scorecardresearch
 

President Election 2022: মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন দ্রৌপদীর, 'শুভকামনা' মমতার

এ দিন মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরই বিরোধী শিবিরের শীর্ষ নেতা-নেত্রীদের ফোন করেন দ্রৌপদী মুর্মু। ফোন করেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ার এবং কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীকে।

দ্রৌপদী মুর্মু ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দ্রৌপদী মুর্মু ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
হাইলাইটস
  • আজই মনোনয়ন পেশ করেন দ্রৌপদী।
  • তার পর ফোন করেন মমতাকে।
  • শুভ কামনা জানান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

শুক্রবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন দ্রৌপদী মুর্মু। তার পরই ফোন করলেন বিরোধী শিবিরের নেতানেত্রীদের। নবান্নেও আসে তাঁর ফোন। মমতাকে ডায়াল করে দ্রৌপদী সমর্থন চেয়েছেন বলে খবর। 

এ দিন মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরই বিরোধী শিবিরের শীর্ষ নেতা-নেত্রীদের ফোন করেন দ্রৌপদী মুর্মু। ফোন করেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ার এবং কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীকে। দ্রৌপদীর ফোন পেয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ প্রার্থী হারবেন বলে গতকালও সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। ঘটনা হল, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধীদের ঐক্যবদ্ধ করার ক্ষেত্রে তিনিই উদ্যোগ নিয়েছেন। তৃণমূল ছেড়ে বিরোধী শিবিরের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হয়েছেন যশবন্ত সিনহা। নেপথ্যে রয়েছে মমতার হাত। সেই মমতাকেই ফোন করে সমর্থন চেয়েছেন দ্রৌপদী মুর্মু। সূত্রের খবর, দ্রৌপদীকে শুভকামনা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

বিরোধী প্রার্থী আগেই ঠিক হয়ে গিয়েছে। ফলে বিরোধী শিবিরের ভোট যাবে যশবন্ত শিবিরের দিকে। এমনকি বিরোধী জোটের প্রার্থীর দাবি, বিজেপির অনেকের ভোটও পাবেন। এই পরিস্থিতিতে বিরোধীদের সমর্থন চাইলেন দ্রৌপদী। বিরোধীদের অবস্থান স্পষ্ট হলেও কেন এই ফোনালাপ? রাজনৈতিক মহলের ধারণা, এটা নেহাতই সৌজন্য-কথা। আলাদা কোনও তাৎপর্য নেই। 

আরও পড়ুন- 'অন্য সরকারের উপরেও হামলা হবে,' মহারাষ্ট্র নিয়ে BJP-কেই টার্গেট মমতার