scorecardresearch
 
 
উত্তরবঙ্গ

করোনা যোদ্ধাদের পাশে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাব

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 1/20

শিলিগুড়ি শহরে করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন সংগঠন সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি দুর্দান্ত কাজ করে চলেছে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 2/20

দিন-রাত পরিশ্রম করে মানুষের মুখে একটু হাসি ফুটিয়ে তুলতে তাঁরা ছুটে চলেছেন অনবরত। 

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 3/20

কারও অক্সিজেন সিলিন্ডার দরকার, কারও দরকার খাবার, কাউকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 4/20

অথচ বাড়িতে লোক নেই, কিংবা হয়তো বাড়ির সকলেই অসুস্থ, এমন পরিস্থিতিতে সর্বদা মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে মন জিতে নিয়েছে একদল দামাল যুবক-যুবতী।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 5/20

তাঁদের মধ্যে কয়েকটি সংগঠনকে সমর্থন জানিয়ে তাঁদের পাশে দাঁড়ালো শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাব।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 6/20

এমন তিনটি সংস্থা, যারা লাগাতার করোনা পরবর্তী ও আগেও মানুষের পাশে থেকে কাজ করেছে তাদের বেছে নিয়েছিল।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 7/20

শনিবার তাদের হাতে কিছু করোনা মোকাবিলা সামগ্রী তুলে দিয়ে কুর্নিশ জানালো ফ্যান ক্লাব সদস্যরা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 8/20

শিলিগুড়ির ইউনিক ফাউন্ডেশন টিম, প্রিয়জন ওয়েলফেয়ার সোসাইটি এবং শিলিগুড়ি সানরাইজ ফাউন্ডেশনের হাতে করোনা মোকাবিলার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 9/20

এই সংগঠনগুলি কাজকে স্বীকৃতি স্বরূপ এই ছোট উদ্য়োগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সহকারী সম্পাদক স্বস্তিক সাহা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 10/20

শিলিগুড়ি ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের তরফ থেকে এদিন পিপিই কিট, মাস্ক, স্যানিটাইজার, হেড ক্যাপ, হ্যান্ড গ্লাভস তুলে দেওয়া হয়।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 11/20

কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়াম ১১ নাম্বার গেটে ফুড প্লাজার সামনে, যেখানে ফ্য়ান ক্লাবের কার্যালয়, সেখান থেকেই এই অনুষ্ঠান করা হয়।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 12/20

কোভিড বিধি মেনে এদিন অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালন করা হয় দিনটি। সেই সঙ্গে সংগঠনগুলির অবদান স্বীতার করে নেন ফ্য়ান ক্লাবের সদস্যরা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 13/20

এর আগে শুক্রবার এই অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল, তবে শিলিগুড়ির জনপ্রিয় ফুটবল কোচ ও রেফারি গৌতম গুহ-র মৃত্যুতে অনুষ্ঠান পিছিয়ে দেওয়া হয়।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 14/20

এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সভাপতি ভবতোষ সান্যাল, সম্পাদক অনুপ বসু সহ ডাঃ সপ্তর্ষি ঘোষ সহ সদস্যরা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 15/20

স্বস্তিকবাবু জানান, এই সংগঠনগুলি লাগাতার মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্য কাজ করে চলেছে। তাই আমরা সামান্য সলিডারিটি প্রকাশ করতে এই উদ্যোগ নিয়েছি।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 16/20

এতে তারাও উৎসাহ পাবে মানুষের পাশে থাকার। সবাই মিলে আমরা করোনাকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাওয়ার শপথ নিতেই পারি।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 17/20

এর আগেও ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের তরফেও সমাজসেবামূলক একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।  

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 18/20

ফ্য়ান ক্লাবটি কয়েক বছর আগে স্থাপিত হয়েছিল মূলত ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের প্রতি সমর্থন থেকেই। লাল-হলুদের ফ্য়ান শিলিগুড়ি তথা উত্তরবঙ্গে তুলনামূলক বেশি। সেই আবেগ থেকেই ফ্যান ক্লাবের প্রতিষ্ঠা।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 19/20

এই সংগঠনের সঙ্গে রয়েছেন ক্রীড়া, রাজনীতি, শিক্ষা সহ প্রায় সব জগতের লোকজনই। নিয়মিত নানা উদ্য়োগেও শামিল হতে দেখা যায় তাঁদের।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির ইস্টবেঙ্গল ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা
  • 20/20

তবে খেলাধূলাউ প্রথম লক্ষ্য হলেও সামাজিক কাজেও তাঁরা অবশ্য পিছিয়ে আসেননি কখনওই। এবারও তাঁরা একইভাবে নিজেদের রীতি বজায় রাখলেন।