scorecardresearch
 

সিভিক ভলান্টিয়ার-নাইট গার্ডদের বেঁধে পায়ের সামনে বোমার বস্তা, অশোকনগরে দুঃসাহসিক ডাকাতি

ধবার রাতে লুঠপাটের উদ্দেশ্যে এলাকায় হানা দেয় কমপক্ষে ১৫ জনের একটি দুষ্কৃতী হল। তাদের সঙ্গে বোমাও ছিল। দুটি সোনার দোকানকে টার্গেট করে দুষ্কৃতীরা। এরপর প্রায় লক্ষাধিক টাকার গয়না লুঠ করে। দোকানগুলির সিসিটিভও (CCTV) খুলে নেয়। এরপর পালানোর আগে  ২ জন সিভিক ভলান্টিয়ার ও বাজার কমিটির ৩ নৈশরক্ষীকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলে। তারপর তাঁদের পায়ের সামনে বোমার বস্তা রেখে দেয় দুষ্কৃতীরা।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • অশোকনগরে দুঃসাহসিক ডাকাতি
  • খুলে নেওয়া হল সিসিটিভি
  • তদন্ত শুরু পুলিশের

সিভিক ভলান্টিয়ার ও নৈশরক্ষীদের দড়ি দিয়ে বেঁধে দুঃসাহসিক ডাকাতি। সামনে বোমার বস্তা রেখে লুঠপাট চালানো হল দুটি সোনার দোকানে। ঘটনাস্থল উত্তর ২৪ পরগনার (North 24 Parganas) অশোকনগর (Ashok Nagar) থানার শ্রীকৃষ্ণপুর পঞ্চায়েত লাগোয়া নুরপুর বাজার এলাকা। ঘটনার জেরে ব্যাপক আতঙ্কে স্থানীয়রা।

অভিযোগ, বুধবার রাতে লুঠপাটের উদ্দেশ্যে এলাকায় হানা দেয় কমপক্ষে ১৫ জনের একটি দুষ্কৃতী হল। তাদের সঙ্গে বোমাও ছিল। দুটি সোনার দোকানকে টার্গেট করে দুষ্কৃতীরা। এরপর প্রায় লক্ষাধিক টাকার গয়না লুঠ করে। দোকানগুলির সিসিটিভও (CCTV) খুলে নেয়। এরপর পালানোর আগে  ২ জন সিভিক ভলান্টিয়ার ও বাজার কমিটির ৩ নৈশরক্ষীকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলে। তারপর তাঁদের পায়ের সামনে বোমার বস্তা রেখে দেয় দুষ্কৃতীরা।

এই ঘটনা জানাজানি হতেই ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে। এলাকার ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, দুষ্কৃতীরা যে ভাবে লুঠপাট চলেছে তা অন্তত গত ১০-১৫ বছরের মধ্যে তাঁরা দেখেননি। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় অশোকনগর থানার পুলিশ। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব অবশ্য উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় নতুন ঘটনা নয়। এর আগে, খড়দার (Khardaha) পুরানিবাজারে তোলা না পেয়ে ব্যবসায়ীদের এলোপাথাড়ি কোপানোর অভিযোগ ওঠে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ধারাল অস্ত্রের কোপে আহত হন ৪ থেকে ৫ জন ব্যবসায়ী। প্রতিবাদে দোকানও বন্ধ রেখেছিলেন ব্যবসায়ীরা। সেক্ষেত্রে বারেবারেই এই ধরনের দুষ্কৃতী কার্যকলাপে জেলার পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন কেউ কেউ।

আরও পড়ুন'হাল্ক' হতে চেয়ে ইনজেকশন নিতেন এই বডি বিল্ডার, জন্মদিনেই হল মৃত্যু