scorecardresearch
 

Kolkata Metro Railway Token to be Reintroduced : কলকাতা মেট্রোয় বৃহস্পতিবার থেকে ফের চালু টোকেন

Kolkata Metro Railway Token to be Reintroduced: করোনা (Corona) সংক্রমণের কারণে কলকাতা মেট্রো (Kolkata Metro Railway)-য় টোকেন ব্যবহার বন্ধ ছিল। এlদিন কাজ চালানো হচ্ছিল স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে। তবে ২৫ নভেম্বর থেকে ফিরছে টোকেন।

কলকাতা মেট্রোয় ফিরতে চলেছে টোকেন (প্রতীকী ছবি) কলকাতা মেট্রোয় ফিরতে চলেছে টোকেন (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • কলকাতা মেট্রোয় ফের ফিরছে টোকেন
  • বৃহস্পতিবার থেকে সেই ব্য়বস্থা আবার চালু করে দেওয়া হবে
  • সোমবার কলকাতা মেট্রো রেলের তরফ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে

Kolkata Metro Railway Token to be Reintroduced: কলকাতা মেট্রো (Kolkata Metro Railway)-য় ফের ফিরছে টোকেন। বৃহস্পতিবার থেকে সেই ব্য়বস্থা আবার চালু করে দেওয়া হবে। সোমবার কলকাতা মেট্রো রেলের তরফ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে। 

করোনা (Corona) সংক্রমণের কারণে কলকাতা মেট্রো (Kolkata Metro Railway)-য় টোকেন ব্যবহার বন্ধ ছিল। এlদিন কাজ চালানো হচ্ছিল স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে। তবে ২৫ নভেম্বর থেকে ফিরছে টোকেন।

মেট্রো যা জানাচ্ছে
কলকাতা মেট্রো রেল (Kolkata Metro Railway) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, উত্তর-দক্ষিণ (নর্থ-সাউথ) এবং ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোয় টোকেন পাওয়া যাবে। বৃহস্পতিবার থেকে সেগুলি মিলবে। মেট্রোর সব স্টেশনের কাউন্টার টোকেন পাওয়া যাবে আগের মতো। ঠিক যেমন আগে পাওয়া যেত।

যাত্রীদের সুবিধার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে যারা যাঁরা কম মেট্রো ব্যবহার করেন। তাঁদের পক্ষে স্মার্ট কার্ডের থেকে টোকেনই বেশি সুবিধার।

মেট্রো (Kolkata Metro Railway) স্টেশনের টিকিট কাউন্টার ছাড়াও অটোমেটিক স্মার্ট কার্ড রিচার্জ মেশিন (এ এস সি আর এম) থেকেও তা পাওয়া যাবে। 

স্মার্ট কার্ডে জোর
মেট্রো (Kolkata Metro Railway)-র তরফ থেকে নিত্যযাত্রীদের কাছে আবেদন করা হয়েছে, তাঁরা যাতে স্মার্ট কার্ড ব্যবহার করেন। কারণ স্মার্ট কার্ড ব্যবহার করলে অনেক সুবিধা পাওয়া যেতে পারে। বিশেষ করে এই করোনা সংক্রমণের সময়। এর ফলে লাইন হয় না টিকিট কাউন্টারের সামনে। ফলে ভিড় কম হবে বা অনেকটাই এড়ানো যাবে।

স্মার্ট কার্ড ব্যবহার করলে ১০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যায়। এখন টিকিট কাউন্টার ছাড়া অনলাইনেও রিচার্জ করার পরিষেবা শুরু হয়েছে। 

লকডাউন পেরিয়ে
করোনা সংক্রমণ রুখতে এক সময় দেশে লকডাউন ছিল। তা উঠেছে ধাপে ধাপে। ফের যখন মেট্রো পরিষেবা চালু হয়, তখন টোকেন নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ায়। পরে টোকেন পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছিল মেট্রো। তার বদলে শুধুমাত্র স্মার্ট কার্ডে যাতায়াত করা যাচ্ছিল। লকডাউনের পরবর্তী সময় স্লট বুক করে মেট্রোয় যাতাযাত করতে হত।

অনেকেই দাবি তুলেছিলেন, তা ফিরিয়ে আনার। কিন্তু সংক্রমনের ভয়ে সে কাজ করা যায়নি। এখন সংক্রমণের হার কিছুটা কম। তাই এই সিদ্ধান্ত পথে হেঁটেছে মেট্রো এমনই মনে করা হচ্ছে।