিটে গভীর ঘুম পেতে সাহায্য করতে পারে।

গভীর ঘুম আসবে মাত্র ২ মিনিটে গভীর ঘুম আসবে মাত্র ২ মিনিটে
হাইলাইটস
  • সার্কুলার মোশনে কব্জিতে ২ থেকে ৩ মিনিট ম্যাসাজ করলে উপকার পাওয়া যাবে
  • এই ঘুমের কৌশলটি মানুষের নজর কাড়ছে


Quick Sleep Trick: বিছানায় যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়া কিছু লোকের জন্য কেবল একটি স্বপ্ন। রাতে ঘুম না হওয়ার সমস্যায় পড়তে হয় অনেককে, যা তাদের স্বাস্থ্যের ওপরও খারাপ প্রভাব ফেলে। সাধারণত অতিরিক্ত ক্লান্তির কারণে ঘুম খুব সহজে আসে কিন্তু কিছু মানুষের ক্ষেত্রে তা হয় না। আবার কিছু লোক আছে যারা ঘুমের জন্য ওষুধের আশ্রয় নেন। একটি কৌশল সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হচ্ছে। এটি সম্পর্কে দাবি করা হচ্ছে যে, এটি আপনাকে ঘুমোতে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে  মাত্র২ মিনিটের মধ্যে গভীর ঘুম এনে  দিতে পারে।

টিকটকের একজন ব্যবহারকারী নতুন এই ঘুমের কৌশল সম্পর্কে জানিয়েছেন। এই ব্যবহারকারীর Tiktok এ youngeryoudoc নামে একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে। ব্যক্তির এই ভিডিওটি এখন পর্যন্ত ২৫ হাজারের বেশি লাইক পেয়েছে। ওই ব্যক্তি বলেছেন যে কব্জিতে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ঘষলে, আপনি চমৎকার ঘুম পেতে পারেন। ওই ব্যক্তি দাবি করেছেন, কয়েক মিনিট এভাবে করলে আপনি গভীর ঘুম পাবেন।

ভিডিওতে ঘুম পেতে, ওই ব্যক্তি তার কব্জির ভেতরের দিকের পালস পয়েন্টে  সার্কুলার গতিতে ২ থেকে ৩ মিনিট ম্যাসাজ করার কথা বলেছেন। টিকটকে এই ২ মিনিটের ঘুমের কৌশলটি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

 

ছবির ক্রেডিট: youngeryoudoc
ছবির ক্রেডিট: youngeryoudoc

 

প্রসঙ্গক উল্লেখ্য যে পালস পয়েন্ট হল কব্জির ভিতরের দিকে একটি আকুপ্রেশার পয়েন্ট। আপনি যখন হালকা হাতে এই জায়গায় ঘষেন বা চাপ দেন, তখন এটি আপনার মনকে শান্ত করে। চিরাচরিত চিনা ওষুধে, কব্জির এই অংশটিকে শেন ম্যান বলা হয়, যার বাংলা অর্থ 'আত্মার দরজা'।

২০১০ এবং ২০১৫ সালে পরিচালিত দুটি ভিন্ন গবেষণায়, লোকেদের তাদের কব্জির পালস পয়েন্টে ম্যাসেজ করা হয়েছিল, যার ফলাফল খুব ভাল ছিল। গবেষণায় দেখা গেছে, এই সকল মানুষের ঘুমের মান উন্নত হয়েছে এবং ঘুমের ব্যাধির সমস্যাও অনেকাংশে কমে গেছে। এ সময় মানুষের ঘুমের মান ভালো পাওয়া গেছে। এই গবেষণায় জড়িত ব্যক্তিদের জীবনযাত্রার মানও সংশোধন করা হয়েছিল এবং যারা ঘুমের জন্য ওষুধ ব্যবহার করেছিলেন তাদের সংখ্যাও হ্রাস পেয়েছিল।

তবে গবেষকরা আরও বলছেন যে এই গবেষণাটি ছিল খুবই ছোট, যেখানে অনিদ্রার সমস্যা আছে এমন ব্যক্তিরা এটি থেকে উপকৃত হবেন কি না তা নিশ্চিত করা খুবই কঠিন। অথবা আপনি যদি নিজের হাতের কব্জিতে ম্যাসাজ করেন তবে এটি উপকারী  প্রমাণিত হবে এমন বলা যায় না। এমতাবস্থায় এসব বিষয় আরও গবেষণা করা খুবই জরুরি। যাইহোক, কোন পদ্ধতি চেষ্টা করার আগে, আপনার  বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করা আবশ্যক।