scorecardresearch
 

ধুপগুড়িতে বিজেপি কর্মীর মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত উত্তরেও। ধুপগুড়িতে বিজেপি কর্মী আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীরা মেরে তাঁর মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ির বারোঘরিয়া এলাকা।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত ধুপগুড়ি
  • অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের
  • থমথমে বারোঘরিয়া এলাকা

এদিনই বিজেপি সাংসদ দিল্লি থেকে হুমকি দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদদের। পশ্চিমবঙ্গে ভোট পরবর্তী সন্ত্রাস বন্ধ না হলে তৃণমূল সাংসদদেরও দিল্লি আসতে হবে। পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জগত প্রকাশ নাড্ডা রাজ্যে এসেছেন। আলোচনা চলছে। এমনকী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় দলীয় কর্মীদের সংযত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। তা সত্ত্বেও রাজ্যে হিংসা থামার কোনও লক্ষণ নেই।

কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুরের পর এবার হিংসার ঘটনা জলপাইগুড়িতে

ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত উত্তরেও। ধুপগুড়িতে বিজেপি কর্মী আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীরা মেরে তাঁর মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ির বারোঘরিয়া এলাকা।

ধুপগুড়িতে গোলমালের অভিযোগ

আক্রান্ত বিজেপি কর্মীর নাম গোপাল দাস। সোমবার রাতে উত্তেজনা ছড়ায় ধূপগুড়ি স্টেশনপাড়া এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। বারোঘরিয়া দাস পাড়া এলাকার বাসিন্দা গোপাল দাস ধূপগুড়ি স্টেশন চত্বরেও আক্রান্ত হন। অভিযোগ, রেলের রেকের কাজ দেওয়ার জন্য শ্রমিক ভাগাভাগি নিয়ে বৈঠক করার নাম করে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের স্টেশন চত্বরে ডাকা হয়। গোপালও তাঁদের মধ্যে এক জন।

পুলিশি হস্তক্ষেপে আপাতত শান্তি

অভিযোগ, বৈঠক শুরুর আগেই অতর্কিতে তৃণমূল কর্মীরা হামলা চালায় বিজেপি সমর্থকদের ওপর। এ ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় ধূপগুড়ি স্টেশন চত্বরে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ বাহিনী। যায় আরপিএফও। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রে আনে। তবে এলাকায় চাপা উত্তেজনা রয়েছে।

তৃণমূলের অস্বীকার, বিজেপির অভিযোগ

অভিযোগের কথা অস্বীকার করা হয়েছে জেলা তৃণমূলের তরফে। তাঁদের দাবি, এ সমস্ত ঘটনায় তাঁদের কোনও কর্মী জড়িত নেই। তবে বিজেপির দাবি, তৃণমূল কর্মীদের হাতেই তাঁদের কর্মীরা প্রহৃত হয়েছেন। অন্য কোনও ভাবে নয়।