scorecardresearch
 
 

"ক্ষতিপূরণ নয়, COVID ম্যানেজমেন্ট অগ্রাধিকার", SC-কে জানাল কেন্দ্র

সোমবার কেন্দ্রের তরফে জানান হয়েছে, অর্থ রয়েছে, কিন্তু "ক্ষতিপূরণ অগ্রাধিকার নয়।" কেন্দ্র জানায়, "অর্থ রয়েছে, কিন্তু তা কোভিড ম্যানেজমেন্ট ও স্বাস্থ্যব্যবস্থা উন্নতিতে ব্যবহার করা হচ্ছে। ক্ষতিপূরণ অগ্রাধিকার নয়।"

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • "অর্থ আছে, কিন্তু স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নতিতে ব্যবহার হচ্ছে"
  • "ক্ষতিপূরণ অগ্রাধিকার নয়"
  • শীর্ষ আদালতে জানালো কেন্দ্র

কোভিডে যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের চেয়ে কোভিড ম্যানেজমেন্টে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে এমনটাই জানাল কেন্দ্র। সোমবার কেন্দ্রের তরফে জানান হয়েছে, অর্থ রয়েছে, কিন্তু "ক্ষতিপূরণ অগ্রাধিকার নয়।" কেন্দ্র জানায়, "অর্থ রয়েছে, কিন্তু তা কোভিড ম্যানেজমেন্ট ও স্বাস্থ্যব্যবস্থা উন্নতিতে ব্যবহার করা হচ্ছে। ক্ষতিপূরণ অগ্রাধিকার নয়।"

করোনায় মৃতদের ডেথ সার্টিফিকেট পাওয়ার নিয়ম সরলীকরণ করার কথা এদিন কেন্দ্রকে বলে সুপ্রিম কোর্ট। ডেথ সার্টিফিকেট প্রদান সংক্রান্ত অপর একটি মামলার শুনানিতে এদিন এই কথা বলে শীর্ষ আদালত। এদিন সুপ্রিম কোর্ট প্রশ্ন তোলে, "গাইডলাইন কি সরল করা যায় না? যাঁরা ইতিমধ্যেই মারা গিয়েছেন, কিন্তু সার্টিফিকেটে কোভিড দেখা যাচ্ছে না তাঁদের বিষয়ে কী হবে? গাইডলাইন জারি করার সময় বাস্তবতাও বিবেচনা করা দরকার। ডেথ সার্টিফিকেটগুলি সংশোধন করা উচিত।"

আরও বলা হয়েছে, "যদি গাইডলাইন সরল করা না হয় তবে প্রকল্পের উদ্দেশ্যটাই শেষ হয়ে যাবে। দেশে নৈতিকতা চলে গিয়েছে। মানুষ কালোবাজারিতে লিপ্ত। তাই যাতে ভুল ব্যাখ্যা না হয় তাই গাইডলাইনের সরলীকরণ করতেই হবে।" 

এদিকে কেন্দ্রের তরফে সুপ্রিম কোর্টে বলা হয়েছে, ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া সম্ভব নয়। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারগুলি অত্যন্ত আর্থিক চাপের মধ্যে রয়েছে। প্রসঙ্গত গত ২৪ মে কোভিডে মৃতদের পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে হওয়া দুটি মামলায় কেন্দ্রের জাবাব চেয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।