scorecardresearch
 
 

কাঁটা চামচে ইলিশ খাচ্ছে ইউরোপ-আমেরিকা, এখন ব্যাপক জনপ্রিয়

কে বলেছে ইলিশ খায়না গোরা-রা ! খাওয়ানোর মতো খাওয়ানো হলে নিশ্চয় খায়। আর হাতে যদি এসে যায় সিক্রেট রেসিপি, তাহলে আর পায় কে ! কাঁটা চামচ দিয়েও দিব্যি চলছে ইলিশ ভক্ষণ।

ইলিশের স্বাদে মাতাল ইউরোপ, আমেরিকা ইলিশের স্বাদে মাতাল ইউরোপ, আমেরিকা
হাইলাইটস
  • ফর্ক আর স্পুন দিয়ে চলছে ইলিশ ভক্ষণ
  • ইউরোপ-আমেরিকায় জনপ্রিয় হচ্ছে ইলিশ
  • ইলিশের সিক্রেট রেসিপিতেই মজেছে বিশ্ব

ইলিশের কাঁটার ভয়ে বিদেশে তেমন জনপ্রিয় নয় সুস্বাদু ইলিশ। বিশেষ করে ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলিতে কাঁটা ও চামচ দিয়ে খাওয়ার চল থাকায় ইলিশের স্বর্গীয় স্বাদ নিতে চান না এতদিন। সরি, ভুল বলা হল স্বাদ নিতেন না। কিন্তু ইলিশের সিক্রেট রেসিপি টের পেতেই এখন ইউরোপ, আমেরিকার দেশগুলিতে ইলিশের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। বাংলাদেশি রেস্তোরাঁয় গিয়ে তাঁরা ইলিশের সিক্রেট রেসিপি খুঁজছেন। তাতে খুশি রেস্তোরাঁগুলি।

ভারত-বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা খদ্দের টানতে

ভারতীয় রেস্তোরাঁগুলি বেশিরভাগই পঞ্জাবি রেস্তোরাঁ। সেখানে উত্তর-দক্ষিণ ভারতীয় খানার পাশাপাশি কিছু মাছের পদ মিললেও তাঁরা পারতপক্ষে মাছ থেকে দূরেই থাকেন। তবে ইলিশ মাছের জনপ্রিয়তা বাড়তে দেখে তাঁরা ইলিশ রেখে বাংলাদেশি কুক দিয়ে তা রান্না করাচ্ছেন বিদেশি খদ্দের টানতে। 

কি সেই 'সিক্রেট রেসিপি' ?

ইলিশ মাছের কাঁটার ভয়ে বাচ্চারা অনেক সময় খেতে চায় না। অনেকে ভালবাসলেও ইলিশ থেকে দূরে থাকেন শুধু কাঁটার ভয়ে। তাই কাঁটা গলানো বা কাঁটা নরম করে ইলিশ ভুনা করার পদ্ধতি বাংলাদেশে কিংবা পশ্চিমবঙ্গে চলে। তবে এটা অতটা প্রচলিত পদ্ধতি নয়। এই পদ্ধতিতে মাছ রান্না করলে ছোট কাঁটাগুলো একদমই নরম হয়ে যাবে। আর বড় কাটাগুলো দেখা গেলেও মুখে দিলে গলে যাবে। এতে কাটা গলায় আটকানোর সম্ভাবনা খুবই কম থাকবে। এখন এই রেসিপিতেই মন ভজেছে বিদেশী ইলিশপ্রেমীদের।

ফর্ক অ্যান্ড স্পুন-এই ইলিশ

বিশেষ করে ক্যালিফোর্নিয়া, লস অ্যাঞ্জেলস, টরন্টো, কলোরাডো, সান ফ্রান্সিসকো, ট্রিনিটি, নিউ জার্সি, লাস ভেগাস, ওয়াশিংটন, ইউরোপের স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, ইংল্যান্ডে ম্যাসাচুসেটস, সহ বিভিন্ন এলাকায় চলছে দিব্যি ইলিশ বিক্রি। আর খেতে অসুবিধা ! আমাজনের জলে সমস্যা ভাসিয়ে দিয়ে দিব্যি ফর্ক অ্যান্ড স্পুন দিয়ে চলছে ইলিশ গলাধঃকরণ। 

কি কি লাগবে রেসিপিতে?

কীভাবে এই কাঁটাছাড়া ভুনা তৈরি হয় তা জানতে হলে ইউটিউব বা অন্য সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে হাজারটা রেসিপি আছে। তবু একবার চটজলদি দেখে নিতেই পারেন মস্ত খানার মস্ত রেসিপি। এর জন্য লাগবে পিঁয়াজ কুচি আধ কাপ, লবণ স্বাদ মতো, লঙ্কার গুঁড়ো হাফ চা চামচ, ধনের গুঁড়ো কোয়ার্টার চা চামচ, জিরা গুঁড়ো কোয়ার্টার চা চামচ, আদা বাটা হাফ চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা ৪ টেবিল চামচ, টক দই ২ টেবিল চামচ, সাদা ভিনিগার ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ৩ টেবিল চামচ, ইলিশ মাছ মাঝারি সাইজের ১ টি, কাঁচা মরিচ ৪ টি।

রেসিপিটা একবার জেনে নিলে ক্ষতি কী ?

প্রথমে মাছের মশলা তৈরি করে নিতে বাটিতে আধ কাপ পরিমাণ পিঁয়াজ কুচি, স্বাদ মতো লবণ নিয়ে হাত দিয়ে চটকে নরম করে নিতে হবে। এর মধ্যে লঙ্কার গুঁড়ো হাফ চা চামচ, ধনের গুঁড়ো কোয়ার্টার চা চামচ, জিরার গুঁড়ো কোয়ার্টার চা চামচ, আদা বাটা আধা চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা চার টেবিল চামচ, টক দই দুই টেবিল চামচ, এক টেবিল চামচ সাদা ভিনিগার। সরিষার তেল তিন টেবিল চামচ দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এর মধ্যে মাছগুলো দিতে হবে।

সিক্রেট রেসিপি পরিবেশন করুন বাড়িতেও

এবার একটি প্রেশার কুকারের নিচে কিছু মশলা ছড়িয়ে দিতে হবে। এর উপর মাছগুলো দিয়ে দিতে হবে। বাকি মশলার সঙ্গে আধ কাপ জল মিশিয়ে নিবেন। এরপর প্রেসার কুকারের ঢাকনা লাগিয়ে দিতে হবে। তারপর ওভেনের আঁচ একেবারে বাড়িয়ে প্রেশার কুকার বসিয়ে ১০ মিনিট জ্বাল দিতে হবে। এরপর উনুনের আঁচ একদম কমিয়ে দেড় ঘণ্টা জ্বাল দিতে হবে। প্রেশার কুকার নামিয়ে মাছগুলো মশলা সহ একটি প্যানে নিয়ে নিতে হবে। তারপর নাড়াচাড়া করে জ্বাল দিয়ে জল শুকিয়ে নিতে হবে। মাছ মাখা মাখা হলে ৩ থেকে ৪ টি কাঁচা লঙ্কা দিয়ে দিতে হবে। যখন মাছের তেল উপরে উঠে আসবে, তখন এটা থেকে নামিয়ে ফেলনু। ব্যাস রেডি ইলিশের সিক্রেট রেসিপি।