scorecardresearch
 

কয়লা পাচার কাণ্ডে পার্ক স্ট্রিটের ট্রাভেল সংস্থার দফতরে হানা ইডির, শুরু তল্লাশি

কয়লাপাচারকাণ্ডে ফের শহরজুড়ে ইডির তল্লাশি শুরু। মিডলটন স্ট্রিট, পার্কসার্কাসে রেড শুরু করেছে ইডি। মিডলটন স্ট্রিটে তল্লাশি চলছে শেঠিয়া হাউসে। সেখানে একটি ট্রাভেল কোম্পানিতে ঢুকেছে ইডি কর্তারা।

কয়লা পাচার কাণ্ডে কলকাতায় একাধিক জায়গায় হানা ইডি-র কয়লা পাচার কাণ্ডে কলকাতায় একাধিক জায়গায় হানা ইডি-র
হাইলাইটস
  • পার্ক স্ট্রিটে একটি ট্রাভেল অফিসে হানা ইডির
  • শুরু হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ

কয়লাপাচারকাণ্ডে শহরজুড়ে ইডির তল্লাশি। মিডলটন স্ট্রিট, পার্কসার্কাসে রেড শুরু করেছে ইডি। মিডলটন স্ট্রিটে তল্লাশি চলছে শেঠিয়া হাউসে। সেখানে একটি ট্রাভেল কোম্পানিতে ঢুকেছে ইডি কর্তারা। ইতিমধ্যেই জেরা চলছে। তাঁদের সঙ্গে কি যোগ রয়েছে। তা জানার চেষ্টা চলছে।

এর আগে ওই মামলায় তৃণমূল সাংসদ তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়, এ ছাড়া একাধিক প্রায় ৭ জন শীর্ষ পুলিশ কর্তাকে ডেকে পাঠানো হয়।

তাঁরা হলেন সিআইডির ডিজি জ্ঞানবন্ত সিং, কোটেশ্বর রাও, পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার সেলভা মুরুগান, মেদিনীপুর রেঞ্জের ডিআইজি শ্যাম সিং, রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং এডিজি রাজীব মিশ্র, সুকেশ জৈন এবং  তথাগত বসু। জুলাই এবং অগাস্ট মাসের মধ্যে বিভিন্ন সময় তাদেরকে দিল্লি ডেকে পাঠানো হয়েছিল। ২৬ জুলাই থেকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয় এবং তা চলে আগস্ট মাসের ৬ তারিখ পর্যন্ত।

সূত্রের খবর অফিসার এর মধ্যে কয়েকজন এমন এক জায়গায় কর্তব্যরত ছিলেন, যেখানে কয়লা পাচারের অভিযোগ উঠেছে। সেখানে অবৈধ কয়লা তোলা হতো বলো জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, সে সব তাঁদের জানা থাকা সত্ত্বেও তারা সে সমস্ত কাজে হস্তক্ষেপ করেননি। সরাসরি কয়েকজন পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে এতে যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি ১ সেপ্টেম্বর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবী সঞ্জয় বসুকেও সমন পাঠিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা।পাশাপাশি ৭ সেপ্টেম্বর এর শ্যাম সিংকে এবং জ্ঞানবন্ত সিংকে সেপ্টেম্বর ৯ তারিখে হাজির হতে বলা হয়েছে।

 

আরও বিস্তারিত আসছে......

 
; ; ;