scorecardresearch
 

রক্তে মাখা চেহারা, কে এই ইউক্রেনের মহিলা? যাঁর ছবি বিশ্বজুড়ে Viral

রক্তে মাখা চেহারা, কে এই ইউক্রেনের মহিলা? যাঁর ছবি বিশ্বজুড়ে Viral। পেশায় স্কুল শিক্ষক ওই মহিলার জীবন রাশিয়ার হামলার পর কীভাবে বদলে গিয়েছে উঠে এসেছে সেই ছবি।

ভাইরাল এই ইউক্রেনিয় মহিলা ভাইরাল এই ইউক্রেনিয় মহিলা
হাইলাইটস
  • রক্তে মাখা চেহারা
  • কে এই ইউক্রেনের মহিলা?
  • তাঁর ছবি বিশ্বজুড়ে Viral

রাশিয়া-ইউক্রেন ক্রাইসিস রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে চলতে থাকা যুদ্ধে এখনও পর্যন্ত লক্ষাধিক লোকের মৃত্যু হয়েছে। অনেকে গুরুতর জখম অবস্থায় বিভিন্ন জায়গায় পড়ে রয়েছে। তাদের উদ্ধার করা যায়নি। এরই মধ্যে হামলায় এক ইউক্রেনিয় মহিলার ছবি গোটা বিশ্বে মনোযোগ আকর্ষণ করে নিয়েছে।

ছবিতে ভয়, আহত রক্তাক্ত মহিলার চেহারা দেখা যাচ্ছে। যার মুখের ওপর চাপ চাপ রক্ত জমে গিয়েছে। এখন ওই মহিলার কিছু ছবি সামনে এসেছে, যাতে যুদ্ধের আগে পরিস্থিতি কেমন ছিল তা দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি ডেইলি মেইলের রিপোর্ট অনুযায়ী মিসাইল হামলায় ঘায়েল ওই মহিলার ছবি এখন খবরের শিরোনামে তার নাম ওলিনা কুরিলো (Olena Kurilo). ৫৩ বছর বয়সী স্কুল টিচার এবং খারকিভ এলাকায় চুকুয়েভ এলাকায় থাকেন। কিন্তু রাশিয়ান হামলার পরে তার জীবন এক ঝটকায় বদলে গিয়েছে।

ছবি

রক্তে মাখামাখি মহিলার চেহারা আসলে রাশিয়ান এয়ার স্ট্রাইকের দাপটে হয়েছে। বোমা ইউক্রেনের খারকিভ এলাকাতেও পড়েছে। এই এলাকায় ওলিনা কুরিলোর বাড়ি। হামলায় কুরিলোর ঘর পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। নিজেও কুরিলো গুরুতরভাবে জখম রয়েছেন। যদিও তার প্রাণ বেঁচে গিয়েছে। কিন্তু হামলার পর একটি ছবি সামনে এসেছে। যাতে দেখা যাচ্ছে কুরিলো ভীত আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তার মধ্যেও জোর করে সামান্য হাসার চেষ্টা করছেন। তারই ছবি গোটা পৃথিবীতে নাড়িয়ে রেখে দিয়েছে।

নেচার লাভার এলিনা কুরিলো

উরিলো-র যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগের কিছু ছবি সামনে এসেছে। যাতে তাকে বিভিন্ন বাগানে ফুল এবং গাছের সঙ্গে সময় কাটাতে দেখা যাচ্ছে। কুরিলো নেচার লাভার বলে নিজেকে জানিয়েছেন। স্কুল টিচার কুরিলো ফুলের সঙ্গে নিজের বিভিন্ন ছবি পোস্ট করেছেন। যাতে তাকে অত্যন্ত খুশি এবং সন্তুষ্ট বলে মনে হচ্ছে। কিন্তু রাশিয়ান হামলার পরে তার জীবনের খুশি আর পাঁচটা ইউক্রেনিয়র মতো সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে গিয়েছে।

কুরিলো


তার বাড়িতে মিসাইল হামলা জেরে ওলিনা করিল জানিয়েছেন আমি কখনো ভাবি নি যে সমস্ত আমাকে আমার জীবন কালে দেখতে হবে এমনিতেই করোনা পরিস্থিতি গত দু-তিন বছর ধরে গোটা বিশ্বের সঙ্গে ইউক্রেন কেউ ভালো রকম নাড়া দিয়েছে তার ওপর এই নতুন হামলায় জীবন তছনছ হয়ে গিয়েছে যার করে তিনি ভেঙে পড়লেও মনোবল হারাচ্ছেন না এটি এখন গোটা বিশ্বের কাছে তার ভাবমূর্তি উঁচুতে তুলে ধরেছে

 
; ; ;