scorecardresearch
 
বলিউড

Shamshera আসছে! চিনে নিন বলিউডের আইকনিক ডাতাকদের

শমশেরা
  • 1/13

রণবীর কাপুরের দুটি ব্যাক টু ব্যাক ছবি মুক্তির জন্য প্রস্তুত। প্রথম ছবি পরিচালক অয়ন মুখার্জির ব্রহ্মাস্ত্র এবং দ্বিতীয়টি পরিচালক করণ মালহোত্রার শমশেরা। ব্রহ্মাস্ত্রের ট্রেলার এবং এতে অভিনেতার লুক তার অন্যান্য ছবির মতোই। তবে শমশেরাতে, রণবীরকে ডাকাত হয়ে সবচেয়ে ভিন্ন লুকে দেখা গেছে। লম্বা চুল, হাতে কুড়ুল নিয়ে ঘোড়ায় চড়ে রণবীরের এই ডাকাত লুকটি বেশ আকর্ষণীয়।

চিনে নিন বলিউডের আইকনিক ডাতাকদের
  • 2/13

শমশেরাতে, রণবীর একজন ডাকাত চরিত্রে অভিনয় করেছেন যে তার গোষ্ঠীর সঙ্গে খলনায়ক সঞ্জয় দত্তের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে। অভিনেতার এই ভূমিকা কতটা হিট হবে তা জানা না গেলেও মানুষ তার লুক পছন্দ করছে। শমশেরার আগেও অনেক হিন্দি ছবিতে অভিনেতারা ডাকাত চরিত্রে অভিনয় করেছেন। গব্বর সিং, জিভা, অর্জুন যাদব-সহ অনেক চরিত্রের নাম এখনও খুব বিখ্যাত। চলুন দেখে নেই বলিউডের ১০ জন বিখ্যাত ডাকাতকে।

গব্বর
  • 3/13

গব্বর সিং হিন্দি সিনেমার সেই নেতিবাচক চরিত্র যা মানুষ এখনও মনে রাখেন। শোলে ছবিতে এই চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন আমজাদ খান। ভয়ঙ্কর ও নির্দয় ডাকাতের ভূমিকায় আমজাদ খান বিস্ময়কর কাজ করেছেন। বলিউড ছবিতে ডাকাতের কথা উল্লেখ হলে গব্বরের কথা সবার আগে উচ্চারিত হয়।

জিভা
  • 4/13

গঙ্গা কি সৌগন্ধ ছবিতে অমিতাভ বচ্চন জিভা নামে এক ডাকাত চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। যদিও অমিতাভের ডাকাত লুক সেই সময়ের চলচ্চিত্রে ডাকাতদের সাধারণ চেহারার মতোই ছিল, কিন্তু তার অভিনয়ের গভীরতা জিভাকে অমর করে দিয়েছে।

ঠাকুর রঞ্জিত সিং
  • 5/13

ধর্মেন্দ্রকে ডাকাত চরিত্রে দেখাটা ছিল অন্যরকম অভিজ্ঞতা। ১৯৭৪ সালে, পাথর অর পায়েল ছবিতে ধর্মেন্দ্র কালো কুর্তা, সাদা পায়জামা, হাতে বন্দুক, কাতোরি কাট হেয়ারস্টাইলে একজন ডাকাতের চেহারায় তার ভক্তদের মুগ্ধ করেছিলেন। লুক ছাড়াও ঠাকুর রঞ্জিত সিং চরিত্রে নিজের আলাদা পরিচয় তৈরি করেন তিনি।

জয় বিক্রান্তা
  • 6/13

জয় বিক্রান্তা ছবিতে ডাকাত বিক্রান্তের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন সঞ্জয় দত্ত। এমন লুকে সঞ্জয় দত্তকে দেখা গিয়েছিল, কপালে কালো তিলক, গোঁফ, লম্বা চুল, মুখে রাগ আর তীক্ষ্ণতা। বিক্রান্তার এই ভূমিকাটি এখনও সঞ্জয়ের স্মরণীয় চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে গণনা করা হয়।

পান সিং তোমর
  • 7/13

প্রয়াত অভিনেতা ইরফান খান পান সিং তোমর ছবিতে তার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন, অ্যাথলিট-ডাকাত পান সিং তোমারের জীবনের বাস্তব কাহিনী বর্ণনা করেছিলেন। ইরফান অত্যন্ত সরলতা ও স্বচ্ছন্দ্যে পান সিং-এর ভূমিকাকে পর্দায় এনেছিলেন। পান সিং তোমরের ভূমিকায় তাঁর কথা বলা চোখ বিস্ময় প্রকাশ করেছিল। ইরফানকে এখনও মনে করা হয় পান সিং তোমার চরিত্রের জন্য, যিনি একজন ডাকাত হয়েছিলেন।

রাকা
  • 8/13

১৯৬০ সালে, জিস দেশ মে গঙ্গা বেহেতি হ্যায় ছবিতে, প্রাণ ডাকাত রাকা হয়ে তার অমোঘ চিহ্ন রেখে যান। পদ্মিনীর প্রতি তার আকুলতা এবং ফাঁসিতে ঝুলে মৃত্যুর ভয় রাকার মনে সর্বদাই ছিল। এটি ছিল তার শৈলী এবং অভিনয়, যা রাকা ডাকাত চরিত্রে প্রাণকে অনেক খ্যাতি এনে দেয়।

ফুলন দেবী
  • 9/13

'ব্যান্ডিট কুইন' ছবিটি ফুলন দেবীর জীবনের উপর নির্মিত একটি চলচ্চিত্র। এই ছবিতে ফুলন দেবীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী সীমা বিশ্বাস যে, ফুলন দেবীর নাম এলেই সীমা বিশ্বাসের মুখ ভেসে আসে। ডাকাতের গেটআপে ফুলন দেবীর চরিত্রে সীমা বিশ্বস্তভাবে অভিনয় করেছেন।

অর্জুন যাদব
  • 10/13

সানি দেওল তার তীব্র অভিব্যক্তি এবং বলিষ্ঠ কণ্ঠে নায়কের ভূমিকায় অনেক দুর্দান্ত চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন। কিন্তু ১৯৮৭ সালে, ডাকাত ছবিতে, তিনি অর্জুন যাদব নামে একজন ডাকাত চরিত্রে অভিনয় প্রতিভার সেরা উদাহরণ দিয়েছিলেন।

জব্বার সিং
  • 11/13

১৯৭১ সালে অভিনেতা বিনোদ খান্নাও ডাকাত চরিত্রে বেশ নাম কুড়িয়েছিলেন। মেরা গাঁও মেরা দেশ ছবিতে, বিনোদ জব্বার সিং চরিত্রে তার অভিনয়ের অন্য দিকটি দেখিয়েছিলেন। এছাড়াও তিনি ১৯৭৩ সালের কচ্চে ধাগে চলচ্চিত্রে ডাকাত ঠাকুর লখন সিং-এর একটি অসাধারণ ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন।

গঙ্গারাম
  • 12/13

দ্য কিং অফ ট্র্যাজেডি অর্থাৎ দিলীপ কুমার ১৯৬১ সালের গঙ্গা যমুনা চলচ্চিত্রে গঙ্গারামের একটি অসাধারণ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তার বডি ল্যাঙ্গুয়েজ থেকে শুরু করে ডায়ালগ ডেলিভারি সবই ছিল নিখুঁত। দিলীপের চিত্তাকর্ষক অভিনয় দেখে কেউ রেগে যেতে পারে এমনকি কাঁদতেও পারে।

বিরজু
  • 13/13

মাদার ইন্ডিয়া ছবিতে সুনীল দত্ত বিরজু নামে এক ডাকাত চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এই চরিত্রে প্রথমে অভিনেতা জগদীপকে কাস্ট করার পরিকল্পনা ছিল, কিন্তু পরে সুনীল দত্তকে কাস্ট করা হয়। বিরজু চরিত্রে সুনীল দত্ত অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে অভিনয় করেছেন।