scorecardresearch
 

Pallavi Dey Death: পল্লবীর মৃত্যুতে মন মানছে না 'রুদ্র'র, স্মৃতিমেদুর 'সিরাজ'ও

বাংলা ধারাবাহিকের অভিনেত্রী পল্লবী দে-র আকস্মিক চলে যাওয়া কেউই মেনে নিতে পারছেন। সহ-অভিনেতা, বন্ধুদের সোশাল পোস্টই তার সাক্ষ্য বহন করছে। অত্যন্ত কাছের বান্ধবী আয়েন্দ্রী রায় আবেগী পোস্ট শেয়ার করেন পল্লবীকে নিয়ে। তালিকায় তাঁর সাম্প্রতিকতম ধারাবাহিকের সহ-অভিনেতা সাম ভট্টাচার্য এবং পল্লবীর প্রথম ধারাবাহিক আমি সিরাজের বেগম-এর সহ-অভিনেতা শন বন্দ্যোপাধ্যায়ও রয়েছেন।

পল্লবী দে পল্লবী দে

Pallavi Dey Death: কখনও তিনি লুতফার চরিত্রে দর্শকদের মন জয় করেছেন। কখনও গৌরীর চরিত্রে। বাংলা ধারাবাহিকের অভিনেত্রী পল্লবী দে-র আকস্মিক চলে যাওয়া কেউই মেনে নিতে পারছেন। সহ-অভিনেতা, বন্ধুদের সোশাল পোস্টই তার সাক্ষ্য বহন করছে। অত্যন্ত কাছের বান্ধবী আয়েন্দ্রী রায় আবেগী পোস্ট শেয়ার করেন পল্লবীকে নিয়ে। তালিকায় তাঁর সাম্প্রতিকতম ধারাবাহিকের সহ-অভিনেতা শ্যাম ভট্টাচার্য, সরস্বতীর প্রেম ধারাবাহিকের নায়ক অভিষেকবীর শর্মা এবং পল্লবীর প্রথম ধারাবাহিক আমি সিরাজের বেগম-এর সহ-অভিনেতা শন বন্দ্যোপাধ্যায়ও রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, আমি সিরাজের বেগমে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শন এবং পল্লবী। ধারাবাহিকে লুতফার চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। অভিনেত্রীকে নিয়ে স্মৃতিমেদুর শন। সোশাল মিডিয়া স্টোরিতে শেয়ার করলেন পল্লবীকে নিয়ে পোস্ট। লিখলেন, 'খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলে। যেখানেই থাকো ঈশ্বর তোমায় আশীর্বাদ করুন। শান্তিতে থেকো।'

একই ভাবে পল্লবীর অনস্ক্রিন স্বামী রুদ্র ওরফে শ্যাম ভট্টাচার্যও আবেগী পোস্ট করলেন তাঁকে নিয়ে। লিখলেন, 'আজকের ঘটনা ভাষায় বর্ণনা করার মতো শব্দ আমার জানা নেই। কারও অলীক কল্পনাতেও এমন ঘটনা হয়তো আসতে পারে না। এখনও এই পরিস্থিতি এবং ঘটনা আমি বিশ্বাস করতে পারছি না। গত ৩০০ দিন ধরে টানা যে মানুষটির সঙ্গে দেখা হয়েছে, যার সঙ্গে কথা বলেছি হেসেছি এবং বেশিরভাগ সময় ঝগড়া করেছি সে আর নেই। এটা অবাস্তব শোনালেও এটাই সত্যি। তুমি চিরকাল আমার প্রথম অনস্ক্রিন স্ত্রী থেকে যাবে। আর কেউ রুদ্র-র গৌরী হতে পারবে না যেমনটা তুমি ছিলে।'

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Abhishek Veer Sharma (@abhishekveer07)

একই ভাবে পল্লবীর আর এক ধারাবাহিকের নায়ক অভিষেকবীর শর্মাও ধারাবাহিকের একটি পুরনো ভিডিও শেয়ার করে পোস্ট শেয়ার করেন। তিনি লেখেন, 'এই ঘটনা আমায় ভেতর থেকে নাড়িয়ে দিয়েছে, যেখানে তুমি মৃত্যু জীবনের চেয়ে সহজ বলে মনে করেছ। আই উইশ আমি সব ঠিক করে দিতে পারতাম, কিন্তু পারিনি। তোমার সঙ্গে শুটিংয়ের সমস্ত স্মৃতি ভিড় করে আসছে। তুমি অসুস্থ হওয়ার সময় তোমার পাল্স চেক করেছিলাম। সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের জন্য তোমায় যে সব টিপস দিয়েছিলাম... সব মনে পড়ছে। তুমি চিরকার রোহিতের সরস্বতী হয়েই থাকবে। আমার একটা অংশ তোমার সঙ্গে চিরকালের মতো চলে গিয়েছে। যেখনেই থাকো খুশি থেকো।'