scorecardresearch
 

Texas Shootout Case: 'ঠাকুমাকে গুলি করলাম, এবার স্কুলে,' টেক্সাসের বন্দুকবাজ কাকে টেক্সট করেছিল?

'ঠাকুমাকে গুলি করলাম, এবার স্কুলে,' টেক্সাসের বন্দুকবাজ কাকে টেক্সট করেছিল? দানা বাঁধছে রহস্য।

গুলি করার আগে আততায়ীর মেসেজ গুলি করার আগে আততায়ীর মেসেজ
হাইলাইটস
  • 'ঠাকুমাকে গুলি করলাম,
  • এবার স্কুলে,' টেক্সাসের বন্দুকবাজের টেক্সট
  • কাকে টেক্সট করেছিল সে?

আমেরিকার টেক্সাসের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৯ টি শিশু এবং দুজন প্রাপ্তবয়স্ককে গুলি করে হত্যা করে এক যুবক। তার পনেরো মিনিট আগে, ১৮ বছর বয়সী আততায়ী সালভাদর রামোস, ফেসবুকে তার 'পরিকল্পনা' সম্পর্কে একজন অপরিচিত ব্যক্তিকে তিনটি পার্সোনাল টেক্সট পাঠিয়েছিলেন। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট বলেছিলেন যে, তিনি হামলার আগে তিনবার পোস্ট করেছিলেন। কিন্তু ফেসবুক পরে স্পষ্ট করে যে তিনি ব্যক্তিগত বার্তা পাঠিয়েছিলেন, পোস্ট নয় -- যার বৃহত্তর দর্শক রয়েছে।

নারকীয় হত্যাকাণ্ডের ৩০ মিনিট আগে, তার প্রথম বার্তায়, তিনি বলেছিলেন যে তিনি তাঁর ঠাকুরমাকে গুলি করবেন। তার দ্বিতীয় বার্তাটি বলেছিল, "আমি আমার ঠাকুমাকে গুলি করেছি।" এবং তৃতীয়টি, আক্রমণের ১৫ মিনিট আগে পাঠানো হয়েছিল। তাতে লেখা ছিল, "আমি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গুলি করতে যাচ্ছি।"  তবে কেন তিনি এমন কাজ করে বেড়াচ্ছেন, তা নিয়ে কোনও কারণ সে জানায়নি কোনও মেসেজেই। বার্তাগুলি কাদের পাঠানো হয়েছে তাও স্পষ্ট নয়।

হামলার কয়েক ঘণ্টা আগে তিনি একজন অপরিচিত ব্যক্তিকে ইনস্টাগ্রাম বার্তাও পাঠান। তিনি ইনস্টাগ্রামে একজন অপরিচিত ব্যক্তির কাছে একটি রহস্যময় বার্তা পাঠিয়েছিলেন, 'আমি আসতে চলেছি'। তিনি "salv8dor_" ব্যবহারকারীর নাম দিয়ে একটি অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করছিলেন, যেটি শ্যুটার সালভাদর রামোস হিসাবে চিহ্নিত হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।

ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট, যা ওই শুটারের বলে মনে করা হয়। তাতে আগ্নেয়াস্ত্রের ছবি এবং নিজের একটি আয়না সেলফি রয়েছে। অ্যাকাউন্টটি দুটি রাইফেলের একটি ছবিও শেয়ার করেছে এবং পোস্টে অন্য একজনকে ট্যাগ করেছে।

ব্যবহারকারী, @epnupues, বলেছেন তিনি রামোসকে একেবারেই চেনেন না। তিনি তাকে বন্দুকের ছবিতে ট্যাগ করেছেন এবং বার্তা দিয়েছেন যে তিনি "একটি গোপন রহস্য খুঁজে পেয়েছেন"। ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন। কেন তিনি তাকে রাইফেলের ছবিতে ট্যাগ করেছেন। তাতে তিনি যে ভয় পেয়েছিলেন।