scorecardresearch
 

প্রতিদিন ১৮৬০-ঘণ্টায় ৭৭ জনের মৃত্যু, ভারতে এই ৫ ব্যাকটেরিয়া হয়ে উঠছে 'খুনি'

কিছু ব্যাকটেরিয়া ভাল। আবার কিছু হয় ক্ষতিকারক। তবে কিছু ব্যাকটেরিয়া আছে যেগুলি মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে। সায়েন্স জার্নাল ল্যান্সেটে এমনই ৫ ব্যাকটেরিয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে, যেগুলি ২০১৯ সাল থেকে শুধু ভারতে নয়, গোটা পৃথিবীতে 'খুনি' হিসেবে উঠে এসেছে।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • প্রাণঘাতী ব্যাকটেরিয়া
  • ভারতেও মৃত্যু হয়েছে অনেকের
  • জেনে নিন বিস্তারিত

আমাদের আশেপাশে তথা দেহের মধ্যে এমন কিছু ছোট ছোট জীব থাকে যাদের বলা হয় ব্যাকটেরিয়া। সেগুলি এতটাই ছোট, যে খালি চোখে দেখাও যায় না। কিছু ব্যাকটেরিয়া ভাল। আবার কিছু হয় ক্ষতিকারক। তবে কিছু ব্যাকটেরিয়া আছে যেগুলি মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে। সায়েন্স জার্নাল ল্যান্সেটে এমনই ৫ ব্যাকটেরিয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে, যেগুলি ২০১৯ সাল থেকে শুধু ভারতে নয়, গোটা পৃথিবীতে 'খুনি' হিসেবে উঠে এসেছে। এই ব্যকটেরিয়াগুলি গোটা বিশ্বে ১.৩৭ কোটিরও বেশি মানুষের প্রাণ নিয়েছে। এর মধ্যে ৭৭ লক্ষরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে ৩৩টি ব্যাকটেরিয়ার কারণে। আর ৫৫ শতাংশ মানুষের মৃত্যুর নেপথ্যে রয়েছে শুধুমাত্র ৫টি ব্যাকটেরিয়া। 

ল্যান্সেট জানাচ্ছে যে ৫টি ব্যাকটেরিয়া সবচেয়ে বেশি প্রাণঘাতী সেগুলি হল E. coli, S. pneumoniae, K. pneumoniae, S. aureus এবং A. baumanii। এই সমীক্ষায় ২০৪টি দেশের পরসংখ্যান অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। গবেষকরা ৩৪ কোটিরও বেশি মৃত্যুর রিপোর্ট খতিয়ে দেখেছেন এবং সেগুলির মধ্যে ব্যাকটেরিয়ার কারণে মৃত্যুর ঘটনাগুলি আলাদা করেছেন। 

ভারতে প্রতি ঘণ্টায় মৃত্যু ৭৭
সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, ২০১৯ সালে এই ৫টি ব্যাকটেরিয়ায় ভারতে ৬.৭৮ লক্ষরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ প্রতিদিন গড়ে ১,৮৬০ জন এবং ঘণ্টায় ৭৭ জন। এরমধ্যে  E. coli সবচেয়ে বেশি প্রাণঘাতী হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে। এই ভাইরাসে ২০১৯ সালে দেশে ১.৫৭ লক্ষরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। 

আরও যা উঠে এসেছে...
ওই সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, ২০১৯ সালে গোটা পৃথিবীতে যত মানুষ মারা গিয়েছেন তার মধ্যে ১৩.৬ শতাংশ মৃত্যু হয়েছে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশনের কারণে। সমীক্ষায় আরও দেখা গিয়েছে যে সাব-সাহারা আফ্রিকা অঞ্চলে মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি। সেখানে প্রতি এক লক্ষ জনসংখ্যায় ২৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি পশ্চিম ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও এশিয়ায় প্রতি এক লক্ষয় ৫২ জন মারা গিয়েছেন। 

কতটা গুরুত্বপূর্ণ এই সমীক্ষা?
ব্যাকটেরিয়া কতটা মারাত্মক, সেই বিষয়ে এটিই সবচেয়ে প্রথম হওয়া এত বড় গবেষণা। এই গবেষণায় যুক্ত ক্রিস্টোফার মারে বলেন, এই পরিসংখ্যানগুলি বিশ্বের সামনে রাখা প্রয়োজন, যাতে ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সৃষ্ট রোগ সনাক্ত করা যায় এবং মৃত্যুর পাশাপাশি সংক্রমণও কমানো যায়।

আরও পড়ুন - মাধ্যমিক পাশেই রেলে ২৫০০-র বেশি চাকরি, রইল যাবতীয় খুঁটিনাটি

 

 
; ; ;