scorecardresearch
 

Durga Puja 2021 : পুজোয় বার খুলে রাখা যাবে অতিরিক্ত সময়েও, নির্দেশিকা রাজ্য়ের

Durga Puja 2021: শনিবার এক নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার। সেখানে বলা হয়েছে, নয়া বিধি কাল, রবিবার (১০ অক্টোবর) থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সব দোকান, রেস্তারাঁ, বার আগের মতো খোলা রাখা যাবে।

উৎসবে রাজ্যের নয়া নির্দেশিকা। ছবি: রাজেশ সাহা উৎসবে রাজ্যের নয়া নির্দেশিকা। ছবি: রাজেশ সাহা
হাইলাইটস
  • উৎসবের কথা মাথায় রেখে নয়া কোভিড বিধি ঘোষণা করল রাজ্য সরকার
  • ঠিক হয়েছে, সব দোকান, রেস্তারাঁ, বার খোলা রাখা যাবে সাধারণ সময়ের জন্য

Durga Puja 2021: উৎসবের কথা মাথায় রেখে নয়া কোভিড বিধি ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। ঠিক হয়েছে, সব দোকান, রেস্তারাঁ, বার খোলা রাখা যাবে সাধারণ সময়ের জন্য। বার খুলে রাখা যাবে বাড়তি সময়ের জন্যও।

সীমিত সময়ের জন্য
তবে এই নির্দেশিকা সীমিত সময়ের জন্য। শনিবার এক নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার। সেখানে বলা হয়েছে, নয়া বিধি কাল, রবিবার (১০ অক্টোবর) থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সব দোকান, রেস্তারাঁ, বার আগের মতো খোলা রাখা যাবে।

corona mamata banerjee tmc

এবারও রাজ্যে কোভিডবিধি মেনে পুজো হবে তা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই অনুযায়ী পুজো কমিটিগুলি প্রস্তুতি নিতেও শুরু করে দিয়েছে। তবে রাতে ঠাকুর দেখা যাবে কিনা সেই নিয়ে সিদ্ধান্ত উপনির্বাচনের পর নেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

ভোট মিটতেই এই সম্পর্কে এবার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল রাজ্য সরকার। তাতে করোনা বিধিনিষেধের মেয়াদ আরও একমাস বাড়ান হয়েছে। তবে ১০ থেকে ২০ অক্টোবর লক্ষ্মী পুজোর দিন পর্যন্ত রাত ১১টা থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত নাইট কার্ফু তুলে নেওয়ার কথা জানান হয়েছে।

রাজ্য সরকারের বিজ্ঞপ্তি
৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্যে এতদিন করোনা বিধি জারি ছিল। ফলত ওইদিনই ছিল শেষদিন। ৩০ সেপ্টেম্বর বিকেলে নবান্নের তরফে নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। যাতে বলা হয় ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত পূর্বে জারি করা বিধি বলবৎ থাকবে। তবে ১০ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ছাড় মিলবে রাতের কড়াকড়িতে। তারপর আবার আগের নিয়েমই ফিরে যাওয়া হবে। 

লোকাল ট্রেন নিয়ে নীরব রাজ্য
শহরে মেট্রো চালু হলেও আম জনতার জন্য লোকাল ট্রেন এখনও চলতে শুরু করেনি। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এবার কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে আশা ছিল সাধারণ মানুষের। তবে নবান্নের তরফে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে লোকাল ট্রেন চালান নিয়ে কোনও কিছু উল্লেখ করা হয়নি। ফলে পেট্রলিং স্পেশাল লোকাল ছাড়া আর কিছু পুজোর সময় চলবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

মাস্ক পরা ও ভিড় এড়িয়ে চলা
গত বছর পুজোর আগে রাজ্য সরকার একটি নির্দেশিকা জারি করে। সেখানে বলা হয়, খোলামেলা প্যান্ডেল করতে হবে। প্যান্ডেল চত্বরে রাখতে হবে মাস্ক ও স্যানিটাইজার। এ বছর সেই নিয়ম বলবৎ রেখেছে রাজ্য সরকার।

তার সঙ্গে নাবন্নের বিজ্ঞপ্তিতে মাস্ক পরা ও ভিড় এড়িয়ে চলার বিষয়গুলি মেনে চলার উল্লেখ রয়েছে আগামী এক মাস।  এগারো টিন নাইট কার্ফু তুবে নেওয়া  ছাড়া আর কোনও ছাড়ের ঘোষণা নেই বুধবারের বিজ্ঞপ্তিতে। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন ও পুলিশকে করোনা বিধিনিষেধ পালন নিশ্চিত করতে কড়া পদক্ষেপ করারও নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন।

পুজোয় কীভাবে ভিড় নিয়ন্ত্রণ
করোনা আবহে বারোয়ারি পুজোতে জমায়েত এড়ানো নিয়ে  জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল  গতবার। সেই  জনস্বার্থ মামলায় গুরুত্বপূর্ণ রায় দেয় কলকাতা হাইকোর্ট ৷ রাজ্যের ছোট-বড় সমস্ত পুজো মণ্ডপই ‘নো এন্ট্রি বাফার জোন’ রাখতে হবে বলা হয়েছিল৷

প্যান্ডেল এরিয়ায় থাকবে বাফার জোন ৷ মণ্ডপে শুধু ঢুকতে পারবেন পুজো উদ্যোক্তারাই ৷ পুজোর ভিড়ে করোনা সংক্রমণে বিস্ফোরণের আশঙ্কায় ঐতিহাসিক রায় দিয়েছিলেন বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

এবারও ইতিমধ্যে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা হয়েছে। কোভিডের তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা থেকে ভিড় নিয়ন্ত্রণে গতবারের বিধি কার্যকরের আর্জি সেখানে জানানো হয়েছে।