scorecardresearch
 

Low Testosterone Level: শরীরে টেস্টোস্টেরন ব্যাপক হারে কমেছে, পুরুষদের যে লক্ষণগুলি বলে দেয়...

Low Testosterone Level: টেস্টোস্টেরন পুরুষদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি হরমোন যা পেশী, হাড়ের শক্তি এবং যৌন স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি। অনেক কারণে পুরুষদের শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমে যায়। তা যদি হয়, তবে যৌন অক্ষমতা, দুর্বল হয়ে পড়ার মতো রোগ দেখা দেয়।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • টেস্টোস্টেরন পুরুষদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি হরমোন যা পেশী
  • হাড়ের শক্তি এবং যৌন স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি
  • বর্তমান সময়ে, এমন অনেক পুরুষ আছেন যারা কম টেস্টোস্টেরন লেভেলের সমস্যায় ভুগছেন

Low Testosterone Level: টেস্টোস্টেরন পুরুষদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি হরমোন যা পেশী, হাড়ের শক্তি এবং যৌন স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি। অনেক কারণে পুরুষদের শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমে যায়। তা যদি হয়, তবে যৌন অক্ষমতা, দুর্বল হয়ে পড়ার মতো রোগ দেখা দেয়। শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কম যাওয়ার পিছনে অনেক কারণ থাকতে পারে। বর্তমান সময়ে, এমন অনেক পুরুষ আছেন যারা কম টেস্টোস্টেরন লেভেলের সমস্যায় ভুগছেন। এর কারণ কী?

নিউইয়র্ক-ভিত্তিক এন্ডোক্রিনোলজিস্ট ডক্টর অ্যালিস ব্রেটের মতে, এখন অনেকেই খোলাখুলিভাবে তাদের সমস্যার কথা বলছেন।

রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা নির্ণয় করা যায়। শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কম হলে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়, যেমন- মেজাজের পরিবর্তন, কম শক্তি, ফিটনেসের অভাব, মনোযোগ দিতে না পারা এবং যৌন স্বাস্থ্যের সমস্যা।

এই সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই টেস্টোস্টেরন টেস্ট করুন

ডক্টর ব্রেটের মতে, আপনি যদি সেক্স ড্রাইভ হ্রাস হ্রাসের সম্মুখীন হন, তবে আপনাকে অবশ্যই আপনার টেস্টোস্টেরন পরীক্ষা করাতে হবে। আপনি যদি একনাগাড়ে কয়েক মাস ধরে সেক্স ড্রাইভ হ্রাস লক্ষ্য করেন, তবে এটি উদ্বেগের কারণ হতে পারে। কম সেক্স ড্রাইভের পিছনে অনেক কারণ থাকতে পারে যেমন- মানসিক চাপ, কর্মক্ষমতা উদ্বেগ এবং ঘুমের অভাব।

এছাড়া, এগুলিও কম টেস্টোস্টেরনের লক্ষণ

স্পোর্টস মেডিসিন বিশেষজ্ঞ গ্যাবে মিরকিন বলেছেন, টেস্টোস্টেরন পেশী তৈরির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হরমোন হিসেবে বিবেচিত হয়। শরীরে টেসটোসটেরনের মাত্রা কম থাকলে পেশি তৈরি এবং শক্তি কমে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার অবশ্যই পরীক্ষা করানো জরুরি। কিন্তু আপনি যদি কোনও ঘাটতি ছাড়াই শক্তি বাড়ানোর জন্য টেস্টোস্টেরন থেরাপি গ্রহণ করেন, তাহলে আপনর এর অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সম্মুখীন হতে পারে।

এগুলি হল কম টেস্টোস্টেরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কম টেস্টোস্টেরনের সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের কম শক্তি, দিনের বেলা ক্লান্তিবোধ, কোনও কাজ করার আগ্রহ না থাকা ইত্যাদির সমস্যায় পড়তে হয়।

এই লক্ষণগুলি দেখা মাত্রই পরীক্ষা করে ফেলুন

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আপনি যদি চিন্তাভাবনা করতে না পারেন, মনে রাখতে সমস্যা হয়, মনোযোগ দিতে সমস্যায় পড়েন, তাহলে তা টেস্টোস্টেরন কম হওয়ার লক্ষণ হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে, চিকৎিসকের পরামর্শ নিয়ে অবিলম্বে পরীক্ষা করানো গুরুত্বপূর্ণ।

স্বাস্থ্যকর জীবনধারার মাধ্যমে সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠতে পারেন

চিকিৎসকরা বলছেন, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের মাধ্যমে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কম হওয়া প্রতিরোধ করা যায়। এর জন্য আপনার ওজন বজায় রাখা এবং প্রতিদিন ব্যায়াম করা গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়াও, মদ ও সিগারেট একেবারেই খাবেন না। খাদ্যতালিকায় ফল, সবজি, বাদাম এবং বীজ অন্তর্ভুক্ত করুন।