scorecardresearch
 

SSC নিয়োগ দুর্নীতি: CBI তদন্তের নির্দেশে স্থগিতাদেশ সুপ্রিম কোর্টের

এসএসসি (SSC) নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) সিবিআই তদন্তের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিমকোর্ট। শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি হিমা কোহলির বেঞ্চ শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছে। সেইসঙ্গে রাজ্যের স্কুল শিক্ষা সচিব মণীশ জৈনকেও আপাতত সশরীরে হাই কোর্টে হাজির হতে হবে না। ফলে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি পেল রাজ্য এবং স্কুল সার্ভিস কমিশন।

সুপ্রিম কোর্ট সুপ্রিম কোর্ট
হাইলাইটস
  • বুধবার বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় মামলাটিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন।
  • সেইসঙ্গে শিক্ষা সচিবকে হাজিরার নির্দেশও দেওয়া হয়।
  • একক বেঞ্চের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেই উচ্চ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চে গিয়েছিল রাজ্য।

এসএসসি (SSC) নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) সিবিআই তদন্তের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিমকোর্ট। শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি হিমা কোহলির বেঞ্চ শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছে। সেইসঙ্গে রাজ্যের স্কুল শিক্ষা সচিব মণীশ জৈনকেও আপাতত সশরীরে হাই কোর্টে হাজির হতে হবে না। ফলে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি পেল রাজ্য এবং স্কুল সার্ভিস কমিশন।

 এদিকে, বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Justice Abhijit Ganguly) এজলাসে বৃহস্পতিবার মণীশ জৈনের দীর্ঘ সওয়াল-জবাব জবাব চলেছে। মণীশ জৈন এক প্রশ্নের উত্তরে জানিয়েছেন, অতিরিক্ত শূন্যপদ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর নির্দেশ এসেছিল। 
বিচারপতি নির্দেশ দিয়েছিলেন, কার নির্দেশে ‘অবৈধ’দের চাকরিতে পুনর্বহালের আবেদন করা হয়েছিল, তা সিবিআইকে তদন্তকে জানতে। উচ্চ ডিভিশন বেঞ্চ সেই নির্দেশ বহালও রেখেছিল। কিন্তু এদিন আদালতে ওই নির্দেশে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দিল শীর্ষ আদালত। ফলে সিবিআই এখনই ওই তদন্ত করতে পারবে না।

বুধবার বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় মামলাটিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন। সেইসঙ্গে শিক্ষা সচিবকে হাজিরার নির্দেশও দেওয়া হয়। একক বেঞ্চের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেই উচ্চ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চে গিয়েছিল রাজ্য। সুপ্রিমকোর্ট ওই দুটি নির্দেশেই এদিন স্থগিতাদেশ দিল।

বুধবার বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় মামলাটিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন। বিচারপতি জানান, শিক্ষামন্ত্রীও যদি আদালতে আসতে চান, তিনি স্বাগত। দুর্নীতির বিরুদ্ধে এই আদালতে যখন লড়াই করছে, তখন এই আদালত জানতে চাইবে কে বা কারা এই আবেদনের পেছনে রয়েছে।

আরও পড়ুন: CBI নয়, CID তদন্ত চান নওদায় মৃত TMC নেতার স্ত্রী, FIR ১০ জনের বিরুদ্ধে

 

 
; ; ;