scorecardresearch
 

India-Bangladesh Relationship : সেদেশে হিন্দু নির্যাতন ঠেকাতে ভারত-বাংলাদেশ যৌথ ভাবে এগোক, মত বিশেষজ্ঞদের

India-Bangladesh Relationship: এর আঁচ এসে পড়েছে ভারত, বাংলাতেও। বিজেপি, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ-সহ আরও কয়েকটি সংগঠন সেদেশে হিন্দুদের নিরাপত্তা দাবি করেছে।

নরেন্দ্র মোদী এবং শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদী এবং শেখ হাসিনা
হাইলাইটস
  • গত কয়েকদিন বাংলাদেশের বেশি কয়েকটি জায়গায় গোলামাল হয়েছে
  • দুর্গাপুজো মণ্ডপ, ইসকন মন্দিরে হামলা করা হয়েছে
  • জনা কয়েক হিন্দুর বাড়িও ভাঙা হয়েছে বলেও অভিযোগ

India-Bangladesh Relationship: গত কয়েকদিন বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি জায়গায় গোলামাল হয়েছে। সেখানে হিন্দুরা সংখ্য়ালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে পড়ে। দুর্গাপুজো মণ্ডপ, ইসকন মন্দিরে হামলা করা হয়েছে। জনা কয়েক হিন্দুর বাড়িও ভাঙা হয়েছে বলেও অভিযোগ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (Bangladesh PM Sheikh Hasina) কড়া বার্তা দিয়েছেন, যারা এ কাজ করেছেন, তাদের ছাড়া হবে না।

এর আঁচ এসে পড়েছে ভারত, বাংলাতেও। বিজেপি, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ-সহ আরও কয়েকটি সংগঠন সেদেশে হিন্দুদের নিরাপত্তা দাবি করেছে। রাজ্য়ের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ দেখিয়েছে তারা। সেদেশে হিংসা, এদেশে তার প্রতিবাদ, রাজনৈতিক নেতাদের প্রতিক্রিয়া- একের পর এক ঘটনা ঘটে গিয়েছে গত কয়েকদিন।

এই ঘটনাপ্রবাহ ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্কে কী প্রভাব ফেলবে? সে ব্য়াপারে কথা বলছিলেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ইমনকল্যাণ লাহিড়ী। তাঁর মতে, এ রকম ঘটনা আগেও ঘটেছে। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ ভাবে এই সমস্য়ার সমাধান করবে।

হাসিনা ব্যবস্থা নিয়েছেন
মঙ্গলবার ইমনকল্য়াণ লাহিড়ী বলেন, "শেখ হাসিনার সরকার সর্বত্র ভাবে ব্যবস্থা নিয়েছে। এই সমস্যা মোকাবিলার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছে। এই সমস্যাটা পারতপক্ষে রাজনৈতিক সমস্যা। এবং এটাও ঠিক, সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচারটা যেমন দীর্ঘদিন হয়েছে, ঠিক তেমনই লিবারাল যাঁরা বুদ্ধিজীবী, তাঁদের ওপর বাংলাদেশে দীর্ঘকাল অত্যাচার হয়েছে। সেখানে হিন্দু-মুসলমান নির্বিশেষে হত্যালীলা চালিয়েছে জামাত-গোষ্ঠী। সুতরাং নতুন কোনও ঘটনা না।"

বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ পদে হিন্দুরা
তিনি বলেন, "আমরা জানি, বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যায়ে যাঁরা আছেন, অনেক হিন্দুই বাংলাদেশের সরকারে গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় রয়েছেন। নাটোরের মেয়র হিন্দু। এই পরিপ্রেক্ষিতে চাইব সম্প্রীতি বজায় থাকুক। যাঁরা জঙ্গি তারা চিরকালই জঙ্গিই, দলমত নির্বিশেষে।"

যৌথ প্রয়াস
"আশা করব ভারত সরকার এবং হাসিনার সরকার যৌথ ভাবে এই সমস্যার সমাধান করবে।" বলেন তিনি। তাঁর মতে, ভারত হাসিনা সরকারকে সাহায্য করবে নানা ভাবে, যারা এই ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে, এটা চিহ্নিত করতে। এটা তো খুব বড় একটা নেক্সাস। এর মধ্যে জামাতেরও মদত রয়েছে, পাকিস্তানেরও মদত রয়েছে। এবং রাজনৈতিক মদত থাকছে। সুতরাং ভারতের সহযোগিতা থাকবে। ভারতের বিদেশমন্ত্রক সেটাই মনে করে।

চুপ মোদী-মমতা
ওই ঘটনা নিয়ে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi) বা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় (WB CM Mamata Banerjee)। এ ব্য়পারে ইমনকল্য়াণ লাহিড়ী বলেন, "এতটাই স্পর্শকাতর, তাঁদের কথা না বলাই ভাল। যেটা করতে হবে, সেটা করতে হবে। যেহেতু কথা বলেননি, তার মানে এটাই বাংলাদেশের সঙ্গেই ভারত এবং পশ্চিমবঙ্গের মানুষ আছেন, অন্তত হাসিনা সরকারের সঙ্গে।"

ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কে প্রভাব নয়
তিনি বলেন, "বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় একমাত্র রাষ্ট্র যেখানে জামাতদের বিরুদ্ধাচারণ করতে পেরেছে হাসিনা সরকারই। মানে রাজাকারদের ফাঁসিতে ঝোলানো থেকে শুরু করে অন্য কাজ। আশা করব, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক নষ্ট হবে না।"