scorecardresearch
 

Bihar Train Engine Theft: টানেল খুঁড়ে ট্রেনের ইঞ্জিন চুরি করে বেচে দিল, বিহারের চোরদের 'বিস্ময়' কীর্তি

Bihar Train Engine Theft: গত সপ্তাহে, বিহারের বেগুসরাই জেলার গড়হারা ইয়ার্ড থেকে চোরের একটি দল একটি ট্রেনের পুরো ডিজেল ইঞ্জিন চুরি করে। পরে, পুলিশ মুজাফফরপুরের প্রভাত কলোনিতে অবস্থিত একটি স্ক্র্যাপ গোডাউন থেকে ১৩ বস্তা রেল ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশ উদ্ধার করে। এর জন্য একটি বিশাল সুরঙ্গ খোঁড়ে চোরের দল।

বেগুসরাই জেলা থেকে রেলের ইঞ্জিন চুরি। বেগুসরাই জেলা থেকে রেলের ইঞ্জিন চুরি।
হাইলাইটস
  • গত সপ্তাহে, বিহারের বেগুসরাই জেলার গড়হারা ইয়ার্ড থেকে চোরের একটি দল একটি ট্রেনের পুরো ডিজেল ইঞ্জিন চুরি করে।
  • এর জন্য একটি বিশাল সুরঙ্গ খোঁড়ে চোরের দল।

Bihar Train Engine Theft: এর আগেও বিহারে ব্রিজ, রেল ইঞ্জিন চুরির ঘটনা সামনে এসেছে। কিন্তু এ বার যে কাণ্ড ঘটেছে তা আগেরগুলির চেয়ে একেবারেই আলাদা এবং দুঃসাহসী। এখানে চোরেরা চুরির জন্য বারাউনি থেকে মুজাফফরপুর পর্যন্ত একটি বিশাল সুড়ঙ্গ কেটেছিল। এ ঘটনা জানতে পেরে পুলিশও নড়েচড়ে বসে। এই প্রসঙ্গে, পুলিশ বৃহস্পতিবার বলেছে যে ডাকাতদের দল বিহারে ডিজেল এবং পুরানো ট্রেনের ইঞ্জিন উড়িয়ে চুরি করছে এবং স্টিলের ব্রিজ ভেঙে টুকরো টুকরো করে বিক্রি করে দিচ্ছে। বিহারে বাড়তে থাকা এই ধরনের চুরি-ডাকাতির ঘটনায় ঘুম উড়েছে প্রশাসনের।

গত সপ্তাহে, চোরের একটি দল একটি ট্রেনের পুরো ডিজেল ইঞ্জিন চুরি করে যা বিহারের বেগুসরাই জেলার গড়হারা ইয়ার্ডে মেরামতের জন্য আনা একটি ট্রেনের পুরো ডিজেল ইঞ্জিনটি চুরি করেছে একটি দল। পুলিশ জানিয়েছে, মুজাফফরপুরের একটি স্ক্র্যাপের দোকান থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যাগটি ট্রেনের ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশে ভরা ছিল।

এ বিষয়ে প্রথম খবর পেয়ে পুলিশ তিনজনকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদের সময় তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের পরে, পুলিশ মুজাফফরপুরের প্রভাত কলোনিতে অবস্থিত একটি স্ক্র্যাপ গোডাউন থেকে ১৩ বস্তা রেল ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশ উদ্ধার করে। একজন ঊর্ধ্বতন পুলিশকর্তা বলেন, 'আরও আশ্চর্যের বিষয় হল আমরা ইয়ার্ডের কাছে একটি সুড়ঙ্গ খুঁজে পেয়েছি, যেখান দিয়ে চোরেরা এসে ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশ চুরি করত আর ব্যাগে ভরে নিয়ে যেত।

এর আগে পূর্ণিয়া জেলায়, যেখানে চোরেরা একটি সম্পূর্ণ ভিনটেজ মিটার গেজ স্টিম ইঞ্জিন বিক্রি করে দিয়েছিল, যা স্থানীয় রেলওয়ে স্টেশনে জনসাধারণের প্রদর্শনের জন্য ছিল। রেলওয়ে সমস্তিপুর ডিভিশনের ডিভিশনাল মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের জারি করা একটি জাল চিঠির ভিত্তিতে ক্লাসিক স্টিম ইঞ্জিন বিক্রি করেছিল চোরেরা।

এর আগে ফোর্বসগঞ্জ থেকে রানীগঞ্জ সংযোগকারী পল্টনিয়া সেতু থেকে ব্রিজের কিছু লোহার অ্যাঙ্গেল ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ চুরির ঘটনাও ধরা পড়ে। ফোর্বসগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্তা বৃহস্পতিবার জানান যে, ওই সেতুটি পাহারা দেওয়ার জন্য একজন কনস্টেবল মোতায়েন করা হয়েছে, যাতে এটি নিরাপদ থাকে। পুলিশ লোহার সেতুর অংশবিশেষ চুরির অভিযোগে ইতিমধ্যেই মামলা করে তদন্ত চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের এপ্রিলে দিনে দিনে প্রায় ৫০০ টন ওজনের ৪৫ বছরের পুরনো একটি স্টিলের ব্রিজ ভেঙে বিক্রি করে, যার সঙ্গে সেচ দফতরের আধিকারিকরা জড়িত বলে অভিযোগ। পরে এ মামলায় পানি সম্পদ অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলীসহ ৮ জনকে আটক করে পুলিশ।

 
; ; ;