scorecardresearch
 

Wriddhiman Saha Controversy: তদন্ত কমিটিকে হুমকি দেওয়া সাংবাদিকের নাম জানালেন ঋদ্ধিমান সাহা

তদন্ত কমিটিকে হুমকি দেওয়া সাংবাদিকের নাম জানালেন ঋদ্ধিমান সাহা। তবে বিসিসিআইয়ের নির্দেশে তিনি নাম বাইরে জানাবেন না।

ঋদ্ধিমান সাহা ঋদ্ধিমান সাহা
হাইলাইটস
  • তদন্ত কমিটিকে হুমকি দেওয়া সাংবাদিকের নাম জানালেন ঋদ্ধিমান সাহা
  • তবে প্রকাশ্যে নাম জানাবেন না তিনি
  • যা জানাবে বিসিসিআই জানাবে

উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা গত কিছুদিন ধরে খবরের শিরোনামে রয়েছেন। টিম থেকে বাদ পড়া এবং তারপর তাকে ইন্টারভিউ জন্য সাংবাদিককে হুমকি দেওয়ার ঘটনা প্রকাশ্যে আনার পর থেকেই তাকে নিয়ে শুরু হয়েছে জোর চর্চা। তাঁকে বারবার জিজ্ঞাসা করা হলেও তিনি বলেছিলেন যে সাংবাদিকের নাম তিনি প্রকাশ্যে আনতে চান না, তার কেরিয়ারের কথা চিন্তা করে। এরপর ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড তার বক্তব্যকে গুরুত্ব দিয়ে তাঁকে কে হুমকি দিয়েছিল, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করে। এর মধ্যে বিসিসিআই সাহাকে হুমকি দেওয়া সাংবাদিকের নাম জানাতে নির্দেশ দেয়। প্রথমে অরাজি হলেও পরে বিসিসিআইয়ের নির্দেশে তিনি নাম জানিয়ে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

বিসিসিআই ৩ সদস্যের কমিটি তৈরি করে

বিসিসিআইয়ের মামলার তদন্ত করার জন্য তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে সমিতি উপাধ্যক্ষ রাজীব শুক্লা, কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমাল এবং পরিষদ সদস্য প্রভনেজ সিং ভাটিয়াকে রাখা হয়। রাজীব শুক্লা মিডিয়াকে জানিয়েছেন যে, সাহা সমিতিকে সমস্ত তথ্য দিয়েছে এবং তাড়াতাড়ি তা বিসিসিআইকে জানাবেন তাঁরা। অন্যদিকে ঋদ্ধিমান সাহা জানিয়েছেন, আমি সমিতির সঙ্গে সবকিছু খোলাখুলি জানিয়েছি। আমি সমস্ত তথ্য তাদের জানিয়ে দিয়েছি। বিসিসিআই আমাকে বৈঠকের পর কমিটি আমাকে বৈঠকের বিষয়ে বাইরে কিছু বলতে বারণ করেছে। যা জানাবেন, তাঁরাই জানাবেন।

কি ছিল হুমকি বিবাদের ঘটনা?

গত মাসে টেস্ট টিম থেকে ড্রপ হওয়ার পর টুইটারে সাংবাদিক হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ শেয়ার করেন ঋদ্ধিমান সাহা। তিনি জানিয়েছেন যে তাকে ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন এক সাংবাদিক। ইন্টারভিউ না দেওয়ায় তাকে পাল্টা হুমকি দেওয়া হয়। এক ঘরে করে দেওয়ার কথা বলা হয়। শেয়ার করা স্ক্রিনশটে লেখা ছিল, আমার সাথে একটা ইন্টারভিউ করুন। যদি আপনি লোকতান্ত্রিক থাকতে চান তাহলে আমি চাপ দেব না। তারা কেবল একজন উইকেটকিপার পছন্দ করেছে। কে বেস্ট? আপনি ১১ জনকে পছন্দ করেছেন। যা আমার হিসেবে ঠিক নয়। যে আপনাকে সাহায্য করতে পারবে, তাকে বেছে নিন। আপনি আমাকে কল করেননি। এখন আমি আপনার কোনদিনও ইন্টারভিউ নেব না এবং এই বিষয়টি আমি সবসময় এ মনে রাখব।

চলতি সিরিজে নেই ঋদ্ধি

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজে ঋদ্ধিমান সাহা ছাড়া আজিঙ্কা রাহানে, চেতেশ্বর পূজারা এবং ইশান্ত শর্মাকেও দল থেকে বাইরে রাখা হয়েছে। ইশান্ত, আজিঙ্কা এবং চেতেশ্বর আউট অব ফর্ম থাকলেও ঋদ্ধিমান সাহার বিরুদ্ধে অবশ্য তেমন কোনও অভিযোগ ছিল না। শেষ ম্যাচে তিনি ৬২ রান করেছিলেন। তার পরেও তাকে কেন বাদ দেওয়া হয়েছে তা তিনি মেনে নিতে পারেননি। তাই বাদ পরার পরে রাহুল দ্রাবিড় এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। তিনি বলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কথা দিয়েও তাঁকে দলে রাখতে সাহায্য করেননি। অন্যদিকে রাহুল দ্রাবিড় তাঁকে অবসরের বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি জানান। তিনি বলেছিলেন দলে রাখবে কিনা সেটা ভারতীয় দলের ব্যাপার। তবে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত আমার একান্ত ব্যাক্তিগত। তাই সেই পরামর্শ তার ভালো লাগেনি বলে তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন।