scorecardresearch
 

লন্ডনে জমি বেচার নামে প্রতারণা, ৬০ লক্ষ হারিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ যুবক

লন্ডনে জমি বেচার নামে প্রতারণা। অভিনব প্রতারণার ফাঁসে পড়ে সর্বস্বান্ত উত্তরপ্রদেশের যুবক। অবশেষে পুলিশে অভিযোগ করা হয়েছে। তারপর কী হল ?

ধৃত প্রতারকরা ধৃত প্রতারকরা
হাইলাইটস
  • লন্ডনে জমি বেচার নামে প্রতারণা
  • ৬০ লক্ষ টাকার প্রতারণা
  • গ্রেফতার তিনজন দুষ্কৃতী

লন্ডনে জমি বিক্রি, অভিযোগ

লন্ডনে জমি বিক্রি করার নাম করে ৬০ লক্ষ টাকা প্রতারণা করে অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল তিন দুষ্কৃতী। মজার কথা তিনজনই অষ্টম শ্রেণী পাস। অথচ স্বপ্নে ভরা লন্ডনে জমি বিক্রির কারবার ফেঁদে বসেছিল তারা।

তিন প্রতারক গ্রেফতার

সাইবার ক্রাইম টিম অভিযোগের ভিত্তিতে তিন প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, তাদের নাম আফিলউদ্দিন, অনিস আহমেদ এবং আসলাম খান। তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে জানা গিয়েছে তারা 60 লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছেন।

সাইবার টিম অনলাইন প্রতারকদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে

সাইবার ক্রাইম টিম অনলাইন প্রতারকদের বিরুদ্ধে করা তদন্ত শুরু করেছে। কোথাও কোনও রকম অভিযোগ পেলেই তার বিরুদ্ধে লম্বা তদন্ত করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করার প্রক্রিয়া চালু করেছে। বেশ কিছু জায়গায় এমন ঘটনা ঘটার পর, লন্ডনে জমি বিক্রির এই প্রতারণা চক্র সামনে আসে। তারপর এই অভিযান চালিয়ে উত্তর প্রদেশে পুলিশের তিন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করে।

প্রতারকদের অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ

জানা গিয়েছে অভিযুক্তরা লন্ডনে সাড়ে ১২ মিলিয়ন পাউন্ডের জমি বিক্রি করার নাম করে প্রতারণা করেছিল।নয়ডা থানার সেক্টর ৩৬ সাইবারক্রাইম পুলিশ লন্ডনে কোটি টাকার জমি দেওয়ার নাম করে ৬০ লাখ টাকা প্রতারণা করার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করে। পুলিশ অভিযুক্ত এর কাছ থেকে তিনটি ডেবিট কার্ড, সঙ্গে অন্যান্য বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করে উদ্ধার করে। তাদের মোবাইল ফোনগুলিও বাজেয়াপ্ত করা হয়। তাদের বিভিন্ন ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যার মধ্যে ১৩ লক্ষ টাকা থাকা অবস্থায় অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করে দেওয়া হয়েছে পুলিশের তরফে।

সাড়ে ১২ মিলিয়ন পাউন্ডের লোভে সর্বস্বান্ত

পুলিশ জানিয়েছে এলাকার গৌড় শহর নিবাসী এক তরুণ একই অভিযোগ করেন, যে তাঁর ইমেলে ইউনাইটেড কিংডম এডভোকেট জেনারেলে নামে একটি মেল আসে। যেখানে তাকে বলা হয়, তার নামে এক ব্যক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়ে গিয়েছে। সপরিবার প্রতারকদের পাঠানো মেলে জানানো হয়, তরুণকে মৃতব্যক্তির নমিনি বানিয়ে দেবেন। যার মধ্যে মৃত ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সাড়ে ১২ মিলিয়ন পাউন্ড আছে। যা তরুণকে তার অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার করে দেওয়া হবে। যার বদলে ৫০ শতাংশ দিয়ে দিতে হবে।

একাধিক মেলে বিশ্বাস অর্জন

এরপর অভিযোগকারী তরুণ এর কাছে ইউনাইটেড কিংডম এর একটি ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টের সম্পর্কিত একটি মেল আসে। তাতে ফর্ম ফিলআপ করতে বলা হয়। এরপর তাঁর টাকা মুম্বই আরবিআইয়ে ট্রান্সফার করা হয়েছে বলে জানানো হয়। তৈকে ওই প্রতারকরা জানান তাঁকে ৬০ লক্ষ টাকা রেজিস্ট্রি বাবদ জনা করতে হবে। এরপরে তরুণ টাকা জমা করার পর খোঁজ করে জানতে পারেন, তাঁর অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকেনি।

পুলিশ তদন্তে নেমে তিনজনকে গ্রেফতার করে

এরপর প্রতারকরা তরুণকে লন্ডনের জমি রেজিস্ট্রি করানোর জন্য এবং বিদেশি কারেন্সি বদলানোর জন্য কাস্টম ডিউটি নামে ২৫ টি ব্যাংকের একাউন্টে প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা জমা করে দেন।এরপর পুলিশে অভিযোগ জানানো হয়। পুলিশ অভিযোগের তদন্তে নেমে তিনজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।