scorecardresearch
 

লাইনে দাঁড়িয়েও টিকা পাচ্ছেন না ! সিকিম চলে যেতে পারেন

লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না করোনা টিকা? তাহলে কুছ পরোয়া নেহি। সিকিমে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা নিতে পারেন। হেঁয়ালির মতো শোনাচ্ছে তো ! ভাবছেন, টিকা না নিয়ে তো কোথাও যাতায়াতের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাহলে কীভাবে সিকিমে যাওয়া যাবে !

 দর্শনে আর কোনও বাধা নেই দর্শনে আর কোনও বাধা নেই
হাইলাইটস
  • সিকিমে ঘুরতে গেলেই মিলতে পারে টিকা
  • বৃহস্পতিবার থেকে খুলে গেল সিকিম
  • কড়া স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে পর্যটকদের

সিকিমে গেলেই টিকা !

লাইনে দাঁড়িয়েও মিলছে না করোনা টিকা? তাহলে কুছ পরোয়া নেহি। সিকিমে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা নিতে পারেন। হেঁয়ালির মতো শোনাচ্ছে তো ! ভাবছেন, টিকা না নিয়ে তো কোথাও যাতায়াতের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাহলে কীভাবে সিকিমে যাওয়া যাবে !

টিকা দিয়েই রাজ্যে প্রবেশ

আপনার জানাতে কোনও ভুল নেই। কিন্তু যেটা বলছি, তাতেও কিন্তু কোনও অসত্যতা লুকিয়ে নেই। কারণ সিকিম সরকার পর্যটকদের কাছে আরটিপিসিআর রিপোর্ট না থাকলে প্রবেশ পথে টিকা দিয়ে তারপরই রাজ্যে প্রবেশ করার ছাড়পত্র দিতে পারেন। এমন প্রস্তাব পেশ হয়েছে তাদের বিধানসভায়।

এক ঢিলে দুই পাখি

এই বিলটি পাশ হলে এটি একটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত হতে পারে। কারণ টিকা নিতেই হয়তো অনেকে চলে এলেন শৈলরাজ্যে। টিকা নেওয়ার লাইনে দাঁড়াতেও হল না, আবার ভ্রমণের মজা নেওয়াও হল। ফলে নজর রাখতে থাকুন, সিদ্ধান্ত হলে বাড়ির পাশের টিকার লাইনে নন, প্রস্তুতি নিন সিকিমে টিকা নেওয়ায়।  

বৃহস্পতিবার থেকেই সিকিমে প্রবেশ

আজ বৃহস্পতিবার থেকে অবশেষে সিকিমে প্রবেশের অনুমতি মিলতে চলেছে।উঠে গেল পর্যটকদের জন্য নিষেধাজ্ঞাও। ১ জুলাই থেকে সিকিম পর্যটন দপ্তরের নির্দেশিকার মেনে নিয়ম মেনে রাজ্যে প্রবেশের উপর কোনও বাধা নেই। ফলে পর্যটনের ক্ষেত্রে নতুন আশার আলো দেখছে উত্তরের পর্যটন সার্কিট। যদিও আপাতত বড় শহর এবং গ্যাংটক-এ পর্যটনের উপর বিশেষ ছাড় দেওয়া হচ্ছে তবুও মূল ও প্রথাগত পর্যটনকেন্দ্রগুলিতে অন্তত যেতে পারলে, সিকিম-তরাই ডুয়ার্স নিয়ে পর্যটন সার্কিটটি পুরোপুরি চালু করা সম্ভব হবে। যদিও ভুটান এখনও না খোলায় কিছুটা ধাক্কা খাবে। তবু সিকিম খোলাতে অনেকটাই এগিয়ে থাকা যাবে বলে মনে করছেন ট্যুর অপারেটররা।

ভুটান বাদে গোটা সার্কিট খুলছে 

হিমালয়ান হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্রাভেল ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট সান্যাল জানিয়েছেন, সার্কিটটি অন্তত খোলা থাকলে লোকের কাছে সদর্থক বার্তা যাবে এবং বাইরে থেকে যাঁরা বুকিং করবেন, তাঁরা গোটা সার্কিটটি থাম্বনেলে, খোলা দেখতে পেলে অনেক বেশি আগ্রহী হবেন বুকিং এর ক্ষেত্রে। বিশেষ করে গত কয়েক মাসে শিলিগুড়ি ও আশপাশের মানুষদের জন্য এবং সেই সঙ্গে লাগোয়া উত্তরবঙ্গের বহু মানুষ একদিন কিংবা দুদিনের ট্যুরে পাহাড় এবং আশপাশের অফবিট ডেস্টিনেশনগুলিতে ঢুঁ মারছেন। 

হেলথ ডেস্কই পর্যটনের চাবিকাঠি

সিকিমের পর্যটন দপ্তরের তরফে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে, তাতে বলা হয়েছে বাইরের পর্যটকদের জন্য হেলথ ডেস্ক তৈরি করা হবে। সেখানে ভ্যাকসিন দেওয়ার পাশাপাশি রাপিড এন্টিজেন টেস্টের জন্যও ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। শরীরের তাপমাত্রা মাপার জন্য থার্মাল স্ক্যানার রাখা হয়েছে। টুরিস্ট ইনফর্মেশন সেন্টারগুলিতেও এই ব্যবস্থা থাকছে। তবে যারা বাইরে থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আরটিপিসিআর নেগেটিভ টেস্ট রিপোর্ট নিয়ে যাবেন, তাঁদের কোনও রকম টেস্টে মুখোমুখি হতে হবে না। তবে কেউ চাইলে টিকা নিয়ে পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে যেতে পারেন। ভ্যাকসিন চালু হলে তা নিয়ে উৎসাহ বাড়বে বলে আশার আলো দেখছে অনেকেই।

ট্রেন চলাচল শুরু না হলে পর্যটন পুরোপুরি স্বাভাবিক হবে না 

তবে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পুরনো পরিস্থিতি ফিরে আসা মুস্কিল বলেই মনে করছে একটা বড় অংশ। সিংহভাগ পর্যটক ট্রেনেই আসেন। ফলে কলকাতা-এনজেপি অন্তত ট্রেন চালু করা হলে কিছু পর্যটক ফিরবে।

 

 
; ; ;