scorecardresearch
 

করোনা পজিটিভ! রিপোর্ট আসতেই আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা গোটা পরিবারের, মৃত ২

করোনার ভয়ে আগেই জীবনের কাছে আত্মসমর্পণ! তাছাড়া আর কী। তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ের একটি পরিবারের সদস্যদের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই আত্মহত্যার চেষ্টা গোটা পরিবারের। বাকিরা বেঁচে গেলেও এক বধূ ও তাঁর তিন বছরের শিশু মারা গিয়েছেন।

করোনার ভয়ে আগেই আত্মসমর্পণ করোনার ভয়ে আগেই আত্মসমর্পণ
হাইলাইটস
  • করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই আত্মহত্যার চেষ্টা
  • মা ও ছেলের দুঃখজনক মৃত্যু
  • গোটা ঘটনায় স্তম্ভিত স্বাস্থ্য় দফতরও

তামিলনাড়ুর মাদুরাইতে কোভিড -১৯ সংক্রমণ ভয়ে আগেই বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হলেন মা ও ছেলে। জানা গিয়েছে বিষ খেয়ে মারা যাওয়া মহিলার বয়স ২৩ বছর বয়সী। তাঁর তিন বছরের ছেলেরও তীব্র বিষক্রিয়ায় মৃত্যু হয়েছে। এমন ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সংক্রমণের আশঙ্কায় নিহত ওই নারীর মা-ভাইসহ পরিবারের পাঁচজন বিষ খেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের মধ্যে তিনজন অবশ্য বেঁচে গেলেও, মহিলা এবং তার তিন বছরের শিশুকে পুলিশ মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্বামী নাগরাজের মৃত্যুতে শোকগ্রস্ত হয়েছিলেন গোটা পরিবার। নাগরাজের মৃত্যু মানতে পারছিলেন না মা লক্ষ্মী। স্বামী, একজন দৈনিক মজুর ছিলেন। গত ডিসেম্বরে অবশ্য স্বাভাবিক কারণেই মারা যান তিনি। নাগরাজের মৃত্যুতে পরিবার গভীরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

নিহত যূথিকা তাঁর স্বামীর কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে মায়ের সাথে বসবাস করছিলেন। যূথিকা ৮ জানুয়ারি কোভিড-১৯ এর জন্য পজিটিভ করেছিলেন বলে জানা গিয়েছে এবং এটি তাঁর মাকে জানিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় তাঁরা গোটা পরিবার একসঙ্গে বিষ খেয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রতিবেশিরা পরের দিন পুলিশকে খবর দেয়। যাঁরা পরিবারের তিন সদস্যকে একটি সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। পুলিশ এসে দেখে যূথিকা ও তার ছেলে মারা গিয়েছে।

একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তদন্ত চলছে। পুলিশ সন্দেহ করে যে পরিবারটি কোভিড -১৯ এবং এর পরিণতি সম্পর্কে ভয় পেয়েছিল তাই তাঁরা তাদের জীবন শেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্বাস্থ্য আধিকারিকরা বাসিন্দাদের আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসা সহায়তা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

 

 
; ; ;