scorecardresearch
 

Mithai: হট প্যান্ট, শর্ট ড্রেসে 'মিঠাই'-র লেডিস গ্যাং! ওয়েস্টার্ন লুকে সকলকে দেখে কী বলছে ফ্যানেরা?

Mithai: ধারাবাহিকে মনোহরার সদস্যদের একে অপরের সঙ্গে রসায়ন, হল্লা পার্টির মজা সবটা দেখে অনেকেরই মনে হয়, বাস্তবে তার জীবনেও এমন হলে ভাল হত। সব মিলিয়ে বাঙালির 'সুখে দুখে মিষ্টি মুখে' সত্যিই রয়েছে 'মিঠাই'। 

'মিঠাই'-র লেডিস গ্যাং (ছবি: ইন্সটাগ্রাম) 'মিঠাই'-র লেডিস গ্যাং (ছবি: ইন্সটাগ্রাম)

এই মুহূর্তে বাংলার সেরা ধারাবাহিকগুলির (Bengali Serial) মধ্যে একটি হল 'মিঠাই' (Mithai)। সেই প্রমাণ মেলে গত কয়েক সপ্তাহের রেটিং চার্ট (TRP) দেখে। ধারাবাহিকে মনোহরার সদস্যদের একে অপরের সঙ্গে রসায়ন, হল্লা পার্টির মজা সবটা দেখে অনেকেরই মনে হয়, বাস্তবে তার জীবনেও এমন হলে ভাল হত। সব মিলিয়ে বাঙালির 'সুখে দুখে মিষ্টি মুখে' সত্যিই রয়েছে 'মিঠাই'। 

ল্লা পার্টির ছেলেদের বন্ধুত্ব শুধু অনস্ক্রিন না, অফস্ক্রিনও দারুণ। একথা বোধ হয় সকলের জানা। এমনকী সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেও প্রায়ই চোখে পড়ে একে অপরের সঙ্গে নানা খুনসুটির ঝলক। আর মহিলারা? মনোহরার গার্লস গ্রুপও বাস্তবে সব রকম বয়স নির্বিশেষে, একে অপরের বেশ ভাল বন্ধু। যদিও মেকআপ রুম আড্ডা থেকে সে আন্দাজ মেলে মাঝে মধ্যেই কিছুটা। সেটের বাইরেও তাঁরা চুটিয়ে মজা করেন। 

 

Mithai ladies group

আরও পড়ুন: মহিষাসুরমর্দিনী শুভশ্রী! দেবীর অন্যান্য রূপে থাকছেন মিঠাই, গৌরী, যমুনারা

গত সোমবার শ্যুটিংয়ের পরে একসঙ্গে রেস্তরাঁয় গিয়েছিলেন লেডিস গ্যাং। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ঠাম্মি -স্বাগতা বসু (Swagata Basu), পিসি - অর্পিতা মুখোপাধ্যায় (Arpita Mukherjee), মিঠাই - সৌমিতৃষা কুণ্ডু (Soumitrisha Kundoo), নীপা - ঐন্দ্রিলা সাহা (Oindrila Saha), নন্দা - কৌশম্বী চক্রবর্তী (Kaushambi Chakraborty) এবং তেস - তন্বী লাহা রায় (Tonni Laha Roy)। সকলেই রয়েছেন একেবারে ভিন্ন রূপে। স্বাগতা পরেছেন শর্ট কুর্তি-পাজামা, অর্পিতার পরনে সালোয়ার কামিজ। কৌশম্বী ও ঐন্দ্রিলা পরেছেন জিন্স- টপ, তন্বী টি-শার্ট এবং হট প্যান্ট এবং সৌমিতৃষা পরেছেন শর্ট ড্রেস। ছবি দেখেই বোঝা যাচ্ছে কাজের পরে চুটিয়ে মজা করেছেন সকলে। 

 

Mithai ladies group

সকলকে একই ফ্রেমে এবং অন্য রকম লুকে দেখে দারুণ খুশি 'মিঠাই'ফ্যানেরা। তারা ভালোবাসা ও প্রশংসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন কমেন্ট বক্স। ছবিগুলি শেয়ার করে স্বাগতা বসু লিখেছেন, "গত সোমবার আমাদের শ্যুটিংয়ের পর বৃষ্টির মধ্যেই যাদের ইচ্ছা হয়েছে, তারা নিজেদের টাকা খরচ করে, বিরিয়ানি খেয়ে এলাম,খুব মজা করলাম, আমাদের যার যা খেতে ইচ্ছা হল খেলাম,ইচ্ছা মত এনজয় করলাম। যাদের ইচ্ছা আর সুবিধা হয়েছে তারাই গেছে।"   

 

 

আরও পড়ুন: পুজোয় ইমন- নীলাঞ্জনের উপহার! মুক্তি পেল আগমনী গান 'অয়িগিরি নন্দিনী'

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ভাড়া বাড়িতে থাকার পরে, মনোহরাতে ফিরতে পেরেছে মোদক পরিবারের সদস্যরা। নিষ্ঠা করে রাধা- মাধবের পুজো দিয়ে গৃহে প্রবেশ করেছে সকলে। ফের আনন্দের পরিবেশ চারিদিকে। কিন্তু এখনও আসল অপরাধীরা ধরা পড়েনি। তাহলে কি ফের কোনও নতুন বিপদ আসবে সিড- মিঠাইয়ের জীবনে? গোপাল কীভাবে 'হেলেপ' করবে তাদের, সেটাই এবার দেখার।