scorecardresearch
 

Exclusive: সম্পর্কের জটিল রসায়ন! নতুন ও পুরনো প্রেম নিয়ে আসছে 'এই আমি রেণু'

আগামী ৯ এপ্রিল প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে সমরেশ মজুমদারের উপন্যাস অবলম্বনে ছবি 'এই আমি রেণু' (Ei Ami Renu)। এই ছবির পরিচালনা করেছেন সৌমেন সুর এবং অভিনয় করেছেন সোহিনী সরকার, সোহম চক্রবর্তী, গৌরব চক্রবর্তী, কৌশিক গাঙ্গুলী ও অন্যান্যরা।

'এই আমি রেণু' -ছবিতে গৌরব, সোহিনী, সোহম 'এই আমি রেণু' -ছবিতে গৌরব, সোহিনী, সোহম
হাইলাইটস
  • আগামী ৯ এপ্রিল প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে 'এই আমি রেণু'।
  • ছবিতে মুখ্য চরিত্রে সোহিনী, গৌরব , সোহম।
  • 'এই আমি রেণু'-তে খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় হল 'চিঠি'।

সম্পর্ক' বড়ই জটিল। আর সেই সঙ্গে জীবন কখন কোন দিকে মোড় নেয় তা কেউ বলতে পারে না। আর অতীত এবং বর্তমান যখন এসে দাঁড়ায় বাস্তব জীবনে, তখন অনেক হিসেব গুলিয়ে যায়। রেণুর জীবনও অনেকটা সেরকমই.... 

সমরেশ মজুমদারের (Samaresh Majumdar) উপন্যাস অবলম্বনে ছবি 'এই আমি রেণু' (Ei Ami Renu) পরিচালনা করেছেন সৌমেন সুর (Saumen Sur)। ছবিতে একসঙ্গে দেখা যাবে সোহিনী সরকার (Sohini Sarkar), সোহম চক্রবর্তী  (Soham Chakraborty) ও গৌরব চক্রবর্তীকে (Gourav Chakrabarty)। একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন পরিচালক - অভিনেতা কৌশিক গাঙ্গুলী (Kaushik Ganguly)। এছাড়াও অভিনয় করেছেন অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় (Anindya Chatterjee),অলিভিয়া সরকার (Alivia Sarkar) ও অন্যান্যরা। আগামী ৯ এপ্রিল প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে এই ছবি। তার আগে আজতক বাংলার সঙ্গে এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে কথা বললেন, সোহিনী, গৌরব ও সৌমেন।    

Ei Ami Renu behind the scenes picture

৮০-র দর্শক উঠে আসবে এই 'এই আমি রেণু'-র প্রতিটা দৃশ্যে। পিছনে থাকবে পুরাতন কলকাতার প্রেক্ষাপট। একজন উচ্চপদস্থ সরকারী কর্মচারীর ভূমিকায় দেখা যাবে সোহমকে। তাঁর স্ত্রীয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন সোহিনী। অন্যদিকে গৌরব তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক। সেই অতীতকে ফেলে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন রেণু ওরফে সোহিনী। কিন্তু বারবারই ফ্ল্যাশব্যাকে আসে তাঁর জীবনের পুরনো অধ্যায়। বিয়ের পরও যা বারবার ধাওয়া করে বেড়ায়। হয়তো শেষ হয়েও সে সম্পর্ক শেষ হয়নি। ছবিতে খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় হল 'চিঠি'। যা সামাজিক মাধ্যমের যুগে এখন প্রায় উঠেই গেছে। 

Ei Ami Renu behind the scenes picture

ছবির সম্পূর্ণ অভিজ্ঞতা জানালেন অভিনেত্রী সোহিনী সরকার। তাঁর কথায়, "একটা ছবিতে কাজ করতে গিয়ে টক মিষ্টি ঝাল সব রকম অভিজ্ঞতা হয়। এই ছবিটাও তার ব্যতিক্রম না। দীর্ঘদিন ধরে 'এই আমি রেণু'-র শ্যুট করেছি আমরা। কারণ যখন প্রায় ৬০ শতাংশ কাজ হয়ে যাওয়ার পর লকডাউন ঘোষণা হয়। বাকিটা, পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার পর করি। অনেক কিছুর পরিবর্তন ঘটে। সব মিলিয়ে বলতে গেলে ভাল অভিজ্ঞতা। চিঠি একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে ছবিতে।" সোহিনী লাভ লেটার লিখেছেন? এই প্রশ্নে নায়িকার উত্তর, " হ্যাঁ আমি লাভ লেটার লিখেছি। এখনও লিখি, লকডাউনেও লিখেছি, পাশে বসেই দুজন দুজনকে চিঠি লিখেছি। আমার স্ক্রিপ্ট পরার ক্ষেত্রেও হার্ড কপি পড়তে বেশি ভাল লাগে।" ছবির বিষয়ে নায়িকা যোগ করলেন, "কোভিড পরিস্থিতির ফলে কী হবে জানি না, তবে দর্শকেরা হলমুখী হলে সত্যি খুব ভাল লাগবে।"

Ei Ami Renu behind the scenes picture

গৌরব জানালেন, "অনেক দিন পরে আমার একটা প্রেমের ছবি আসছে। তার মধ্যে যারা সমরেশ মজুমদারের গল্পটা পড়েছেন, তাঁরা ভীষণভাবে উৎসুক হয়ে আছেন। আশা করি সকলের ভালই লাগবে। তবে এমন একটা সময়ে ছবিটা রিলিজ করছে, যখন কোভিড আবার ফিরে এসেছে। এটা একটা চিন্তার বিষয় আমাদের সকলের জন্যই। আশা করবো দর্শকেরা আমাদের পাশে থাকবেন।" চিঠি লেখা প্রসঙ্গে গৌরব বললেন," অবশ্যই চিঠি লিখেছি। একটা সময় তো চিঠিই লিখতে হতো। এমনকি বড়দের বিজয়ার প্রণাম জানাতে, নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাতে ছোটবেলায় লিখেছি। খুব মিস করি চিঠি লেখা, কিন্তু এখন তো হাতে কিছু লেখাই হয় না।" 

Ei Ami Renu behind the scenes picture

'এই আমি রেণু'- ছবির গানের কথা লিখেছেন ও সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্ব সামলেছেন রানা মজুমদার। ছবির স্ক্রিপ্ট ও চিত্রনাট্য লিখেছেন পদ্মনাভ দাসগুপ্ত এবং চিত্রগ্রহণ গোপি ভগতের। ছবির গানগুলি গেয়েছেন অরিজিৎ সিং, শ্রেয়া ঘোষাল, কৈলাশ খের, মোনালি ঠাকুর এবং অ্যাশ কিং। 

Ei Ami Renu behind the scenes picture

পরিচালক সৌমেন সুর দীর্ঘদিন ইন্ডাস্ট্রিতে থাকলেও ছবি পরিচালনায় এটাই তাঁর হাতেখড়ি। তিনি জানালেন, "সমস্ত শিল্পীরা খুব ভাল কাজ করেছেন। এই পরিস্থিতিতে পুরো কাজটা শেষ করতে হয়েছে, তাই সকলেই যথেষ্ট রকম সহযোগিতা করেছেন। এরকম একটা মাস্টারপিস থেকে যখন ছবি বানাচ্ছি, একটা চাপ এমনিতেই থাকে যে, মূল গল্পটার সঙ্গে কতটা ন্যয় করতে পারলাম। ছবিতে যেই সময়কাল তুলে ধরা হয়েছে, তখন প্রেম করা, চিঠি লেখা মানে একটা বড় ব্যপার। সেই সঙ্গে সামাজিক পরিস্থিতিটাই অনেকটাই ভিন্ন ছিল। অনেক ছোট ছোট জিনিস তুলে ধরার চেষ্টা করেছি এই ছবিতে, যাতে একটু পুরনো দিনের বিষয়টা মানুষ উপভোগ করতে পারেন।" 

কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে দর্শকদের সিনেমা হলে আসা নিয়ে কিছুটা চিন্তিত সৌমেন। তিনি বললেন। "খুবই চিন্তায় আছি এটা নিয়ে। কিন্তু কোভিডের জন্য যে মানুষ হলে যাচ্ছে না শুধু, তা কিন্তু নয়। যে কোনও শপিং মলে, হাটে- বাজারে ভর্তি লোক। এই ৮-৯ মাস বাড়িতে বসে ডিজিটাল মাধ্যমে ছবি দেখে তাঁদের অনেকেই একটা ধারণা হচ্ছে, দুদিন পরে ছবিটা বাড়িতে বসে ফোনেই দেখতে পাবো। এটা যেমন ভাল, সেরকম ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে খুব বড় আঘাত করেছে।"

Ei Ami Renu behind the scenes picture

অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী এই মুহূর্তে ব্যস্ত নির্বাচনী প্রচারে এবং প্রোটোকলের জন্যই তিনি কোনও ছবির প্রচারেও থাকতে পারছেন না। সোহিনী সরকার এপ্রিলেই শ্যুটিং শুরু করবেন কৌশিক গাঙ্গুলীর 'কাবাড্ডি কাবাড্ডি'। এছাড়াও অনির্বাণ ভট্টাচার্যের পরিচালনায় 'মন্দার' ও আরও একটা ওয়েব সিরিজের শ্যুট শেষ করেছেন তিনি ইতিমধ্যে। দুটো ওয়েব সিরিজের মধ্যে একটার ডাবিং বাকি। অন্যদিকে, গৌরব চক্রবর্তী অভিনীত 'ফ্লাইওভার' গত সপ্তাহে মুক্তি পেয়েছে। এছাড়াও সায়ন্তন ঘোষালের পরিচালনায় 'টেনি দা অ্যান্ড কোম্পানি', 'স্বস্তিক সংকেত' মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তাঁর। সেই সঙ্গে ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তের 'বিসমিল্লাহ', রাজর্ষি দে-র 'আবার কাঞ্চনজঙ্ঘা', পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে 'শটকার্ট'- এই ছবিগুলি পাইপলাইনে রয়েছে গৌরবের।