scorecardresearch
 
 

Global Hunger Index : বাড়ল উদ্বেগ! বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে পাকিস্তান-নেপালের থেকেও পিছিয়ে ভারত

Global Hunger Index: ভারতের করুণ ছবি ধরা পড়েছে। ১১৬টি দেশের মধ্যে ভারতের জায়গা ১০১তম। ২০২০ সালে সেই সূচকে ভারতের জায়গা ছিল ৯৪তম। তখন সেখানে ছিল ১০৭টি দেশ।

ভারতে খিদের জ্বালা বাড়ছে (প্রতীকী ছবি) ভারতে খিদের জ্বালা বাড়ছে (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • প্রকাশিত হয়েছে বিশ্ব ক্ষুধা সূচক বা গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স
  • সেখানে ভারতের করুণ ছবি ধরা পড়েছে
  • ১১৬টি দেশের মধ্যে ভারতের জায়গা ১০১তম

Global Hunger Index: প্রকাশিত হয়েছে বিশ্ব ক্ষুধা সূচক বা গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (Global Hunger Index)। সেখানে ভারতের করুণ ছবি ধরা পড়েছে। ১১৬টি দেশের মধ্যে ভারতের জায়গা ১০১তম। ২০২০ সালে সেই সূচকে ভারতের জায়গা ছিল ৯৪তম। তখন সেখানে ছিল ১০৭টি দেশ। ২০২১ সালের র্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপালের থেকে পিছিয়ে রয়েছে ভারত।

দুই সংস্থা
ওই রিপোর্ট (Global Hunger Index) তৈরি করেছে আইরিশ সংস্থা কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এবং জার্মান সংস্থা হাঙ্গার হিলফে। তারা আশঙ্কা করেছে, ভারতে খিদের চাহিদা উদ্বেগজনক ভাবে বাড়ছে। 

খারাপ হচ্ছে ভারতের ছবি
এ কথা সত্যি গত কয়েক বছর ধরে গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (Global Hunger Index)-এ ভারতের অবস্থান ক্রমাগত খারাপ হচ্ছে। ২০০০ সালে ভারতের সূচক ছিল ৩৮.৮। তারপরে ২০১২ সাল থেকে ২০২১-এর মধ্যে তা ২৭.৫ এবং ২৮.৮-এর মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে। 

সূচক তৈরি হয়ে যার ওপর নির্ভর করে
মূলত চারটি বিষয়ের উপর নির্ভর করে এই সূচক তৈরি হয়। একটা হচ্ছে অপুষ্টি, দ্বিতীয়টি হল পাঁচ বছরের নীচে থাকা শিশুদের উচ্চতার তুলনায় কম ওজন। তৃতীয়টি হল পাঁচ বছরের নিচে থাকা শিশুদের উচ্চতা। এবং চতুর্থ দিকটি হল শিশু মৃত্যু। 

ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে করোনা অতিমারীর কারণে মানুষের জীবনে প্রভাব পড়েছে। এদেশের শিশুদের অবস্থা খুব একটা ভাল নয়। 

তবে ভারতের জন্য আশার খবরও রয়েছে শিশু। শিশু মৃত্যুর হার কমাতে পেরেছে ভারত। অপুষ্টিও কমেছে।

ভারতের পড়শি দেশগুলির মধ্যে নেপাল রয়েছে ৭৪তম জায়গায়। বাংলাদেশ একই জায়গায়। মায়ানমার ৭১ এবং পাকিস্তান ৯২ তম জায়গায় শেষ করেছে। খিদে নিয়ে যে তাদের দেশ খুব একটা ভাল জায়গায় রয়েছে, তা নয়। কিন্তু তারা ভারতের থেকে অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। 

এই তালিকা (Global Hunger Index)-য় প্রথম সারিতে রয়েছে চীন ব্রাজিল এবং কুয়েত। তাদের জিএইচআই স্কোর ৫-এর কম।

তবে খিদের জ্বালা মেটানোর কাজে অনেক উদাসীনতা দেখা যায়। বলছে ওই রিপোর্ট। ২০৩০ সালের মধ্য়ে দুনিয়ার ৪৭টি দেশ আরও খারাপ পরিস্থিতির শিকার হতে যাচ্ছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।