scorecardresearch
 

Surjya Kanta Mishra : কয়লা-কাণ্ডে BJP-তে গিয়ে ছাড় শুভেন্দুর! তোপ সূর্যকান্তর

Surjya Kanta Mishra: সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) বলেন, ইডি বা তদন্তকারীরা যতবার খুশ ডাকছেন ডাকুন। কিন্তু একই রকমের মামলাতে যিনি রয়েছেন, সেই বিধানসভার বিরোধী দলনেতাকে কেন ডাকা হচ্ছেন না?

সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র
হাইলাইটস
  • দিল্লিতে বেছে বেছে ডাকা হচ্ছে কেন?
  • একই রকমের অপরাধে বিজেপিতে গিয়ে ছাড় পাচ্ছেন কেন বিরোধী দলনেতা
  • শনিবার মেদিনীপুরে এই প্রশ্ন তুলেছেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।

দিল্লিতে বেছে বেছে ডাকা হচ্ছে কেন? একই রকমের অপরাধে বিজেপিতে গিয়ে ছাড় পাচ্ছেন কেন বিরোধী দলনেতা? শনিবার মেদিনীপুরে এই প্রশ্ন তুলেছেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra)।

কয়লা কেলেঙ্কারি
কয়লা কেলেঙ্কারি তদন্তে দিল্লিতে বার বার তলব করা হচ্ছে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দোপাধ্যায়কে ৷ কিন্তু একই রকমের বিভিন্ন অভিযোগে থাকলেও ডাকা হচ্ছে না শুভেন্দু অধিকারীকে ৷ এবার তা নিয়ে সরব হলেন সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) ৷

সূর্যর প্রশ্ন
এদিন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) বলেন, ইডি বা তদন্তকারীরা যতবার খুশ ডাকছেন ডাকুন। কিন্তু একই রকমের মামলাতে যিনি রয়েছেন, সেই বিধানসভার বিরোধী দলনেতাকে কেন ডাকা হচ্ছেন না? নাকি বিজেপিতে রয়েছেন বলে ডাকা হচ্ছে না?

তাঁর (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) দাবি, এটা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টও প্রশ্ন তুলেছে। এতদিন ধরে তদন্ত হচ্ছে বলে ৷ এখনও পর্যন্ত কোনও রিপোর্ট পেশ করতে পারছেন না ৷ এরপর চিটফান্ডের টাকা উদ্ধার বা বাকিগুলোর কিছুই তো উদ্ধার হল না ৷

তাঁর (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) কটাক্ষ, সেটাই বা কতদিন নেবে ঠিক নেই!৷ বেছে বেছে ডাকারও কোনও মানে হয় না ৷ এক-একটা কেলেঙ্কারিতে যারা জড়িত, তাদের সকলকেই ডাকতে হবে ৷ মুখ্যমন্ত্রী বা বিরোধী দলনেতা যে-ই হন না কেন, সকলেই ডাকতে হবে৷ 

কর্মীসভায় যোগ
শনিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের মেদিনীপুর শহরে দলের কর্মী বৈঠকে হাজির হয়েছিলেন সূর্যকান্ত মিশ্র ৷ বৈঠকের পরে মেদিনীপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখী হয়েছিলেন তিনি ৷ পুরভোট বন্ধ করে উপনির্বাচন করা নিয়েও কটাক্ষ করেছেন ৷ কমিশনের পদক্ষেপ নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন।

পুরভোট এবং উপনির্বাচন
তিনি (CPIM State Secretary Surjya Kanta Mishra) বলেন, "আমরা পুর নির্বাচন নিয়ে বার বার বলে এসেছি রাজ্য় নির্বাচন কমিশনের কাছে ৷ আমরা ৩৪ বছর সরকার চালিয়ে কোনও নির্বাচনে বিলম্ব করেছি বলে দেখাতে পারবেন না৷ এঁদের রেকর্ড হল একটাও নির্বাচন সময়ে হচ্ছে না।

কমিশনের সমালোচনা
তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনও তিনটে করল। বাকিগুলো করছে না কেন? মুখ্যমন্ত্রী যেখানে নির্বাচন হননি, সেখানে একটি করে কমিটি বসিয়ে দিয়েছেন ৷ যা সংবিধানে কোথাও নেই ৷ "

বামেদের শক্তিক্ষয়
বামেদের ভোট ভাগ হয়ে যাওয়া নিয়েও মন্তব্য করেছেন তিনি ৷ সেই সঙ্গে দলের অনেক নেতা বাম ছেড়ে অন্যদিকে পা বাড়ানোর অপরাধে দলীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি ৷ তাবে তারা কে বা কতজন তা নিয়ে মন্তব্য করেননি ৷

সূর্যকান্ত বাবু বলেন,"নির্বাচনের সময়ে কিছু লোক তৃণমূলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে বিজেপিতে গিয়েছেন। অনেকে মনে করেছিলেন বিজেপিকে আটকাতে পারবে তৃণমূল, বামেরা পারবে না। তাই তাদের ভোট দিয়েছেন ৷

দলীয় শৃঙ্খলা
তিনি আরও বলেন, তবে দলে আমাদের অবস্থান স্পষ্ট ৷ এখানে কোন দ্বিচারিতা নেই। অন্য দলের মতো দ্বিচার নয়। আমাদের পার্টির যদি কেউ তৃণমূল বা বিজেপির সঙ্গে থাকে, কয়েক মিনিট লাগে দল থেকে বের করতে। যা আজকে কতোগুলো হয়েছে ৷ বের করে দেওয়া হবে দল থেকে ৷ অন্যদলে দল পরিবর্তন করলে জামাই খাতির হয়। ফিরে এলেও খাতির হয় ৷ আমাদের এখানে নেই ৷"