scorecardresearch
 
 

Shahrukh Khan : আরিয়ানকে কেন জামিন? আদালতের কাছে আর্জিতে যা বলা হয়েছে

Shahrukh Khan: সেখানে সে নিজের বাবার নাম শাহরুখ খানের পরিচয় দেয়নি। তাঁর নাম না লিখে বলেছে সে একজন বলিউড তারকার ছেলে।

শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান
হাইলাইটস
  • শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান দায়রা আদালতে জামিনের আবেদন করেছিল
  • যার কোনও নির্দেশ এখনও আদালতের তরফ থেকে আসেনি
  • ২ অক্টোবরের মামলায় এনসিবি তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছিল

শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান দায়রা আদালতে জামিনের আবেদন করেছিল। যার কোনও নির্দেশ এখনও আদালতের তরফ থেকে আসেনি। ২ অক্টোবরের মামলায় এনসিবি তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছিল। গত কয়েকদিন তাকে রাখা হয়েছে মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলে।

আর্জি নামঞ্জুর
কিলা কোর্টের তরফ থেকে তার জামিনের আর্জি নাকচ হয়ে যায়। আর তারপর সে হাজির হয়েছে দায়রা আদালতে। সেখানে সে কী লিখেছে, আসুন জেনে নিই।

শাহরুখের পরিচয় ছাড়াই
সেখানে সে নিজের বাবার নাম শাহরুখ খানের পরিচয় দেয়নি। তাঁর নাম না লিখে বলেছে সে একজন বলিউড তারকার ছেলে। তার ব্যাচেলর্স ডিগ্রি রয়েছে। এর পাশাপাশি ফাইন আর্টস, সিনেম্যাটিক আর্টসেও ডিগ্রি রয়েছে। সে আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন প্রোডাকশনের কোর্স করেছে।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Aryan Khan (@___aryan___)

সে আরও বলেছে, সে দেশের দায়িত্বশীল এক নাগরিক। আর সে নিরপরাধ। এখনও পর্যন্ত তার রেকর্ড ভাল। কোনও বেআইনি কাজ সে করেনি। এমন কোনও কাজে তার নাম আসেনি। এই মামলায় তার নাম ভুল করে চলে এসেছে। সে কোনও ভুল কাজ করেনি।

তার তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, তার থেকে কোনও কিছুই পাওয়া যায়নি। ২ অক্টোবর যখন এনসিবি তাকে ধরেছিল, তখন তাঁর কাছ থেকে কোনও কিছুই পাওয়া যায়নি।

আরিয়ানের কাছ থেকে নার্কোটিক্স ড্রাগস এবং সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্স পাওয়া যায়নি। তাই এনডিসিপি আইনে তাকে রাখা যাবে না। যদি আদালত মনে করে তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তা জামিনের অযোগ্য, তা হলেও তথ্যের অভাবে তার বিরুদ্ধে কোনও চার্জ লাগানো যাবে না। এই মামলা পুরোপুরি নো-এভিডেন্সের।

জামিনের আবেদনে আরও বলা হয়েছে, সে তরুণ। এবং তার কোনও অপরাধের রেকর্ড নেই। তেমন কোনও মানুষের সঙ্গে তার কোনও সম্পর্ক নেই। এর আগে মাদক সংক্রান্ত কোনও মামলায় সে ধরা পড়েনি।

১৯৮৫ সালের এনডিপিসি আইনের ৮(সি), ২০(বি), ২৭, ২৮, ২৯ এবং ৩৫ নম্বর ধারা অনুসারে কোনও অভিযোগ আরিয়ানের ওপর প্রমাণিত হয়নি বা সেই সম্পর্কিত কোনও প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।