scorecardresearch
 
 

'ঝুঁকি নিয়ে নন্দীগ্রামে লড়েছি,' ভবানীপুরে প্রচারে মমতা

হাতে আর মাত্র কয়েকদিন, ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুরে উপ-নির্বাচন। তার আগে জোরদার প্রচারে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। প্রচারে গিয়ে বিজেপিকে তুলোধোনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। পেগাসাস থেকে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি নেতাদের 'ডেইলি পেসেঞ্জারি' প্রসঙ্গে আক্রমণ করলেন মমতা। 'এজেন্সি দিয়ে, অস্ত্র দিয়ে ভোট করেছে বিজেপি', বলে কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর। 

 মমতা বন্দোপাধ্যায় মমতা বন্দোপাধ্যায়
হাইলাইটস
  • পেগাসাস থেকে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি নেতাদের 'ডেইলি পেসেঞ্জারি' প্রসঙ্গে আক্রমণ করলেন মমতা
  • "আমাদের জন্ম, কর্ম সবকিছু ভবানীপুর, এই মাটি সোনার চেয়েও খাঁটি"
  • "ঝুঁকি নিয়ে ভবানীপুর থেকে নন্দীগ্রামে গেছিলাম"

হাতে আর মাত্র কয়েকদিন। ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুরে উপ-নির্বাচন (Bhabanipur By Election)। তার আগে জোরদার প্রচারে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। প্রচারে গিয়ে বিজেপিকে তুলোধোনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। পেগাসাস থেকে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি নেতাদের 'ডেইলি পেসেঞ্জারি' প্রসঙ্গে আক্রমণ করলেন মমতা। 'এজেন্সি দিয়ে, অস্ত্র দিয়ে ভোট করেছে বিজেপি', বলে কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর। "ভবানীপুর হেরে গেলে ভারতবর্ষ হেরে যাবে'', বলেও এদিন মন্তব্য করে জয়ের ডাক দেন মমতা।

এদিন বিজেপিকে জোরালো আক্রমণ করে মমতা বলেন,"আমাদের জন্ম, কর্ম সবকিছু ভবানীপুর, এই মাটি সোনার চেয়েও খাঁটি। আমি ৬ বার লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকে জিতেছি। কখনও ভবানীপুর নামে, কখনও চৌরঙ্গী নামে, কখনও আলিপুর নামে। আমি এখান থেকে আপনাদের আশীর্বাদে জিতেছি। ২০১১ উপনির্বাচন, ২০১৬-র সাধারণ নির্বাচনে আমি এখান থেকে জিতেছি। ঝুঁকি নিয়ে ভবানীপুর থেকে নন্দীগ্রামে গেছিলাম।"

"আগে বুঝতে পারিনি নন্দীগ্রামে চক্রান্ত হয়েছে। আমায় ৬ মাসের মধ্যে বিধায়ক হতে হবে। তাই ভোট হচ্ছে," জানালেন মমতা। 

নন্দীগ্রামে নির্বাচন ইস্যুতে তাঁর মন্তব্য,"আমি হুইল চেয়ারে পুলিশ বন্ধুদের সাহায্যে একের পর এক মিটিং করেছি। বিজেপির পরিকল্পনা ছিল ফিজিক্যালি চোট করে দাও। ও মাথা নত করে না। ওকে যেভাবেই হোক হারাতেই হবে।" বিজেপিকে বিঁধে এদিন তিনি বলেন,"৫০টা প্লেন ভাড়া নিয়েছে, সারা ভারতবর্ষের যত মন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী, চুনোপুঁটিদের নিয়ে এসেছে। সঙ্গে বন্দুকধারীদের নিয়ে এসেছে। কী না করেনি।"  সিবিআই, ইডি'তে মামলার ইস্যুতে বিজেপিকে একহাত নেন মমতা। তাঁর দাবি,"৩৪ বছর সিপিএম শাসন করেছে, কটা সিবিআই মামলা হয়েছে? যে দলের লোকেরা সৎ তাঁদের ডাকা হচ্ছে বারবার "

পেগাসাসে ফোন ট্যাপ ইস্যুতে মমতার আরও বক্তব্য, আমি পিকের সঙ্গে বসেছি, সেটা দূরের থেকে ভিডিও করে নিয়েছে। এবার ব্রেনের মধ্যে কী চলছে সেটাও ট্যাপ করে নেবে, বলে আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ রোহিনী আদালতে গ্যাংওয়ার নিয়েও এদিন বিজেপিকে বিঁধে মমতা প্রশ্ন তোলেন,"বিজেপি রাজ্যগুলিতে কোনও আইন আছে?"

রাজ্যে টানা ভারী বৃষ্টির কারণে জল জমা আর বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা যাওয়ার প্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেন,"বৃষ্টিতে জল জমলে ইলেকট্রিক পোলে হাত দেবেন না। রাজ্যে এখন আর লোডশেডিং হয় না।" 

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মোকাবিলায় ১০ হাজার বেড তৈরি রাখা হয়েছে বলে এদিন জানান মমতা।