scorecardresearch
 
 

West Bengal By Election 2021 : উপনির্বাচনই কি বাম - কংগ্রেসের কাছে বিধানসভায় ফেরার লাস্ট চান্স?

পনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা না হলেও, কার্যত প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস এবং প্রধান বিরোধী দল বিজেপি। উভয়েই চেষ্টা করছে নিজেদের জেতা কেন্দ্র ধরে রাখার পাশাপাশি প্রতিপক্ষের থেকেও আসন ছিনিয়ে আনতে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে কী ভাবছে বাম-কংগ্রেস? কোন কোন ইস্যুতেই বা উপনির্বাচনের লড়াইতে নামবে তারা?

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • উপনির্বাচন নিয়ে কী ভাবছে বাম-কংগ্রেস?
  • কোন ইস্যুতে উপনির্বাচনে লড়বে তারা?
  • নেতারা যা বললেন...

রাজ্যে উপনির্বাচনের (West Bengal By Election 2021) প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে কমিশন। ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনগুলির কাছে আসতে শুরু করেছে বিভিন্ন নির্দেশও। এদিকে উপনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা না হলেও, কার্যত প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস এবং প্রধান বিরোধী দল বিজেপি। উভয়েই চেষ্টা করছে নিজেদের জেতা কেন্দ্র ধরে রাখার পাশাপাশি প্রতিপক্ষের থেকেও আসন ছিনিয়ে আনতে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে কী ভাবছে বাম-কংগ্রেস? কোন কোন ইস্যুতেই বা উপনির্বাচনের লড়াইতে নামবে তারা? কারণ বিধানসভা নির্বাচনে জোটে লড়লেও বাম-কংগ্রেসের প্রাপ্তি শূন্য। সংযুক্ত মোর্চায় একমাত্র জয়ী হয়েছেন নওশাদ সিদ্দিকী। 

এই প্রসঙ্গে টেলিফোনে সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তীকে (Sujan Chakraborty) প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, "উপনির্বাচন কবে হবে কেউ জানে না। কারণ এরাজ্যে নির্বাচনে গোলোযোগ থাকে। পৌর নির্বাচন গত ৩ বছর ধরে হচ্ছে না।" মূলত নিয়ম মেনে না চলার জন্যই এই পরিস্থিতি বলে মনে করেন সুজনবাবু। কিন্তু উপনির্বাচনই কি বিধানসভায় ফেরার জন্য বামেদের কাছে শেষ সুযোগ?উত্তরে সুজন চক্রবর্তী সাফ জানান, "আমরা সেভাবে ভাবি না। কে কখন শূন্য, কে এক, আর কে বেশি, সব উলটে পালটে যায়। বিধানসভায় থাকি বা না থাকি, মানুষের ইস্যু নিয়ে আমরা বহমান।" অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে কংগ্রেস নেতা আবদুল মান্নানকে (Abdul Mannan) প্রশ্ন করা হলে অবশ্য সরাসরি কিছু বলতে চাননি তিনি। তবে মান্নানের কটাক্ষ, "আমার কাছে তৃণমূল ও বিজেপি দুই সমান।" 

প্রসঙ্গত রাজ্যের যে ৭টি কেন্দ্রে হতে চলেছে উপনির্বাচন সেগুলি হল ভবানীপুর, খড়দহ, গোসবা, জঙ্গিপুর, সামশেরগঞ্জ, দিনহাটা ও শান্তিপুর। এর জন্য ইতিমধ্যেই জেলাশাসকদের ইভিএম ও ভিভিপ্যাট পরীক্ষা করে তা প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফে। একইসঙ্গে ভোটার তালিকা আপডেট করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। মনে করা হচ্ছে হয়ত আগামী সেপ্টেম্বরেই ঘোষণা করা হতে পারে উপনির্বাচন।